সর্বশেষ সংবাদ ট্রাকের ধাক্কায় অ্যাম্বুলেন্সের ৬ যাত্রী নিহত নাচোলের বীরমুক্তিযোদ্ধা ছাহেন মোল্লাকে রাষ্ট্রীয় মর্যাদায় দাফন চাঁপাইনবাবগঞ্জে মডেল মসজিদ ও ইসলামিক সাংস্কৃৃতিক কেন্দ্রের উদ্বোধন চাঁপাইনবাবগঞ্জ-২ আসনে উপ-নির্বাচনঃপ্রচার-প্রচারনা শুরু প্রার্থীদের চাঁপাইনবাবগঞ্জে ১০ দফা দাবিতে বিএনপির বিক্ষোভ সমাবেশ চাঁপাইনবাবগঞ্জের দুটি সংসদীয় আসনে উপ-নির্বাচনে প্রতীক বরাদ্দ গাইবান্ধায় বাস-ট্রাক-মোটরসাইকেলের সংঘর্ষ, নিহত ৩ আফগানিস্তানে সাবেক নারী এমপিকে গুলি করে হত্যা নাচোলে পানের দোকান চালাচ্ছে ছাত্রী রাফিয়া সংসদ উপনির্বাচনঃ৷ একজনের মনোনয়ন প্রত্যাহার

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব সাফারি পার্কে বিরল প্রজাতির নীলগাই হস্তান্তর

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব সাফারি পার্কে বিরল প্রজাতির একটি নীলগাই হস্তান্তর করেছে বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ (বিজিবি)। বৃহস্পতিবার (৫ জানুয়ারি) সকালে বিজিবি’র ঢাকা সেক্টরের কমান্ডার কর্নেল আবু মোহাম্মদ মহিউদ্দিন বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব সাফারি পার্ক, গাজীপুরে বন অধিদফতরের অধীনস্থ বন্যপ্রাণী অপরাধ দমন ইউনিটের পরিচালক মো. ছানাউল্যা পাটওয়ারীর নিকট গাইটি হস্তান্তর করেন। এসময় বিজিবি’র পরিচালক (ভেটেরিনারি) আ ন ম আশরাফুল আলম মন্ডলসহ বিজিবি’র অন্যান্য কর্মকর্তা এবং বন অধিদফতরের সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা উপস্থিত ছ বিজিবি জানায়, চাঁপাইনবাবগঞ্জের সীমান্তবর্তী হাউসনগর থেকে নীলগাইটিকে উদ্ধার করা হয়। এলাকাবাসীর ধাওয়ায় তার শরীরে মারাত্মক জখম হয়। এছাড়া দীর্ঘক্ষণ না খেয়ে থাকায় অত্যন্ত দুর্বল ও মৃতপ্রায় হয়ে পড়ে। পরে সংবেদনশীল ও বিরল প্রজাতির এই প্রাণীটিকে উদ্ধার করে বিজিবি’র তত্বাবধানে ভেটেরিনারিতে চিকিৎসা, প্রয়োজনীয় খাবার ও বাসস্থানের ব্যবস্থা করা হয়। একপর্যায়ে নিবিড় পরিচর্যায় সম্পূর্ণরূপে সুস্থ্য ও সুঠাম দেহের অধিকারী করে তোলা হয়। বৃহস্পতিবার এটিকে জাতীয়ভাবে সংরক্ষণের জন্য বঙ্গবন্ধু সাফারি পার্কে হস্তান্তর করা হয়েছে।

গোমস্তাপুরে সড়ক দুর্ঘটনায় কলেজ ছাত্রের মৃত্যু

গোমস্তাপুর প্রতিনিধিঃচাঁপাইনবাবগঞ্জের গোমস্তাপুরে সড়ক দুর্ঘটনায় শাহীনবাবু(২২) নামে এক কলেজ ছাত্রের মৃত্যু হয়েছে। বৃহস্পতিবার সকালে রহনপুর- নাচোল সড়কের রহনপুর পৌর এলাকার চিনিয়াতলায় এ দূর্ঘটনা ঘটে ।নিহত ওই কলেজছাত্র নাচোল উপজেলার কসবা ইউনিয়নের জাদুপুর গ্রামের মোঃ একরামুল হকের ছেলে। সে রহনপুর ইউসুফ আলী সরকারি কলেজের অনার্স ২য় বর্ষের ছাত্র। স্থানীয় ও পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, ওই কলেজ ছাত্র সাইকেল চালিয়ে কলেজ যাওয়ার সময় চিনিয়াতলা নামক স্থানে একটি ধানবাহী ট্রাক তাকে ধাক্কা দিলে সে ঘটনাস্থলেই মারা যায়।পুলিশ ঘাতক ট্রাকটি ( ঢাকা -মেট্রো-১৪-১২৫৬) আটক করেছে। বিষয়টি নিশ্চিত করে গোমস্তাপুর থানার ওসি মাহবুবুর রহমান জানান, নিহত ওই কলেজ ছাত্রের লাশ পরিবারের নিকট হস্তান্তর করা হয়েছে।

চাঁপাইনবাবগঞ্জ-৩ আসনে মনোনয়নপত্র জমা দিলেন লিটন সহ ৬ জন

নিজস্ব প্রতিবেদক

চাঁপাইনবাবগঞ্জ-৩(সদর) আসনে আজ বৃহস্পতিবার মনোনয়নপত্র জমা দেয়ার শেষ দিনে স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে মনোনয়নপত্র জমা দিলেন জেলা যুবলীগের সাবেক সভাপতি সামিউল হক লিটন। সকালে রির্টানিং কর্মকর্তা ও জেলা প্রশাসক একেএম গালিব খানের হাতে তিনি তার মনোনয়নপত্র জমা দেন। এনিয়ে  এপর্যন্ত ৩জন প্রার্থী মনোনয়নপত্র জমা দিলেন। এর আগে গতকাল আওয়ামী লীগ মনোনিত প্রার্থী আব্দুল ওদুদ ও জাসদ মনোনিত প্রার্থী মনিরুজ্জামান মনির তাদের মনোনয়নপত্র জমা দেন।এছাড়াও  মোস্তাফিজুর রহমান মুকুল , কামরুজ্জামান খাঁন, স্বতন্ত্র প্রার্থী তাহারিমা এবং বুধবার আওয়ামলীগ দলীয় আ: ওদুদ বিশ^াস ও জাসদ থেকে মো: মুনিরুজ্জামান মনোনয়নপত্র জমা দেন।

আগামী ১ ফেব্রুয়ারী এ আসনে অনুষ্ঠিত হবে ভোটগ্রহন। ভোটার সংখা ৪ লখ ১১হাজার ৪৯৫ জন। এর মধে পুরুষ ভোটার ২লাখ ৮ হাজার ৮৮৩জন ও নারী ভোটার ২ লাখ ৫ হাজার ৬১২জন।

উল্লেখ, বিএনপির এমপি হারুনুর রশীদ পদত্যাগ করায় আসনটি শূন্য ঘোষনা করে নির্বাচন কমিশন।

চাঁপাইনবাবগঞ্জ-২ আসনে উপ-নির্বাচনঃ গোমস্তাপুরে স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে মনোনয়ন জমা দিলেন দুই আওয়ামীলীগ নেতা

 গোমস্তাপুর(চাঁপাইনবাবগঞ্জ)প্রতিনিধিঃ চাঁপাইনবাবগঞ্জ-২ (গোমস্তাপুর- নাচোল-ভোলাহাট)আসনের আসন্ন উপ- নির্বাচনে স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন দলীয় মনোনয়ন বঞ্চিত দুই আওয়ামীলীগ নেতা।তারা হলেন রাজশাহী জেলা পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান মোহাম্মদ আলী সরকার ও গোমস্তাপুর উপজেলা পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান খুরশিদ আলম বাচ্চু।মনোনয়নপত্র দাখিলের শেষদিনে বৃহস্পতিবার দুপুরে গোমস্তাপুর উপজেলা নির্বাচন অফিসে সহকারী রিটার্নিং কর্মকর্তা ও জেলা নির্বাচন অফিসার মোতাওয়াক্কিল রহমানের নিকট তারা পৃথক-পৃথক ভাবে মনোনয়নপত্র জমা দেন ।বৃহস্পতিবার দুপুর ১২টার দিকে মোহাম্মদ আলী সরকারের পক্ষে তার ছেলে আহসান হাবিব সরকার ও দুপুর ১ টার দিকে খুরশিদ আলম বাচ্চু নিজেই মনোনয়নপত্র জমা দেন।এসময় তাদের কর্মী- সমর্থকরা উপস্থিত ছিলেন। এছাড়াও চাঁপাইনবাবগঞ্জ ২ আসনে জাতীয় পার্টি থেকে মোহাম্মদ আব্দুর রাজ্জাক ও জাকের পার্টি থেকে মো: গোলাম মোস্তফা এবং বুধবার আওয়ামলীগ দলীয় প্রার্থী মু: জিয়াউর রহমান ও বাংলাদেশ ন্যাশনালিষ্ট ফ্রন্ট (বিএনএফ) থেকে মো: নবীউর ইসলাম মনোনয়ন পত্র জমা দেন।

২২ বীর মুক্তিযোদ্ধাকে গেজেট থেকে বাদ দেওয়ার সিদ্ধান্ত অবৈধ

ঢাকা: গাইবান্ধার গোবিন্দগঞ্জের গেজেটভুক্ত ২২ জন নৌ-কমান্ডোকে বীর মুক্তিযোদ্ধার গেজেট থেকে বাদ দেওয়ার সিদ্ধান্তকে অবৈধ ঘোষণা করেছেন হাইকোর্ট।

ওই ২২ জন নৌ-কমান্ডো মুক্তিযোদ্ধা ও তাদের পরিবারের দায়ের করা রিটে জারি করা রুল যথাযথ ঘোষণা করে বৃহস্পতিবার (৫ জানুয়ারি) বিচারপতি জুবায়ের রহমান চৌধুরী ও বিচারআদালতে আবেদনের পক্ষে ছিলেন আইনজীবী ব্যারিস্টার তৌফিক ইনাম টিপু।পতি কাজী এবাদত হোসেনের হাইকোর্ট বেঞ্চ এ রায় দেন।

পরে তৌফিক ইনাম টিপু জানান, ২০০৩ সালে সরকার গঠিত সাত সদস্যের একটি যাচাই-বাছাই কমিটি ৪৭২ জন মুক্তিযোদ্ধার তালিকা প্রণয়ন করে। উক্ত কমিটির সুপারিশের আলোকে পরে ২০০৫ সালে মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক মন্ত্রণালয় রিট আবেদনকারী ২২ জন নৌ-কমান্ডোকে বীর মুক্তিযোদ্ধা হিসেবে হিসেবে গেজেটভুক্ত করে এবং স্বীকৃতি স্বরূপ রাষ্ট্রীয় ভাতা দিয়ে আসছে।

কিন্তু ওই নৌ-কমান্ডো মুক্তিযোদ্ধাদের আবারো যাচাই-বাছাইয়ের আওতায় আনা হয়। এর পরিপ্রেক্ষিতে ২২ জন রিট আবেদনকারীসহ ২৪ জন নৌ-কমান্ডো বীর মুক্তিযোদ্ধার জন্য ২০১৬ সালের ৭ এপ্রিল (৩৫তম সভায়) জামুকা একটি সিদ্ধান্ত নেয়।

পরে ২২ মুক্তিযোদ্ধা ও তাদের পরিবার রিট করে। রিটের শুনানি নিয়ে ২০১৬ সালের ৯ মে হাইকোর্ট রুল জারি করেন। রুলে ২০১৬ সালের ৭ এপ্রিল জাতীয় মুক্তিযোদ্ধা কাউন্সিলের আবেদনকারীসহ ২৪ নৌ-কমান্ডোকে বীর মুক্তিযোদ্ধা গেজেট থেকে বাদ দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেওয়া কেন আইনগত কর্তৃত্ব বহির্ভূত হবে না, তা জানতে চেয়েছেন। পাশাপাশি সিদ্ধান্ত স্থগিত করেন।

ওই রুলের শুনানি শেষে মুক্তিযোদ্ধা কাউন্সিলের ৩৫ তম সভার সংশ্লিষ্ট ওই সিদ্ধান্ত বাতিল করে রায় দেন হাইকোর্ট।

তৌফিক ইনাম টিপু জানান, হাইকোর্ট এই রায়ে উল্লেখ করেন- গেজেটভুক্ত মুক্তিযোদ্ধাদের সাব-কমিটির মাধ্যমে যাচাই-বাছাই করে তাদের গেজেট বাতিলের সিদ্ধান্ত নেওয়ার কোনো এখতিয়ার জামুকার নেই। এটি সরকার ও মন্ত্রণালয়ের বিষয়।

রিট আবেদনকারীরা হলেন, গাইবান্ধার গোবিন্দগঞ্জ উপজেলার রামপুরা গ্রামের মো. আব্দুল হান্নান সরকার, রামচন্দ্রপুরের মো. বাহার উদ্দিন, রামপুরার মো. এন্তাজ আলী, মো. গোলাম মোস্তফা, মো. সাইদুর রহমান, মো. আব্দুল আজিজ শেখ, মো. ফয়জার রহমান, মো. শরীফ উদ্দিনের স্ত্রী সকিনা বেগম, জিন্নাত আলীর স্ত্রী মজিদা বেগম, আফতাব উদ্দিনের ছেলে মাহবুবুর রহমানের স্ত্রী তাসলিমা বেগম, করিম বক্সের চেলে মাহবুবুর রহমানের স্ত্রী আয়েশা বেগম, আমিনুল ইসলাম, বিনয় কুমার সরকার, আব্দুল গাফফারের স্ত্রী হামিদা বেগম, আশরাফুল আজাদ, গোলাম হোসেনের স্ত্রী সুফিয়া বেগম, শামসুল হক, মোহাম্মদ আলীর ছেলে মো.জুয়েল সরকার, বজলুর রহমান, রফিকুল ইসলাম, জসিম উদ্দিন প্রধানের স্ত্রী নুর বেগম ও মো.হারুন অর রশিদ।