সর্বশেষ সংবাদ বেতন বাড়ছে জাতীয় দলের ক্রিকেটারদের নন্দীগ্রামে হেরে হাইকোর্টে মমতা, শুনানি আজ চীনের সিনোফার্মের টিকা চট্টগ্রামে পৌঁছেছে অবশেষে ফিরে এসেছেন আবু ত্ব-হা করোনা ভাইরাস থেকে বাঁচতে আর্জেন্টিনা সমর্থকদের নিয়ে মেয়র মনিরুলের মাস্ক ও হ্যান্ড স্যানিটাইজার বিতরণ চাঁপাইনবাবগঞ্জে ফের গুচ্ছগ্রাম উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী মদ-ক্লাব-জুয়া নিয়ে উত্তপ্ত সংসদ দ্বিতীয় পর্যায়ে ঘর পাচ্ছে আরও ৫৩ হাজার পরিবার চাঁপাইনবাবগঞ্জে কঠোর বিধিনিষেধের মেয়াদ বাড়ল ৭ দিন সংসারের বোঝা কমাতে রাজমিস্ত্রীর কাজে গিয়ে প্রাণ হারালো স্কুলছাত্র

গোমস্তাপুরে র‌্যাপিড অ্যান্টিজেন টেস্টঃ পুলিশ সদস্যসহ ১৩ জনের করোনা শনাক্ত

গোমস্তাপুর (চাঁপাইনবাবগঞ্জ) প্রতিনিধি ঃ চাঁপাইনবাবগঞ্জের গোমস্তাপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নতুন করে ৪ পুলিশ সদস্যসহ ১৩ জনের দেহে করোনা শনাক্ত হয়েছে। শনিবার ৬০ জনের র‌্যাপিড অ্যান্টিজেন টেস্টে ১৩জন শনাক্ত হয়। এদের মধে ৬জন নারী ও ৭ জন পুরুষ রয়েছে। তাদের বয়স ২৫ থেকে ৫৫ বছর পর্যন্ত। এ নিয়ে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে করোনার দ্বিতীয় ঢেউয়ে মোট ১৮৬ জনের দেহে করোনা শনাক্ত করা হয়েছে ।
গোমস্তাপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের করোনা মনিটরিং কর্মকর্তা ডা. হাসান আলি বলেন, বৃহস্পতিবার গোমস্তাপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ৬০ জন ব্যক্তির র‌্যাপিড অ্যান্টিজেন টেস্ট করা হয়। টেস্টে ১৩ জনের রিপোর্ট পজিটিভ পাওয়া যায়। এদের মধ্যে রহনপুর পৌর এলাকার ২ জন, পার্বতীপুর ইউনিয়নের ৩ জন,বোয়াললিয়া ইউনিয়নের ২জন, রহনপুর ও বাঙ্গাবাড়ি ইউনিয়নের ১জন করে, গোমস্তাপুরে থানার নারী পুলিশ সহ ৪জন রয়েছে । শনাক্তদের বয়স ২৫ থেকে ৫৫ বছর পর্যন্ত। তাদের সকলকেই চিকিৎসা দিয়ে বাড়ীতে আইসোলশনে থাকতে বলা হয়েছে। তিনি আরও বলেন, গত ১৭ এপ্রিল থেকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে র‌্যাপিড অ্যান্টিজেন টেস্ট ও পিসিআর ল্যাবে মোট ১৮৬ জন করোনা রোগী শনাক্ত হয়েছে। তাদের মধ্যে সুস্থ হয়েছেন ২৬ জন, চিকিৎসা নিচ্ছে ১৫৮ জন ও মৃত্যু বরণ করেন ২ জন।

ভোলাহাট স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে অক্সিজেন সিলিন্ডার প্রদান

ভোলাহাট( চাপাইনবাবগঞ্জ) প্রতিনিধি ঃ

করোনা মহামারিতে অক্সিজেন সংকট দূর করতে ভোলাহাট উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ১০টি অক্সিজেন সিলিন্ডার প্রদান করছে একটি স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন।। শনিবার (৫ জুন) ডাইসিন গ্রুপ ও ভোলাহাট সাইফুন্নেসা মকবুল দাতব্য চিকিৎসালয়ের চেয়ারম্যান ও প্রতিষ্ঠাতা মোহাম্মদ মিজানুর রহমানের পক্ষ থেকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ১০টি অক্সিজেন সিলিন্ডার প্রদান করা হয়।
উপজেলা স্বাস্থ্য ও পঃ পঃ কর্মকর্তা ডাঃ মোঃ আব্দুল হামিদ বলেন, উপজেলার রোগীদের নিরবিচ্ছিন্নভাবে অক্সিজেন দেয়া সম্ভব হবে। তিনি বলেন, স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ১২ টি অক্সিজেন সিলিন্ডার ছিলো। ডাইসিন গ্রুপের পক্ষ থেকে আরো ১০টি অক্সিজেন সিস্টেম চালুর ফলে মানুষকে আর অক্সিজেন সমস্যায় পড়তে হবে না। করোনায় আক্রান্ত রোগীদের চিকিৎসা দিতে অক্সিজেন সংকট লাঘবে এগিয়ে আসার জন্য সংগঠনটির প্রতি কৃতজ্ঞতা ও ধন্যবাদ জানান তিনি।
আর সংগঠনটির জিএম আবুল কালাম আজাদ জানান, সাইফুন নেসা দাতব্য চিকিৎসালয়েও ১০ টি ও চাঁপাইনবাবগঞ্জ সদর হাসপাতালে ১০টি অক্সিজেন সিনেন্ডার দেয়া হয়েছে । পাশাপাশি সাইফুন নেসা দাতব্য চিকিৎসালয়ে করোনা আক্রান্ত রোগীদের জন্য বিনামূল্যে সব ধরণের চিকিৎসা সেবা প্রদান করা হবে।

চাঁপাইনবাবগঞ্জে কঠোর লকডাউনের ১২তম দিনে সংক্রামনের হার ৫৫ ভাগ।

চাপাইনবাবগঞ্জ প্রতিনিধি ঃ
করোনা সংক্রমন বৃদ্ধি প্রতিরোধে চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলায় কঠোর লকডাউনের ১২তম দিন শনিবার প্রশাসন লকডাউন কার্যকরে মাঠে তৎপর ছিল। ১৫ টি ভ্রাম্যমান দল জেলার বিভিন্ন এলাকায় লকডাউন না মানায় ৩৮ জনকে জরিমানা করেছে।তবে এখনও সংক্রমনের হার উদ্ধমুখী। জেলা শহরের বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ মোড়ে এবং জেলার বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ স্থানে প্রশাসনের তৎপরতা দেখা গেছে। দেশের দ্বিতীয় বৃহত্তম স্থলবন্দর সোনামসজিদ স্থলবন্দরে কার্যক্রম স্বাভাবিক গতিতেই চলছে। তবে বন্দর ও বন্দরের বাইরে যেন স্বাস্থ্য বিধি কঠোরভাবে মানা হয় সেজন্য সোনামসজিদ এলাকায় একটি বিশেষ দল কাজ করছে।
এদিকে সিভিল সার্জন ডা. জাহিদ নজরুল চৌধুরী শনিবার সকালে জানান, চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলায় বর্তমানে করোনা রোগী চিকিৎসাধিন রয়েছে ১১৬৪ জন। জেলায় এ পর্যন্ত মোট ২৩৪৭ জনের দেহে ভাইরাস শনাক্ত হয়েছে। গত ২৪ ঘন্টায় ৯ জন সহ মোট মারা গেছে ৫৪ জন। গত ২৪ ঘন্টায় জেলায় করোনা আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা ১০৭ জন। ভারত থেকে সোনামসজিদ স্থলবন্দর দিয়ে দেশে প্রবেশ করেছে মোট ৮৮জন। এর মধ্যে ২৪ জনকে কোয়ারেন্টাইন থেকে অবমুক্ত করা হয়েছে। জেলায় সংক্রামনের হার ৫৫.১৫ ভাগ।

ফেসবুক আরো কঠোর হচ্ছে : ২ বছর নিষিদ্ধ ট্রাম্প

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
বিশ্বের সবচেয়ে জনপ্রিয় সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুক সাবেক মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পকে ২০২৩ সাল পর্যন্ত নিষিদ্ধ ঘোষণা করেছে বলে প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে কাতার ভিত্তিক সংবাদ মাধ্যম আল-জাজিরা।

প্রতিবেদনে বলা হয়, এখন থেকে প্রতারণা বা হয়রানিমূলক পোস্টের জন্য প্রভাবশালী রাজনীতিবিদদের আর ছাড় দেবে না প্রতিষ্ঠানটি। শুক্রবার এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন ফেসবুকের বৈশ্বিক সম্পর্ক বিভাগের ভাইস-প্রেসিডেন্ট নিক ক্লেগ।

এক বিবৃতিতে তিনি বলেন, আমরা বিশ্বাস করি, ডোনাল্ড ট্রাম্পের কর্মকাণ্ড আমাদের নীতিগুলোকে কঠোরভাবে লঙ্ঘন করেছে, যা নতুন প্রোটোকলের আওতায় সর্বোচ্চ শাস্তিযোগ্য।

ফেসবুকের এ কর্মকর্তা বলেন, আমরা দুই বছরের জন্য তার (ট্রাম্প) অ্যাকাউন্ট স্থগিত করছি, যা চলতি বছরের ৭ জানুয়ারি প্রাথমিকভাবে স্থগিতের তারিখ থেকে কার্যকর হয়েছে।

গত জানুয়ারিতে যুক্তরাষ্ট্রে ক্যাপিটল দাঙ্গার পক্ষে উস্কানিমূলক একাধিক পোস্ট দেয়ার জেরে ট্রাম্পের ফেসবুক ও ইনস্টাগ্রাম অ্যাকাউন্ট বন্ধ করে দেয়া হয়। তবে গত মাসে ফেসবুক গঠিত একটি পর্যবেক্ষক বোর্ড ট্রাম্পের অ্যাকাউন্ট অনির্দিষ্টকালের জন্য স্থগিত করার সমালোচনা করে। তারা সাবেক প্রেসিডেন্টের আকাউন্ট স্থগিত করাকে সমর্থন করলেও যে প্রক্রিয়ায় তা হয়েছে, সেটি সঠিক নয় বলে জানায়।

এ নিয়ে ছয় মাসের মধ্যে অন্য ব্যবহারকারীদের ওপর প্রয়োগ করা নীতিগুলোর সঙ্গে সামঞ্জস্যপূর্ণ একটি আনুপাতিক প্রতিক্রিয়া নির্ধারণ এবং ন্যায়সঙ্গত ব্যবস্থা নিতে ফেসবুককে বিষয়টি পর্যালোচনার আহ্বান জানায় বোর্ড।

ফেসবুক আরো কঠোর হচ্ছে

এদিকে রাজনীতিবিদদের যে কোনো পোস্টের বিষয়ে কঠোর হচ্ছে সোশ্যাল মিডিয়ার জনপ্রিয় মাধ্যম ফেসবুক। ফেসবুক ও টুইটার এতদিন রাজনীতিবিদদের পোস্ট সেন্সর না করার পক্ষে অবস্থান নিয়েছিল। তবে এখন থেকে আর সেই সুবিধা পাবেন না তারা।

বৃহস্পতিবার যুক্তরাষ্ট্রের প্রযুক্তিভিত্তিক সংবাদ মাধ্যম দ্য ভার্জের প্রতিবেদনের বরাত দিয়ে রয়টার্স এ তথ্য জানিয়েছে।

জনপ্রিয় এই সোশ্যাল মিডিয়া বিশ্বনেতা এবং রাজনীতিবিদদের মিথ্যা তথ্য ছড়ানোর সুযোগ করে বারবারই আলোচনায়। গত মার্কিন নির্বাচনে সাবেক প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের ফেসবুকে পোস্ট নিয়ে তুলকালাম হয়।

ফেইসবুকের প্রধান নির্বাহী মার্ক জাকারবার্গ দীর্ঘ দিন ধরেই বলে আসছেন, রাজনীতিকদের বক্তব্যে নজরদারি চালানো উচিত না।

জো বাইডেনকে প্রেসিডেন্ট হিসেবে ঘোষণা ঠেকাতে তিনি ফেসবুকে একের পর এক পোস্ট করেন। তার পোস্টে উজ্জীবিত হয়ে অনুসারীয়া গত ৬ জানুয়ারি যুক্তরাষ্ট্রের ক্যাপিটল হিলে হামলা চালায়। এরপর ফেসবুক ও ইনস্টাগ্রাম থেকে ট্রাম্পকে ‘অনির্দিষ্টকালের’ জন্য নিষিদ্ধ করা হয়। তবে ঘটনার গুরুত্ব বিচারে স্বাধীন পর্যালোচনার জন্য ওভারসাইট বোর্ডের কাছে আবেদন করে ফেসবুক। পুনঃপর্যালোচনা শেষে ফেসবুকের আগের সিদ্ধান্তের পক্ষেই রায় দেয় সেই কমিটি।

১৩ জুন আসছে সিনোফার্মের ৬ লাখ টিকা

প্রথম দফায় সিনোফার্মের ৫ লাখ ডোজ টিকা উপহার দেয়ার পর দ্বিতীয় দফায় আরো ৬ লাখ ডোজ টিকা উপহার দেবে চীন। আগামী ১৩ জুন এ টিকা বাংলাদেশে আসবে।

শনিবার ঢাকার চীনা দূতাবাসের ডেপুটি চিফ অব মিশন হুয়ালং ইয়ান গণমাধ্যমকে এ তথ্য নিশ্চিত করে বলেন, আগামী ১৩ জুন বাংলাদেশে আরো ৬ লাখ ডোজ টিকা দেয়ার প্রস্তুতি নিয়েছে চীন সরকার।

চীনা দূতাবাস সূত্রে জানা গেছে, করোনাভাইরাস মহামারির পরিপ্রেক্ষিতে বাংলাদেশের পরিস্থিতি গভীরভাবে পর্যবেক্ষণ করছে চীন। বাংলাদেশ করোনার বিরুদ্ধে লড়াই চালিয়ে যাচ্ছে। বন্ধু দেশ হিসেবে বাংলাদেশের জনগণের পাশে দাঁড়িয়েছে চীন। সে কারণে প্রথম দফায় ৫ লাখ ডোজ টিকা উপহার দেয়ার পর আরো ৬ লাখ টিকা উপহার দিচ্ছে দেশটি।

উল্লেখ্য, গত ১২ মে চীন বাংলাদেশকে সিনোফার্মের ৫ লাখ ডোজ টিকা উপহার দেয়।

রামেকে চাঁপাইনবাবগঞ্জের পাঁচ সহ ৮ জনের মৃত্যু

রাজশাহী প্রতিনিধি
রাজশাহী মেডিকেল কলেজ (রামেক) হাসপাতালের করোনা ইউনিটে মৃত্যু থেমে নেই। গত ২৪ ঘণ্টায় এই হাসপাতালে আরো আটজন মারা গেছেন। এর মধ্যে চারজন মারা গেছেন করোনায়, অন্য চারজন উপসর্গ নিয়ে।

শনিবার রামেক হাসপাতালের উপপরিচালক ডা. সাইফুল ফেরদৌস গণমাধ্যমকে এসব তথ্য জানান।

তিনি বলেন, গত ২৪ ঘণ্টায় রামেক হাসপাতালের করোনা ওয়ার্ডে আটজন মারা গেছেন। এদের মধ্যে চারজনের মৃত্যু হয়েছে প্রাণঘাতী করোনা সংক্রমণে। বাকি চারজনের মৃত্যু হয়েছে করোনা সংক্রমণের উপসর্গ নিয়ে।

মৃত আটজনের পাঁচজনই করোনার নতুন হটস্পট চাঁপাইনবাবগঞ্জের বিভিন্ন এলাকার বাসিন্দা। অন্য তিনজন রাজশাহীর বাসিন্দা।

ডা. সাইফুল ফেরদৌস আরো জানান, গত ২৪ ঘণ্টায় রামেক হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন ১৬ জন। এর মধ্যে ১০ জন রাজশাহীর, পাঁচজন চাঁপাইনবাবগঞ্জের এবং একজন নওগাঁর বাসিন্দা।

পিরিয়ডের সময় নারীদের আলাদা কুঁড়েঘরে !

পিরিয়ডের সময় মহারাষ্ট্রে অনেক নারীদের এখনও আলাদা কুঁড়েঘরে পাঠিয়ে দেয়া হয়
ভারতের মহারাষ্ট্র রাজ্যে এখনও হাজার হাজার নারী ও কিশোরীকে তাদের মাসিকের সময় বাসা থেকে বের করে দেয়া হয়। মাসিকের দিনগুলোতে তাদের বসবাসের অযোগ্য কুঁড়েঘরে থাকতে বাধ্য করা হয়।
মুম্বাইয়ের একটি স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন এই নারীদের সাহায্য করতে ভেঙে পড়া কুঁড়েঘরের জায়গায় আধুনিক পাকা ঘর তোলার একটি প্রকল্প শুরু করেছে।
এই মাসিক কুঁড়েঘরগুলোকে স্থানীয়ভাবে বলা হয় “কুর্ম ঘর বা গাওকর।”

কিন্তু তাদের এই কাজ নিয়ে জোর সমালোচনা শুরু হয়েছে যে তারা এই অমানবিক প্রথা বিলোপের বদলে তাকে টিকিয়ে রাখারই উদ্যোগ নিয়েছে।

সমালোচকরা বলছেন বরং মাসিকের সময় মেয়েদের আলাদা করে রাখার জন্য তৈরি এই কুঁড়েঘরগুলো একেবারে ভেঙে ফেলাটাই সময়োপযোগী পদক্ষেপ হতো।
যদিও খেরওয়াদি সোসাল ওয়েলফেয়ার অ্যাসোসিয়েশন নামের সংগঠনটি বলছে এই নারীদের জন্য পাকা ঘর, টয়লেট, ঘুমানোর বিছানা, পানি ও বিদ্যুতের ব্যবস্থা করে দিয়ে তারা নারীদের নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে চাইছে। বলছে তারাও এই প্রথা বিলোপের পক্ষে।