সর্বশেষ সংবাদ বেতন বাড়ছে জাতীয় দলের ক্রিকেটারদের নন্দীগ্রামে হেরে হাইকোর্টে মমতা, শুনানি আজ চীনের সিনোফার্মের টিকা চট্টগ্রামে পৌঁছেছে অবশেষে ফিরে এসেছেন আবু ত্ব-হা করোনা ভাইরাস থেকে বাঁচতে আর্জেন্টিনা সমর্থকদের নিয়ে মেয়র মনিরুলের মাস্ক ও হ্যান্ড স্যানিটাইজার বিতরণ চাঁপাইনবাবগঞ্জে ফের গুচ্ছগ্রাম উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী মদ-ক্লাব-জুয়া নিয়ে উত্তপ্ত সংসদ দ্বিতীয় পর্যায়ে ঘর পাচ্ছে আরও ৫৩ হাজার পরিবার চাঁপাইনবাবগঞ্জে কঠোর বিধিনিষেধের মেয়াদ বাড়ল ৭ দিন সংসারের বোঝা কমাতে রাজমিস্ত্রীর কাজে গিয়ে প্রাণ হারালো স্কুলছাত্র

গোমস্তাপুরে র‌্যাপিড অ্যান্টিজেন টেস্টে এনজিওকর্মীসহ শনাক্ত ৬

গোমস্তাপুর (চাঁপাইনবাবগঞ্জ) প্রতিনিধি ঃ চাঁপাইনবাবগঞ্জের গোমস্তাপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে র‌্যাপিড অ্যান্টিজেন টেস্টে ২ এনজিওকর্মীসহ নতুন করে ৬জন শনাক্ত হয়েছেন । বৃহস্পতিবার ৩২ জনের টেস্টে ৬ জন শনাক্ত হন। এদের মধ্যে ৩ জন নারী ও ৩জন পুরুষ রয়েছেন। এ নিয়ে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে করোনার দ্বিতীয় ঢেউয়ে মোট ২১৪ জনের দেহে করোনা শনাক্ত করা হয়েছে ।
গোমস্তাপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের করোনা মনিটরিং কর্মকর্তা ডা. হাসান আলি বলেন, বৃহস্পতিবার গোমস্তাপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ৩২ জনের র‌্যাপিড অ্যান্টিজেন টেস্ট করা হয়। টেস্টে ৬ জনের রিপোর্ট পজিটিভ পাওয়া যায়। এদের মধ্যে ৩ নারী ও ৩ জন পুরুষ রয়েছে। রাধানগর ইউনিয়নের ২ জন,বোয়ালিয়া ও বাঙ্গাবাড়ী ইউনিয়ন ১জন করেসহ ২ জন এনজিওকর্মী রয়েছে। ৬ জনের বয়স পর্যায়ক্রমে ১৭ বছর থেকে ৩৫ বছর পর্যন্ত। তাদের সকলকেই চিকিৎসা দিয়ে বাড়ীতে আইসোলশনে থাকতে বলা হয়েছে।
তিনি আরও বলেন, গত ১৭ এপ্রিল থেকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে র‌্যাপিড অ্যান্টিজেন টেস্ট ও পিসিআর ল্যাবে মোট ২১৪ জন করোনা রোগী শনাক্ত হয়েছে। তাদের মধ্যে সুস্থ হয়েছেন ২৬ জন, চিকিৎসা নিচ্ছে ১৮৫ জন ও ৩ জন মৃত্যু বরণ করেন।

চাঁপাইনবাবগঞ্জে বজ্রপাতে ৩ জনের মৃত্যু

চাঁপাইনবাবগঞ্জ প্রতিনিধি

চাঁপাইনবাবগঞ্জের সদর ও নাচোল উপজেলায় পৃথক স্থানে আম পাড়তে ও কুড়াতে গিয়ে বজ্রপাতে মেশব্হুল হক মিশু, আব্দুর রহমান এবং ফারজানা নিহত প্রতিনিধিঃ
চাঁপাইনবাবগঞ্জে পৃথক স্হানে বজ্রপাতে ৩ জনের মৃত্যু ও একজন গুরতর আহত হয়েছে। বৃহস্পতিবার (১০ জুন) বিকেলে সদর উপজেলার ঝিলিম ইউনিয়নের বাবুইড্যাং ফিল্টি পাড়া ও নাচোল উপজেলার ফতেপুর ইউনিয়নের আলিশাপুরে এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। বিষয় টি নিশ্চিত করেছেন ঝিলিম ইউনিয়নের চেয়ারম্যান আশরাফুল ইসলাম (মতু) ও নাচোল থানার ওসি।

নিহতরা হলেন; চাঁপাইনবাবগঞ্জ পৌর এলাকার হাটপাড়া (বটতলা) গ্রামের মৃত নজরুল ইসলামের ছোলে মেসবাউল হক মিশু (৪০), শংকরবাটি এলাকার বটতলা গ্রামের মৃত দাউদ আলীর ছেলে আব্দুর রহমান (৫৫), আব্দুর রহমানের মেয়ে ফারজানা (১২, ও গুরতর আহত ব্যক্তির নাম তরিকুল ইসলাম।

প্রত্যক্ষদর্শী শাহজাহান জানান; নিহতরা দুজন ফিল্টি পাড়ায় একটি আমের বাগান কিনে বৃহষ্পতিবার বিকেলে আম পাড়তে গাছে ওঠে। আম পাড়ার সময় বজ্রপাতে হলে ঘটনাস্থলে মেসবাউল ও মিশুর মৃত্যু হয়। এ সময় একই স্থানে থাকা তরিকুল গুরতর আহত হলে স্হানীয়রা তাকে উদ্ধার করে আধুনিক সদর হাসপাতালে চিকিৎসার জন্য নিয়ে যায়।

এদিকে ঝিলিম ইউনিয়নের চেয়ারম্যান আশরাফুল ইসলাম (মতু) জানান; আম পাড়ার সময় তারা সেখানে ৪ জন ছিলেন। ২ জনের মৃত্যু ও একজন গুরতর আহত হয়েছে। আর বাকি আরেকজন সুস্থ আছেন। হঠাৎ করেই দমকা হাওয়া হতে থাকে এ সময় বজ্রপাতের আঘাতে তাদের মৃত্যু হয়।
অপরদিকে নিহতদের পরিবারকে চাঁপাইনবাবগঞ্জ সদর উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে আর্থিক সহায়তা প্রদান করা হবে বলে জানান পিআইও মওদুদ আলম খাঁ।

এদিকে নাচোল থানার ওসি সেলিম রেজা জানান; ঝড়ের সময় বাড়ির পাশের বাগানে আম কুড়াতে গিয়ে ফারজানা নামক এক মেয়ের মৃত্যু হয়েছে।

যে নম্বরে কল করলেই করোনা রোগীর জন্য মিলবে ফ্রী অক্সিজেন

চাঁপাইনবাবগঞ্জ প্রতিনিধি-ঃ

করোনা আক্রান্তদের জন্য ফ্রী অক্সিজেন সেবা কার্যক্রমের উদ্বোধন করা হয়েছে আজ।
বৃহস্পতিবার(১০জুন) দুপুরে ১২ টায় সদর হাসপাতাল রোডে ম্যাক্স হসপিটালে স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন স্বাস্থ্য সেবাগ্রুপের আয়োজনে ও জেলা আওয়ামী লীগের সহ সভাপতি ডাঃ গোলাম রাব্বানীর তত্বাবধানে ফ্রী অক্সিজেন সেবার উদ্বোধন করা হয়।
এ সেবার উদ্বোধন করেন চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলা আওয়ামী লীগের সহ সভাপতি ও জেলা বিএমএ এর সাধারণ সম্পাদক ডাঃ গোলাম রাব্বানী। এখন থেকে চাঁপাইনবাবগঞ্জ পৌর এলাকার যে কোন করোনা আক্রান্ত রোগীর অক্সিজেন প্রয়োজন হলে স্বাস্থ্য সেবা গ্রুপের হটলাইন নাম্বারে যোগাযোগ করলে দ্রুত বাসয় পৌঁছে যাবে অক্সিজেন( প্রেসক্রিপশন সাপেক্ষে)।
দিদার, সুবর্ন ও জুয়েলের নেতৃত্বে ১২ সদস্যের একটি স্বেচ্ছাসেবী দল ২৪ ঘন্টা এ সেবা প্রদান করবে।

এ প্রসঙ্গে এটির উদ্যোক্তা ডাঃ গোলাম রাব্বানী জানান,করোনার দ্বিতীয় ঢেউয়ে চাঁপাইনবাবগঞ্জের সংক্রমণে রোগী বেড়ে যাওয়া এবং সদর হাসপাতালের করোনা ইউনিটে বেডের সংকটের কারনে অনেকে ভর্তি হতে না পেরে বাসায় চিকিৎসা নিচ্ছেন এবং সবচেয়ে প্রয়োজনীয় অক্সিজেনের সংকটে রয়েছেন এটা উপলব্ধি করে দেশে ও বিদেশে প্রবাসী অনেকের সাথে সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যমে ও ব্যাক্তিগত ভাবে মানবিক সহায়তার কথা বলেছি এবং ইউরোপ সহ দেশের বিভিন্ন এলাকা থেকে অনেকে সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দিয়েছেন। তাদের সহযোগিতা নিয়ে আজ থেকে স্বেচ্ছাসেবী গ্রুপের স্বেচ্ছাশ্রমের মাধ্যমে অক্সিজেন পৌর এলাকার করোনা আক্রান্তদের মাঝে সরবরাহের উদ্বোধন করা হয় এবং দেশে ও প্রবাসের সকল বৃত্তবানদের করোনা সংকটে এগিয়ে আসার আহবান জানান তিনি।
এ সময় আরো উপস্থিত ছিলেন ডাঃ মোঃ আব্দুল্লাহ,৮ নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক মেহদুল ইসলাম,১০ নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সাবেক সভাপতি আঃ হান্নান সহ অন্যান্যরা।

হটলাইন নাম্বার জুয়েলঃ-০১৭২৩৯৬৮১৪৩
সুবর্নঃ- ০১৭৪৬৩৩৭৫০১
সাব্বিরঃ- ০১৭৬৪০০৫৩৬০
—————————————

নাচোলে সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত-১

নাচোল (চাঁপাইনবাবগঞ্জ) প্রতিনিধিঃ- চাঁপাইনবাবগঞ্জের নাচোলে সড়ক দুর্ঘটনায় এক অজ্ঞাত ব্যক্তি নিহত হয়েছে। তাঁর বয়স আনুমানিক ৫০ বছর। তার পরনে ছিল কালো ফুল হাতা গেঞ্জি ও সাদা প্যান্ট।
পুলিশ ও এলাকাবাসী সুত্রে জানাগেছে,বৃহস্পতিবার আনুমানিক সকাল ৯ টার দিকে নাচোল টু আমনুরা গামী একটি আম বোঝাই ট্রাক জোনাকিপাড়া নামক স্থানে অজ্ঞাত ঐ ব্যক্তিকে ধাক্কা দিলে রাস্তায় ছিটকে পড়ে যায় নিহত ব্যক্তি। পরে স্থানীয়রা তাঁকে নাচোল উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে। সকাল ১০টায় চিকিৎসারত অবস্থায় নাচোল উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে মৃত্যু হয় অজ্ঞাত ব্যক্তির। ঘাতক ট্রাকটিকে আটকের চেষ্টা অব্যাহত রেখেছে নাচোল থানা পুলিশ।

এ বিষয়ে নাচোল থানার ওসি সেলিম রেজার সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি জানান, আমি সকাল ১০টার দিকে স্থানীয় লোকজনের মাধ্যমে জানতে পেরেছি,একটি ট্রাক জোনাকি পাড়া নামক স্থানে অজ্ঞাত ঐ ব্যক্তিকে ধাক্কা দিলে স্থানীয়রা তাঁকে নাচোল মেডিকেলে ভর্তি করে। চিকিৎসারত অবস্থায় মারা যায় সে। নিহত ব্যক্তির পরিচয় জানার চেষ্টা অব্যাহত রয়েছে।

মিয়ানমারে সামরিক বিমান বিধ্বস্ত হয়ে নিহত ১২

ডেস্ক
মিয়ানমারের একটি সামরিক বিমান বিধ্বস্ত হয়ে ১২ জন নিহত হয়েছে। এ ঘটনায় আহত হয়েছে আরো চার জন। তবে কি কারণে এই দুর্ঘটনা ঘটেছে তা তাৎক্ষণিক জানা যায়নি। রুশ সংবাদমাধ্যম স্পুটনিক এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানিয়েছে।

বৃহস্পতিবার স্থানীয় সংবাদমাধ্যমের খবরে বলা হয়েছে, সামরিক বিমানটি দেশটির মান্দালয় অঞ্চলের একটি পাহাড়ি এলাকায় বিধ্বস্ত হয়।

রয়টার্সের খবরে বলা হয়েছে, বিমানটিতে ঊর্ধ্বতন সামরিক কর্মকর্তারা ছিলেন। উদ্ধারকারী দল ঘটনাস্থলে পৌঁছেছে। তবে এখন পর্যন্ত বিস্তারিত তথ্য পাওয়া যায়নি।

Whip Shamsul hired people to foil freedom fighters’ programme!

After insulting a freedom fighter, Jatiya Sangsad Whip Shamsul Hoque Chowdhury and his son Nazmul Hoque Chowdhury Sharun have reportedly hired people to foil a prescheduled programme organised to protest their misdeeds.

Not only that, the whip family also organised a traditional feast ‘Mezban’ for the hired people at a community center in Patiya, said sources.

The followers of whip started gathering the hired people including children and teenagers in the city’s Jamal Khan intersection through buses and microbuses.

Sources informed that the whip family arranged several buses from each union to bring the people in a bid to foil the programme organised by the freedom fighters, their family members and people from all walks of life.

Haidgaon Union Awami League Convener Mahmudur Rahman Hafez, Joint convenor BM Jashim, UP Chairman Mohammad Selim, Councillor Gofran Rana and former Municipality Mayor Professor Md Harun coordinated the event and brought the people.

Some teenagers were seen holding placards and banners with the name and photos of Shamsul Hoque Chowdhury.

The teenagers said they had lunch at a community centre in Patiya and came to the programme with a ‘big brother.’

South district Chhatra League leader Abdullah Al Noman brought them to the city and everyone was paid Tk 1,000, they said.

Mentionable, freedom fighters, their family members and people from all walks of life under the banner of ‘Bir Muktijoddha Samman Sangrakkhan Parishad’ organised a human chain and rally in front of Chattogram Press Club on Wednesday afternoon to protest the threat to kill freedom fighter and senior Awami League (AL) leader Shamsuddin Ahmed by Whip Shamsul and his son Sharun.

But police didn’t allow them there as another organisation reportedly patronised by Shamsul and his family announced to hold programme at the same place.

Shamsul and his family misused police in this regard, alleged sources.

The organisation under the patronage of Shamsu held meeting blocking road near the Press Club later.

The Parishad leaders formed a human chain in front of Cheragi Pahar intersection. As they wanted to go to the Press Club police barred them.

Later, they held a rally and human chain in front of the house of Chattogram City Awami League President Mahtab Uddin Chowdhury and Wasa intersection.

The Parishad leaders alleged that though police barred the freedom fighters’ programme, they allowed the Shamsul’s men to hold rally some 100 yards off the Press Club.

Source: daily sun

India sees record 6,148 Covid-19 deaths in last 24 hours

India, in the last 24 hours, has reported 94,052 Covid-19 cases, and 6,148 deaths in the last 24 hours.

This is the highest number of deaths that the country has seen in a day since the start of the pandemic.

The jump in deaths come after Bihar revised its toll on Wednesday, adding 3,951 previously uncounted deaths to its tally.

Bharat Biotech on Wednesday said that the full data of phase III trials for Covaxin will be made public in July, ANI reported. The data will be first submitted to the Central Drugs Standard Control Organisation, followed by peer-reviewed journals with a timeline of three months for publication. Bharat Biotech told ANI once the final analysis of the phase III data is available, it would apply for a full licensure for Covaxin.

Bharat Biotech had earlier said that Covaxin has demonstrated overall interim clinical efficacy of 78 per cent, and 100 per cent efficacy against severe Covid-19 disease in phase III trials. The interim analysis was based on more than 87 symptomatic cases of Covid-19.

Meanwhile, Prime Minister Narendra Modi’s plan to provide free vaccines to states for all citizens over 18 years from June 21 is likely to cost the exchequer an additional Rs 15,000 crore compared with the Budget allocation of Rs 35,000 crore. “It is too early to give a correct estimate with multiple suppliers and different prices. But the rough estimate is total expenditure for vaccines for this year may be Rs 45,000-50,000 crore. In the Budget, we had provided Rs 35,000 crore, and of this, the government has paid out about Rs 5,000 crore,” a senior government official who did not wish to be named told The Indian Express.

রাজশাহী মেডিকেলে কোভিডে চাঁপাইনবাবগঞ্জের ২ জন সহ ১২ জনের মৃত্যু

রাজশাহী: রাজশাহী মেডিক্যাল কলেজ (রামেক) হাসপাতালে গত ২৪ ঘণ্টায় করোনা আক্রান্ত এবং করোনা উপসর্গ নিয়ে আরও ১২ জনের মৃত্যু হয়েছে। এর আগের ২৪ ঘণ্টায় ৮ জনের মৃত্যু হয়।এ নিয়ে গেল এক সপ্তাহে মৃতের সংখ্যা ৯২ জনে দাঁড়ালো। এরমধ্যে ৭২ জনই করোনার ‘হটস্পট’ হয়ে ওঠা চাঁপাইনবাবগঞ্জ ও রাজশাহী জেলার। ৭২ জনের মধ্যে ৪২ জনই চাঁপাইনবাবগঞ্জের বাসিন্দা এবং বাকি ৩০ জন রাজশাহীর।

বৃহস্পতিবার (১০ জুন) রামেক হাসপাতালের উপ-পরিচালক ডা. সাইফুল ফেরদৌস বাংলানিউজকে জানান, গেল ২৪ ঘণ্টায় মৃত ১২ জনের মধ্যে সাতজন করোনা পজিটিভ ছিলেন। অন্য পাঁচজন মারা গেছেন উপসর্গ নিয়ে। করোনা পজিটিভ হয়ে মারা যাওয়া ৭ জন রোগীর মধ্যে পাঁচজনই রাজশাহীর আর দু’জন চাঁপাইনবাবগঞ্জের।

এদিকে, বৃহস্পতিবার সকাল ৮টা পর্যন্ত হাসপাতালের করোনা ইউনিটে মোট ২৯০ জন রোগী ভর্তি আছেন। তবে বেড রয়েছে ২৭১টি। গত ২৪ ঘণ্টায় ৪২ জন নতুন রোগী ভর্তি হয়েছেন। এর মধ্যে রাজশাহীর ১৮, চাঁপাইনাববগঞ্জের ১৬, নওগাঁর ৭ জন ও নাটোরের ১ জন রোগী রয়েছেন। হাসপাতালের আইসিইউতে রয়েছেন ১৮ জন।

নওগাঁ – রাজশাহী সহ একসঙ্গে ৫০ মডেল মসজিদ উদ্বোধন করলেন প্রধানমন্ত্রী

ঢাকা: ইসলামের প্রচার ও প্রসার এবং মসজিদকে জ্ঞান চর্চার কেন্দ্র হিসেবে গড়ে তুলতে প্রতিটি জেলা ও উপজেলায় একটি করে মোট ৫৬০টি মডেল মসজিদ ও ইসলামিক সাংস্কৃতিক কেন্দ্র নির্মাণ করছে সরকার। এই প্রকল্পের আওতায় প্রথম ধাপে নির্মিত ৫০টি মডেল মসজিদ ও সাংস্কৃতিক কেন্দ্রের উদ্বোধন করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।একসঙ্গে এতগুলো মসজিদ নির্মাণের ঘটনা বিশ্বে বিরল বলে জানিয়ে জানিয়েছেন প্রকল্প সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা।

বৃহস্পতিবার (১০ জুন) গণভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সে একসঙ্গে প্রথম পর্যায়ে নির্মিত এসব মডেল মসজিদ ও সাংস্কৃতিক কেন্দ্র উদ্বোধন করেন প্রধানমন্ত্রী।

শুধু নামাজ আদায় নয়, মসজিদ হবে গবেষণা ইসলামি সংস্কৃতি ও জ্ঞানচর্চা কেন্দ্র। হারিয়ে যাওয়া ইসলামের চিরায়ত এই ঐতিহ্যকে ধারণ করে দৃষ্টিনন্দন এসব মডেল মসজিদ ও ইসলামিক সাংস্কৃতিক কেন্দ্র নির্মাণ করছে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বাধীন সরকার।

প্রথম ধাপে নির্মিত মডেল মসজিদগুলো উদ্বোধন করে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, আজকে আমি সত্যি খুব আনন্দিত। মডেল মসজিদগুলো থেকে ইসলামের সঠিক মর্মবাণী প্রচার হবে, ইসলামের সঠিক প্রচার হবে। ইসলামের সঠিক জ্ঞানচর্চা হবে। জ্ঞান বিজ্ঞান চর্চায় মুসলমানরা আবারও এগিয়ে যাবে।

রাজধানী ওসমানী স্মৃতি মিলনায়ন থেকে ভিডিও কনফারেন্সে গণভবনের সঙ্গে সংযুক্ত হয়ে ধর্মপ্রতিমন্ত্রী ফরিদুল হক খান বলেন, মুসলিম বিশ্বের এই প্রথম কোনো দেশের সরকার প্রধান একসঙ্গে ৫৬০টি মসজিদ নির্মাণ করছে। এর আগে কোনো মুসলিম শাসক বা সরকার প্রধান এক সঙ্গে এতগুলো মসজিদ নির্মাণ করেননি। এটি একটি অনন্য এবং যুগান্তকারী ঘটনা আমরা বলবো।

একসঙ্গে এতগুলো মসজিদ নির্মাণের যুগান্তকারী উদ্যোগ নেওয়ার জন্য ধর্ম প্রতিমন্ত্রী দেশের পক্ষ থেকে থেকে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে ধন্যবাদ জানান।

২০১৪ সালের নির্বাচনী ইশতেহারে প্রতিটি জেলা ও উপজেলায় একটি করে উন্নত মসজিদ নির্মাণের প্রতিশ্রুতি দেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। নির্বাচনী প্রতিশ্রুতি পূরণে নিজস্ব অর্থায়নে ৮ হাজার ৭২২ কোটি টাকা ব্যয়ে মডেল মসজিদ ও সংস্কৃতি কেন্দ্রগুলো নির্মাণ করছে সরকার।

আধুনিক সুযোগ-সুবিধা সম্বলিত সুবিশাল এসব মডেল মসজিদ ও ইসলামিক সাংস্কৃতিক কমপ্লেক্সে নারী ও পুরুষদের পৃথক ওজু ও নামাজ আদায়ের সুবিধা, লাইব্রেরী, গবেষণা কেন্দ্র, ইসলামিক বই বিক্রয় কেন্দ্র, পবিত্র কুরআন হেফজ বিভাগ, শিশু শিক্ষা, অতিথিশালা, বিদেশি পর্যটকদের আবাসন, মৃতদেহ গোসলের ব্যবস্থা, হজ্জযাত্রীদের নিবন্ধন ও প্রশিক্ষণ, ইমামদের প্রশিক্ষণ, অটিজম কেন্দ্র, গণশিক্ষা কেন্দ্র, ইসলামী সংস্কৃতি কেন্দ্র থাকবে। এছাড়া ইমাম-মুয়াজ্জিনের আবাসনসহ সাংস্কৃতিক কেন্দ্রে কর্মকর্তা-কর্মচারীদের জন্য অফিসের ব্যবস্থা এবং গাড়ি পার্কিং সুবিধা রাখা হয়েছে।

মডেল মসজিদগুলোতে দ্বীনি দাওয়া কার্যক্রম ও ইসলামী সংস্কৃতি চর্চার পাশাপাশি মাদক, সন্ত্রাস, যৌতুক, নারীর প্রতি সহিংসতাসহ বিভিন্ন সামাজিক ব্যাধি রোধে সচেতনতা কার্যক্রম পরিচালনা করা হবে।

প্রকল্প পরিচালক ইঞ্জিনিয়ার মো. নজিবর রহমান জানান, মডেল মসজিদগুলো শুধু নামাজ পড়ার মধ্যে সীমাবদ্ধ থাকবে না। এখানে ইসলামি সংস্কৃতি চর্চার পাশাপাশি জ্ঞান অর্জন ও গবেষণা সুযোগ থাকবে, প্রশিক্ষণের ব্যবস্থা থাকবে।

তিনি আরও জানান, এটাই হচ্ছে বিশ্বে প্রথম কোনো সরকারের একই সময়ে একসঙ্গে এত বিপুলসংখ্যক মসজিদ নির্মাণের ঘটনা। যা বিশ্বে বিরল।

৫৬০টি মডেল মসজিদে সারাদেশে প্রতিদিন ৪ লাখ ৯৪ হাজার ২০০ জন পুরুষ ও ৩১ হাজার ৪০০ জন নারী একসঙ্গে নামাজ আদায় করতে পারবেন।

লাইব্রেরি সুবিধার আওতায় প্রতিদিন ৩৪ হাজার পাঠক এক সঙ্গে কোরআন ও ইসলামিক বই পড়তে পারবেন। ইসলামিক বিষয়ে গবেষণার সুযোগ থাকবে ৬ হাজার ৮০০ জনের। ৫৬ হাজার মুসল্লি সবসময় দোয়া, মোনাজাতসহ তসবিহ পড়তে পারবেন।

মসজিদগুলো থেকে প্রতি বছর ১৪ হাজার হাফেজ তৈরির ব্যবস্থা থাকবে। আরও থাকবে ইসলামিক নানা বিষয়সহ প্রতিবছর ১ লাখ ৬৮ হাজার শিশুর প্রাথমিক শিক্ষার ব্যবস্থা। ২ হাজার ২৪০ জন দেশি-বিদেশি অতিথির আবাসন ব্যবস্থাও গড়ে তোলা হবে প্রকল্পের আওতায়। কেন্দ্রগুলোতে পবিত্র হজ পালনের জন্য ডিজিটাল নিবন্ধনের ব্যবস্থা থাকবে।

৪০ শতাংশ জায়গার উপর তিন ক্যাটাগরিতে মসজিদগুলো নির্মিত হচ্ছে। জেলা পর্যায়ে ৪ তলা, উপজেলার জন্য ৩ তলা এবং উপকূলীয় এলাকায় ৪ তলা মডেল মসজিদ ও ইসলামিক সংস্কৃতি কেন্দ্র নির্মাণ করা হচ্ছে।

‘এ’ ক্যাটাগরিতে ৬৪টি জেলা শহরে এবং সিটি করপোরেশন এলাকায় ৬৯টি চারতলা বিশিষ্ট মডেল মসজিদ নির্মিত হচ্ছে। এই মসজিদগুলোর প্রতি ফ্লোরের আয়তন ২ হাজার ৩৬০ দশমিক ০৯ বর্গমিটার।

‘বি’ ক্যাটাগরিতে উপজেলা পর্যায়ে ৪৭৫টি মডেল মসজিদ নির্মাণ করা হচ্ছে। এগুলোর প্রতি ফ্লোরের আয়তন ১ হাজার ৬৮০ দশমিক ১৪ বর্গমিটার।

‘সি’ ক্যাটাগরিতে উপকূলীয় এলাকায় ১৬টি মসজিদ নির্মাণ করা হচ্ছে। এগুলোর প্রতি ফ্লোরের আয়তন ২ হাজার ৫২ দশমিক ১২ বর্গমিটার। উপকূলীয় এলাকার মসজিদগুলোতে আশ্রয়কেন্দ্র হিসেবে নিচ তলা ফাঁকা থাকবে।

একেকটি মসজিদ নির্মাণ করতে ব্যয় হচ্ছে জেলা শহর ও সিটি করপোরেশন এলাকায় ১৫ কোটি ৬১ লাখ ৮১ হাজার টাকা; উপজেলা পর্যায়ে ১৩ কোটি ৪১ লাখ ৮০ হাজার টাকা এবং উপকূলীয় এলাকায় ১৩ কোটি ৬০ লাখ ৮২ হাজার টাকা।

জেলা সদর ও সিটি করপোরেশন এলাকায় নির্মাণাধীন মসজিদগুলোতে একসঙ্গে ১২ শ মুসল্লি নামাজ আদায় করতে পারবেন। অপরপক্ষে উপজেলা ও উপকূলীয় এলাকার মডেল মসজিদগুলোতে একসঙ্গে ৯ শ মুসল্লির নামাজ আদায়ের ব্যবস্থা থাকবে।

বৃহস্পতিবার (১০ জুন) যে ৫০টি মডেল মসজিদ ও সাংস্কৃতিক কেন্দ্র উদ্বোধন করা হয় সেগুলো হলো—ঢাকার সাভার, ফরিদপুরে মধুখালী, সালথায়, কিশোরগঞ্জের পাকুন্দিয়া ও কুলিয়ারচর, মানিকগঞ্জের শিবালয়, রাজবাড়ী সদর, শরীয়তপুর সদর ও গোসাইরহাট, বগুড়ার সারিয়াকান্দি, শেরপুর ও কাহালু, নওগাঁর সাপাহার ও পোরশা, সিরাজগঞ্জ জেলা সদর ও উপজেলা সদর, পাবনার চাটমোহর, রাজশাহীর গোদাগাড়ী ও পবা, দিনাজপুরের খানসামা ও বিরল, লালমনিরহাটের পাটগ্রাম, পঞ্চগড়ের দেবীগঞ্জ ও উপজেলা সদর, রংপুর জেলা সদর, মিঠাপুকুর, উপজেলা সদর, পীরগঞ্জ, বদরগঞ্জ, ঠাকুরগাঁওয়ের হরিপুর, নোয়াখালীর সুবর্ণচর, ময়মনসিংহের গফরগাঁও ও তারাকান্দা, চট্টগ্রাম জেলা সদর, লোহাগড়া, মিরসরাই ও সন্দ্বীপ, জামালপুরের ইসলামপুর ও উপজেলা সদর উপজেলা, ব্রাহ্মণবাড়িয়ার নবীনগর ও বিজয়নগরে, ভোলা সদর, সিলেটের দক্ষিণ সুরমা, কুমিল্লার দাউদকান্দি, খাগড়াছড়ির পানছড়ি, কুষ্টিয়া সদর, খুলনার জেলা সদর, চাঁদপুরের কচুয়া, ঝালকাঠির রাজাপুর এবং চুয়াডাঙ্গা সদর।

উদ্বোধন শেষে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা গণভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সে খুলনা, সিলেট এবং রংপুরে সংযুক্ত হয়ে মডেল মসজিদের ইমাম, স্থানীয় জনপ্রতিনিধিসহ মুসল্লিদের সঙ্গে মতবিনিময় করেন।