সর্বশেষ সংবাদ চাঁপাইনবাবগঞ্জে ধাওয়া পাল্টা ধাওয়ায় রণক্ষেত্র এলাকা, ২টি ককটেল উদ্ধার নাচোলে সন্ত্রাসি হামলায় সাংবাদিক সুফিয়ান গুরুতর আহত করোনায় আরও ২৩৫ জনের মৃত্যু শিবগঞ্জের বেলী ব্রীজে জীবনের ঝুঁকি নিয়েই চলছে মানুষ ও যানবাহন সোনামসজিদ স্থলবন্দর সিএন্ডএফ’র নতুন কমিটির দায়িত্ব গ্রহণ চাঁনশিকারী ও পোলাডাংগা সীমান্তে ইয়াবা সহ আটক ২ ॥ পলাতক-৮ চাঁপাইনবাবগঞ্জে ২ কেজি গাঁজাসহ আটক-১ বড় অফিসার হওয়ার স্বপ্ন দেখে মেধাবী বনি Two associates of Helena Jahangir held PM distributes flats among 300 slum dwellers

চাঁপাইনবাবগঞ্জে করোনার দ্বিতীয় ঢেউয়ের ৩ মাসে মৃত্যু ছাড়াল অর্ধশত

চাঁপাই নবাবগঞ্জ ঃ

চাঁপাইনবাবগঞ্জে করোনার দ্বিতীয় ঢেউয়ের শেষ ৩ মাসে বেড়েছে মৃত্যু ও সনাক্ত। বিশেষ করে ভারতীয় ধরন সনাক্ত হবার পর থেকে জেলায় মৃত্যুর হার বাড়ছে হু হু করে। গত ২৪ ঘন্টায় ২ জন সহ ১ মার্চ থেকে ১২ জুন পর্যন্ত চাঁপাইনবাবগঞ্জে মোট ৬৮ জনের মৃত্যু হলেও গত ৩ মাসে মৃত্যু হয়েছে ৫৪ জনের। এর আগে প্রথম ঢেউয়ে ১৪ জন মারা যায়।মৃত’্যর পাশাপাশি সংক্রমনও বাড়ছে প্রতিদিন গড়ে শ জন করে।
এদিকে চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলা আধুনিক হাসপাতালের করোনা ইউনিটে রোগীর চাপ বেড়ে যাওয়ায় ৩ দফা বেড সংখ্যা বাড়িয়ে ৭২ এ উন্নীত করা হয়েছে। গত ২৪ ঘন্টায় সনাক্ত ৫৭ জন সহ মোট আক্রান্ত ৩ হাজার ১শ ৩৩ জন । সংক্রমনের হার বেড়ে ৬৫ শতাংশে ঠেঁকলেও বর্তমানে জেলায় সংক্রমনের হার কমে ১০. ৫৯ শতাংশে নেমে এসেছে। টানা ১৪ দিনের কঠোর লকডাউন শেষে ধীরে ধীরে কমছে সংক্রমনের হার।তবে বর্তমানে ১১ দফা কঠোর বিধি নিষেধ বলবৎ থাকলেও জেলাবাসীর অধিকাংশরাই তা মানছেননা।কঠোর বিধিনিষেধ মানাতে প্রশাসন ব্যর্থ হলে আবারো জেলার করোনা পরিস্থিতি উদ্ধমুখি হবার আশংকা সচেতন মহলের। ভারত থেকে এ পর্যন্ত ৯৪ জন আটকে পড়া বাংলাদেশী সোনামসজিদ বন্দর দিয়ে দেশে ফিেেরছে।এদের মধ্যে প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টাইন এর মেয়াদ শেষে ছেড়ে দেয়া হয়েছে ৬৬ জনকে।
এ ব্যাপারে চাঁপাইনবাবগঞ্জ সিভিল সার্জন ডা: জাহিদ নজরুল চৌধুরি বলেন, জেলায় করোনা সনাক্তের হার কমেছে। সংক্রমনের হার নি¤œমুখি হলেও এখনও নিয়ন্ত্রণের বাহিরেই আছে। জেলার মানুষ যদি সচেতন হয়ে সঠিকভাবে মাস্ক পরা এবং স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলে, তাহলে আগামী ১ সপ্তাহের মধ্যেই জেলার করোনা সংক্রমন নিয়ন্ত্রণে আসবে।

জেলায় করোনা সংক্রমণ রোধে গত ২৫ মে থেকে ২ দফায় ১৪ দিনের লকডাউন ৭ জুন মধ্যরাতে শেষ হলে গত সোমবার থেকে আম ব্যবসায়ীদের কথা ভেবে জেলা করোনা মোকাবিলা কমিটির সদস্যরা ১১ টি কঠোর বিধিনিষেধ আরোপের মাধ্যমে ১৬ জুন ( বুধবার) পর্যন্ত লকডাউন শিথিল করে বিধিনিষেধ আরোপ করে।

গোমস্তাপুরে রাষ্ট্রীয় মর্যাদায় বীর মুক্তিযোদ্ধার দাফন সম্পন্ন

গোমস্তাপুর প্রতিনিধিঃ
উপজেলার গোমস্তাপুর ইউনিয়নের চাঁইপাড়া গ্রামের বীর মুক্তিযোদ্ধা আঃ মতিনের দাফন রবিবার সম্পন্ন হয়েছে। রোববার সকালে নিজ বাড়িতে ইন্তেকাল করেন তিনি।( ইন্নানিল্লাহি ওয়া ইন্নাইলাহি রাজিউন) মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল ৭০ বছর। তিনি স্ত্রীও পাঁচ ছেলে মেয়ে সহ অসংখ্য গুণগ্রাহী রেখে গেছেন।
গোমস্তাপুর ইউনিয়নের একটি গোরস্থানে তার নামাজে জানাজা অনুষ্ঠিত হয়।
জানাজায় উপস্থিত ছিলেন উপজেলা নির্বাহী অফিসার মিজানুর রহমান, সাবেক জাতীয় সংসদ সদস্য জিয়াউর রহমান, উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আলহাজ্ব হুমায়ুন রেজা , গোমস্তাপুর ইউনয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান জামাল উদ্দিন মন্ডল, সাবেক উপজেলা কমান্ডার বীর মুক্তিযোদ্ধা মাহবুবুল আলম( নুরি) ইউনিয়ন কমন্ডার দুরুল হোদা, নজরুল ইসলাম। জানাজার শুরুতেই গোমস্তাপুর থানার ওসি(তদন্ত) সেলিম রেজা নেতৃত্বে মরহুম এ মুক্তিযোদ্ধাকে গার্ড অব অনার প্রদান করা হয়।

ভোলাহাটে হারিয়ে গেছে বাদুড়

ভোলাহাট(চাঁপাইনবাবগঞ্জ)প্রতিনিধিঃ আগে আম পেঁকে থাকতো গাছে গাছে, বাদুড় খেত গাছের পাকা আমগুলি আর পাকা আম গাছ থেকে পড়ে গেলে শিয়াল কুকুর এক সাথে পাশাপাশি মজা করে আম খেত। মধূ মাসে মনে হতো শিয়াল আর কুকুরের মধ্যে কোনই বিরোধ নেই।
গাছে একটা আম পাকলেই ধরে নেওয়া হয় আম পাড়ার সময় হয়ে গেছে। তখনই আম ব্যবসায়ীগন আমগুলি পেড়ে বিভিন্ন স্থানে বাজারজাত করতে ব্যস্থতা বেড়ে যায়। কিন্তু এখন আর বটগাছে বা বাঁশ ঝাড়ে বাদুড় ঝুলে না। আম গাছ তলায় শিয়াল কুকুরের সহঅবস্থানও দেখা যায়না।এসবই ঘটতো বড় বড় আম বাগানে রাতের সময়। এখন হারিয়ে গেছে সেই সব মধুর দিনগুলি। ভোলাহাট থেকে হারিয়ে গেছে বাদুড়। আজকাল আর দেখাই যায়না বাদুড়।
গ্রামের এক বয়স্ক মানুষ মোঃ মুক্তারুল ইসলাম জানান, প্রকৃতির ভারসাম্য রক্ষায় বাদুড়ের ভুমিকা আছে অনেক। স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞ মোঃ সুমন আলী জানান, বাদুর থেকে নিপা ভাইরাস ও করোনা ভাইরাস মানুষের শরীরে এসেছে তাই বাদুর না থাকায় ভাল।
এক সমাজসেবক মোঃ তাজুল ইসলাম জানান, আমসহ বিভিন্ন ফলে কীটনাশক স্প্রে করায় সে সব ফল খেয়ে ধীরে ধীরে মরে গেছে বাদুড়। ফলে হারিয়ে গেছে এ সব প্রানী। মোঃ হায়াত উল্লাহ জানান, শীত মৌসুমে খেজুর গাছে গাছী রস লাগালে গাছে গাছে বাদুড়ের ডানা ঝাপটানো অপূর্ব সুন্দর দৃশ্য চোখে পড়তো। বাদুড় বিলুপ্ত হওয়ায় এখন আর সে সব দৃশ্য উপভোগ করতে পাওয়া যায় না।
ভোলাহাটের বিনোদন প্রেমীক মোঃ আজিজুল হক জানান, আম পাকার সময়টা জানিয়ে দিত বাদুড়। আম পাকলে বাদুড় খেয়ে গাছের নিচে ফেলে দিতো। বাদুড়ের খেয়ে ফেলা আম খেত ছোট ছোট ছেলে মেয়েরা। এদিকে লিচু গাছে বাদুড় থেকে রক্ষা পেতে জাল দিয়ে ঘেরে ঘন্টা বাজানো হতো। আজ বাদুড় না থাকায় সেদিন শেষ হয়ে গেছে।এখন ভোলাহাটে বরই চাষ করছে। বরই চাষিরা তাদের জমির চারেদিক জাল দিয়ে ঘিরে রাখায় জালে আঁটকে মারা গেছে অনেক বাদুড়।
এদিকে ভোলাহাট উপজেলা প্রানি সম্পদ কর্মকর্তা ডাঃ মোঃ আব্দুল্লাহ জানান, ভোলাহাটের বিশাল এলাকা জুড়ে আম বাগান রয়েছে। আম বাগানের আমে কীটনাশক ব্যবহার করায় খাদ্য ও বাসস্থানের অভাব দেখা দিয়েছে। ফলে বাদুড় বিলুপ্ত হয়েছে। বাদুড়ের পূর্বের অবস্থান ফিরে পেতে হলে আমসহ বিভিন্ন ফলে কীটনাশক ব্যবহার বন্ধ করলে খাদ্য ও বাসস্থানের উপযুক্ত ব্যবস্থা হবে। তখন বাদুড়ের সেই পূর্বের ঐতিহ্য ফিরে আসবে। বাদুড়ের কলোকাকুলি ফিরে আসবে।

চাঁপাইনবাবগঞ্জের ৫ জন সহ রা.মে.কে ২৪ ঘণ্টায় ১৩ জনের মৃত্যু

একদিনের ব্যবধানে রাজশাহী মেডিক্যাল কলেজ (রামেক) হাসপাতালে ফের বেড়েছে মৃত্যুর সংখ্যা। গেল ২৪ ঘণ্টায় হাসপাতালে আরও ১৩ জনের মৃত্যু হয়েছে।

এর আগের ২৪ ঘণ্টায় ৪ জনের মৃত্যু হয়েছিল। ফলে একদিনের ব্যবধানে মৃত্যু বেড়েছে। এর আগে গত ৪ জুন সর্বোচ্চ ১৬ জনের মৃত্যু হয়েছিল।
রোববার (১৩ জুন) সকালে রাজশাহী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের উপ-পরিচালক ডা. সাইফুল ফেরদৌস এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

ডা. সাইফুল ফেরদৌস বলেন, গেল ২৪ ঘণ্টায় রামেক হাসপাতালে মারা যাওয়া ১৩ জনের মধ্যে ৬ জন করোনা পজিটিভ ছিলেন। অন্য ৭ জন মারা গেছেন করোনা উপসর্গ নিয়ে। করোনা পজিটিভ হয়ে মারা যাওয়া ৫ জনের বাড়ি চাঁপাইনবাবগঞ্জে ও একজনের বাড়ি নওগাঁয়।

এছাড়া হাসপাতালে করোনা উপসর্গ নিয়ে মারা যাওয়া ৭ জন রোগীর মধ্যে দুইজনের বাড়ি রাজশাহীতে, একজনের বাড়ি চাঁপাইনবাবগঞ্জে, একজনের বাড়ি নাটোরে, নওগাঁয় দুইজন এবং কুষ্টিয়ার রয়েছেন একজন।

এক প্রশ্নের জবাবে ডা. সাইফুল ফেরদৌস আরও বলেন, এ ১৩ দিনে (১ জুন সকাল ৬টা থেকে ১৩ জুন সকাল ৬টা পর্যন্ত) রামেক হাসপাতালের করোনা ইউনিটে মারা গেছেন ১২৪ জন। এর মধ্যে ৭০ জনই মারা গেছেন করোনা শনাক্ত হওয়ার পর। বাকিরা উপসর্গ নিয়ে মারা যান।

এর মধ্যে ১ জুন, সাতজন, ২ জুন সাতজন, ৩ জুন নয়জন, ৪ জুন ১৬ জন, ৫ জুন ৮ জন, ৬ জুন ছয়জন, ৭ জুন ১১ জন, ৮ জুন আটজন, ৯ জুন আটজন, ১০ জুন ১২ জন, ১১ জুন ১৫, ১২ জুন ৪ জন এবং সর্বশেষ ১৩ জুন ১৩ জনের মৃত্যু হয়েছে।

এছাড়া গত ২৪ ঘণ্টায় করোনা ইউনিটে ভর্তি হয়েছেন ৪২ জন। আজ সকাল ৬টা পর্যন্ত করোনা ওয়ার্ডে ভর্তি আছেন ২৯৪ জন। অথচ শয্যা সংখ্যা ২৭১টি। অর্থাৎ ধারণ ক্ষমতার বেশি সংখ্যাক রোগী বর্তমানে ভর্তি রয়েছেন। এর মধ্যে রাজশাহীর ১৩০, চাঁপাইনবাবগঞ্জের ১০৮, নাটোরের ১৪, নওগাঁ ২৮, পাবনার ৪, কুষ্টিয়ার ১ জন এবং অন্যান্য রোগীর সংখ্যা ৯জন। এর মধ্য আশঙ্কাজনক অবস্থায় হাসপাতালের আইসিইউতে ভর্তি আছেন ১৮ জন।

অপরদিকে, করোনার ‘নতুন হটস্পট’ রাজশাহীতে একদিনের ব্যবধানে ফের বেড়েছে সংক্রমণের হার। বৃহস্পতিবার দুইটি ল্যাবে রাজশাহীর ৪৬৫ জনের নমুনা পরীক্ষা করা হয়। এতে ১২২ জনের নমুনায় করোনা পজেটিভ এসেছে। গত রাতে রাজশাহী মেডিক্যাল কলেজ ও হাসপাতাল দুইটি পিসিআর ল্যাবর নমুনা পরীক্ষার পর এই ফল আসে। পরীক্ষা অনুযায়ী রাজশাহীতে সংক্রমণের হার ৫৩ দশমিক ৬৭ শতাংশ।

যেসব এলাকায় বিধিনিষেধ নেই সেখানে নির্বাচন হবে: নুরুল হুদা

‘যেসব এলাকায় করোনার প্রকোপ কম কিংবা স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের বিধিনিষেধ নেই সেখানেই নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে’ বলে জানিয়েছেন প্রধান নির্বাচন কমিশনার এ কে এম নুরুল হুদা।

রোববার (১৩ জুন) সকালে মাদারীপুরে সার্কিট হাউস ও জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ে এক অনুষ্ঠানে যোগ দিয়ে তিনি এ কথা বলেন।এসময় প্রধান নির্বাচন কমিশনার বলেন, গত ১১ এপ্রিল প্রথম ধাপে ইউনিয়ন পর্যায়ে নির্বাচন হওয়ার কথা থাকলেও করোনার জন্য তা পিছিয়ে ২১ জুন দিন ধার্য করে নির্বাচন কমিশন। ৩৭১টি ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন হওয়ার কথা থাকলেও করোনা পরিস্থিতি বেড়ে যাওয়ায় ২০০ ইউনিয়ন পরিষদে অনুষ্ঠিত হবে নির্বাচন। ইভিএমের মাধ্যমে লক্ষ্মীপুর-২ সংসদীয় আসনের উপ-নির্বাচন ও ১১টি পৌরসভার ভোট নেওয়া হবে। এছাড়া ২০০টি ইউনিয়নের মধ্যে সীমিত সংখ্যক ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে অনুষ্ঠিত হচ্ছে এই ইলেকট্টিক পদ্ধতিতে।

এদিকে নির্বাচনের আগে ও পরে যাতে কোনো ধরনের সহিংসতা না হয় সেজন্য জেলা প্রশাসন ও পুলিশ প্রশাসনকে নির্দেশ দেওয়ার কথাও জানান তিনি।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন- ফরিদপুর অঞ্চলের আঞ্চলিক নির্বাচন কমিশনার মোস্তফা ফারুক, নির্বাচন কমিশনের যুগ্ম সচিব ফরহাদ আহম্মেদ খান, মাদারীপুরের জেলা প্রশাসক ড. রহিমা খাতুন, পুলিশ সুপার গোলাম মোস্তফা রাসেল, জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা মো. মনিরুজ্জামানসহ অন্যরা।

জবিতে সশরীরে পরীক্ষা ১০ আগস্ট

জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের (জবি) বিভিন্ন বর্ষের আটকে থাকা সেমিস্টার ফাইনাল পরীক্ষা শুরু হবে ১০ আগস্ট থেকে। তবে ১৮ জুলাইয়ের মধ্যে অনলাইনে শেষ করতে হবে রিভিউ ক্লাসসহ আটকে থাকা মিড পরীক্ষা।

রোববার ফোনালাপে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. ইমদাদুল হক।

জানা যায়, রোববার অনলাইনে একাডেমিক কাউন্সিলের মিটিং এ সকল সিদ্ধান্ত নেয়া হয়।

এ ব্যাপারে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. ইমদাদুল হক জানান, ‘জুলাইয়ের মধ্যে নিজ নিজ বিভাগ অনলাইনে রিভিউ ক্লাস এবং মিড পরীক্ষা নিবেন। আর সেমিস্টার ফাইনাল পরীক্ষা আগস্টের প্রথম সপ্তাহে সশরীরে অনুষ্ঠিত হবে।’

তিনি আরো বলেন, এটা অনেকটাই করোনার পরিস্থিতির উপর ডিপেন্ড করছে। যদি করোনা পরিস্থিতি ভয়াবহ আকার ধারণ না করে তাহলে আমরা আমাদের সিদ্ধান্তে অটুট থাকবো।

ট্রেজারার অধ্যাপক ড. কামাল উদ্দিন আহমদ বলেন, ‘সিদ্ধান্তটা খুবই সুন্দর হয়েছে। যেহেতু করোনা বেড়ে গেছে আমরা কোনো শিক্ষার্থীকে ঢাকায় এনে বিপদে ফেলতে চাই না।চূড়ান্ত পরীক্ষাগুলো সব ১০ আগস্ট থেকে শুরু হবে, কিন্তু দুই সেমিস্টারের মিড, এসাইনমেন্ট যেভাবে শিক্ষার্থীবান্ধব হয় অনলাইনে শিক্ষকরা ১৮ জুনের মধ্যে তা নিয়ে শেষ করবেন।’

তিনি আরো বলেন, আজকে নোটিশ দিয়ে দিবে আর পরীক্ষা ফি, সেমিস্টার ফি এসব সব অনলাইনে নেয়া হবে।

সাভারে হামলার শিকার আম্পায়ারদের মাইক্রোবাস

স্পোর্টস ডেস্ক
সাভারের আশুলিয়ায় একটি কারখানার শ্রমিকদের আন্দোলনের ভেতরে পরে যাওয়ায় অনাকাঙ্ক্ষিভাবে ভাঙচুরের শিকার হয়েছে ক্রিকেট আম্পায়ার ও ম্যাচ রেফারিদের একটি মাইক্রোবাস। তবে এতে কেউ আহত হয়নি। রোববার সকাল সাড়ে ৭টার দিকে আন্দোলনরত শ্রমিকদের ভাঙচুরের শিকার হয় আম্পায়ার ও ম্যাচ রেফারিদের মাইক্রোবাসটি।

জানা গেছে, সাভারের আশুলিয়ায় যাওয়ার পথে আশুলিয়ায় আম্পায়ারদের ২টি মাইক্রোবাস সড়কে আন্দোলনরত শ্রমিকদের পিকেটিংয়ের কবলে পড়ে যায়। যে কারণে বেশ কিছুক্ষণ তারা গাড়িতে আটকে ছিলেন। আজ সকালে বাংলাদেশ ক্রীড়া শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ছিলো পৃথক ২টি ম্যাচ। ম্যাচ শুরু হওয়ার কথা ছিল সকাল ৯টায়। সেক্ষেত্রে টস হওয়ার কথা সাড়ে ৮টায়। তবে নির্ধারিত সময়ে ম্যাচ তো হয়ইনি, টসও হয়নি।

বিকেএসপিতে খেলতে যাওয়া দলের একটি সূত্র জানায়, আশুলিয়ার দিকে আম্পায়ারদের বহনকারী মাইক্রো বাসে হামলা হয়। তবে মাইক্রোর পিছনের কাচ ভেঙে গেছে। দীর্ঘক্ষণ আটকে রাখা হয় ম্যাচ অফিসিয়ালদের গাড়ি।

বিয়ের পিঁড়িতে চতুর্থবার শ্রাবন্তী!

বিনোদন ডেস্ক
টলিউডের অভিনেত্রী ও সাংসদ নুসরাতের বেবি বাম্পের ছবি সামনে আসার একদিন পরেই সংবাদের শিরোনামে এসেছেন শ্রাবন্তী চট্টোপাধ্যায়। প্রশ্ন উঠেছে অন্যতম সুন্দরী এ নায়িকার চতুর্থ বিয়ে নিয়ে। কারণ সম্প্রতি বিজেপির নতুন এই নেত্রীর ইনস্টাগ্রাম পোষ্ট দেখলে যে কারো মনে প্রশ্ন উঠতেই পারে।

সেখানে নববধূর সাজে একটি ছবি শেয়ার করেছেন শ্রাবন্তী। তার পরনে লাল শাড়ি, হাতে শাঁখা পলা, বড় নাকছাবি, সিঁথিতে সিঁদুর এবং মাথায় টোপর।

তবে ছবির ক্যাপশনে সবকিছু পরিষ্কার করে দিয়েছেন নায়িকা। জানিয়েছেন, একটি ব্রাইডাল শ্যুটের জন্যই তার এমন সাজ। কিন্তু, তার পরও শ্রাবন্তীকে নিয়ে ট্রোলিংয়ে মেতেছেন তার সোশ্যাল মিডিয়ার ভক্তরা।

আরেক অভিনেত্রী নুসরাতের প্রসঙ্গ টেনে একজন লিখেছেন, ‘এখন নুসরাত দিদি বিয়ে ভাঙতে ব্যস্ত আর ইনি (শ্রাবন্তী) তিনবার বউ সাজার পরও আবার শখ করে সেজেছেন, কী যে হচ্ছে’!

অন্য আরেকজন মন্তব্য করেছেন, ‘এভাবে আর ঘর ভেঙ্গ না’। আরেকজন লিখেছেন, ‘ব্যস! এবার হবে ওয়ার্ল্ড রেকর্ড। চারবার বিয়ে করতে চলেছেন। জানি না আর কতগুলো হবে।’

এরকম আরো বহু নেতিবাচক মন্তব্যে ভরে উঠেছে নায়িকার ইনস্টাগ্রামের কমেন্টস বক্স। যদিও কোনো মন্তব্যেরই কোনো জবাব দেননি অভিনেত্রী।

প্রসঙ্গত, গত বছরের অক্টোবর থেকে তৃতীয় স্বামী রোশন সিংয়ের থেকে আলাদা থাকছেন শ্রাবন্তী। এরপর থেকে প্রায় প্রতিদিনই নাম না করে তারা একে অন্যকে কথার তিরে বিদ্ধ করেছেন। যদিও গত এপ্রিল-মে’তে শেষ হওয়া বিধানসভা নির্বাচনের সময় থেকে সেটি আর চোখে পড়ছে না। বরং এখন রোশন সিং তার তারকা স্ত্রী শ্রাবন্তীকে ফিরে পেতে চাইছেন। তিনি আদালতের দারস্থও হয়েছেন। এর প্রেক্ষিতে আগামী মাসে নায়িকাকে তলব করেছে আদালত।

6 lakh Chinese vaccine doses to arrive this afternoon

The second consignment of 6 lakh doses of Covid-19 vaccine made by Chinese Sinofarm will arrive in Bangladesh on Sunday afternoon.

Two aircraft of Bangladesh Air Force left Dhaka for China on Saturday night to bring the vaccine shots.

China will deliver this second consignment of Covid-19 vaccines as gifts to Bangladesh.

On May 12, Bangladesh received a gift of five lakh Sinopharm doses from China. The government has already started administering those to medical students on a priority basis.

The Chinese vaccines arrive in Bangladesh when it is desperately looking for vaccines from different sources after India halted AstraZeneca vaccine export in March amid a massive rise in Covid-19 infections.

কুষ্টিয়ায় বাবা-মা ও ছেলেকে গুলি করে হত্যা

কুষ্টিয়া: কুষ্টিয়া শহরের কাস্টমস মোড়ে প্রকাশ্যে অস্ত্রধারীর গুলিতে বাবা-মা ও ছেলের মৃত্যু হয়েছে।
প্রত্যক্ষদর্শীদের একজন জানান, পর পর তিনটি গুলির শব্দ শুনতে পেয়ে বাইরে আসি। এসে দেখি শিশুসহ তিনজন মাটিতে পড়ে আছে। এর মধ্যে মা ও সাত বছরের ছেলে ঘটনাস্থলেই মারা যায়।

এদিকে এলাকাবাসী ঘাতককে অস্ত্র ও গুলিসহ আটক করে পুলিশে সোপর্দ করে। পুলিশ তাকে থানায় নিয়ে গেছে। তবে পুলিশ তাৎক্ষণিক-ভাবে ঘাতকের পরিচয় জানায়নি।
রোববার (১৩ জুন) সকাল ১১টায় এ হামলার ঘটনা ঘটে।এ ঘটনায় পুলিশ হামলাকারীকে আটক করেছে বলে জানা গেছে। তবে নিহতদের নাম পরিচয় জানা যায়নি।
কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতাল সূত্রে জানা যায়, গুলিবিদ্ধ অবস্থায় তিনজনকে হাসপাতালে নিয়ে আসার পরে চিকিৎসাধীন অবস্থায় একে একে তিনজনেই মারা যান।

কুষ্টিয়ার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মোস্তাফিজুর রহমান ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, ঘটনাস্থলে পুলিশ মোতায়েন রয়েছে।