সর্বশেষ সংবাদ বেতন বাড়ছে জাতীয় দলের ক্রিকেটারদের নন্দীগ্রামে হেরে হাইকোর্টে মমতা, শুনানি আজ চীনের সিনোফার্মের টিকা চট্টগ্রামে পৌঁছেছে অবশেষে ফিরে এসেছেন আবু ত্ব-হা করোনা ভাইরাস থেকে বাঁচতে আর্জেন্টিনা সমর্থকদের নিয়ে মেয়র মনিরুলের মাস্ক ও হ্যান্ড স্যানিটাইজার বিতরণ চাঁপাইনবাবগঞ্জে ফের গুচ্ছগ্রাম উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী মদ-ক্লাব-জুয়া নিয়ে উত্তপ্ত সংসদ দ্বিতীয় পর্যায়ে ঘর পাচ্ছে আরও ৫৩ হাজার পরিবার চাঁপাইনবাবগঞ্জে কঠোর বিধিনিষেধের মেয়াদ বাড়ল ৭ দিন সংসারের বোঝা কমাতে রাজমিস্ত্রীর কাজে গিয়ে প্রাণ হারালো স্কুলছাত্র

চৌডালাতে সরকারি বিধিনিষেধ না মানায় দুই দোকানদার কে জরিমানা।

গোমস্তাপুর(চৌডালা) প্রতিনিধি : চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলার গোমস্তাপুর উপজেলার ৭ নং চৌডালা ইউনিয়ন পরিষদের চৌডালা মার্কেটের বন্ধু বস্ত্রালায় কে দুই হাজার ও লিটন সুতা ঘর কে তিন হাজার টাকা জরিমানা করেন।

মঙ্গলবার (১ জুন) সন্ধ্যার পর লকডাউন ও সরকারি বিধিনিষেধ অমান্য করার কারনে এ জমিমানা করা হয়।

গোমস্তাপুর উপজেলার সহকারি কমিশনার (ভূমি) শাহরিয়ার নজির বলেন বন্ধু বস্ত্রালয় লকডাউন অমান্য ও সাস্থ্য বিধি অমান্য করার কারনে ও লিটন সুতা সাস্হ‍্য বিধি অমান্য ও অবৈধ কারেন্ট জাল রাখার কারনে তাদের এই জরিমানা করা হয়।এবং অবৈধ কারেন্ট জাল গুলো বাজেয়প্ত করা হয়।তিনি আরো বলেন জেলায় করোনা ভাইরাসের প্রকট বাড়ায় সবাইকে সচেতন ভাবে সাস্হ‍্য বিধি মেনে চলার আহ্বান জানান।

গোমস্তাপুরে করোনায় ১ জনের মৃত্যু|| মোট শনাক্ত ১২৯

চাঁপাইনবাবগঞ্জের গোমস্তাপুরে গত ২৪ ঘন্টায় করোনা সংক্রমন নিয়ে ১জনের মৃত্যু ও ১২ জনের শরীরে করোনা শনাক্ত হয়েছে। বুধবার বিকেলে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের চিকিৎসক ডাঃ হাসান আলী এ তথ্য নিশ্চিত করেন। তিনি জানান, উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসা নিতে আসা ৮ জনের এ্যান্টিজেন টেষ্ট করা হলে রিপোর্ট পজিটিভ আসে। এ ছাড়া রামেক হাসপাতালের পিসিআর ল্যাবে প্রেরণকৃত নমুনার মধ্যে নতুন করে ৪ জনের রিপোর্ট পজিটিভ আসে। এদিকে চৌডালা ইউনিয়নে হোম আইসোলেশনে থাকা ৫০ বছর বয়সী এক ব্যক্তির মৃত্যু হয়েছে। এ নিয়ে গোমস্তাপুর উপজেলায় মোট শনাক্ত ১২৯ জন, সুস্থ ২৬ জন, মৃত ২জন ও চিকিৎসাধীন রয়েছেন ১১১ জন।

বরেন্দ্র জনপদসহ চাঁপাইনবাবগঞ্জে মধুমাস জ্যৈষ্ঠে কদর বেড়েছে তালপানির

চাঁপাইনবাবগঞ্জ প্রতিনিধি ॥ প্রচন্ড গরমের মধ্যে বরেন্দ্র জনপদসহ চাঁপাইনবাবগঞ্জে কদর বেড়েছে তালের শাঁসের। এদিকে চলছে মধুমাস জ্যৈষ্ঠ। চলতি মাসের অন্যতম বৈশিষ্ট্য হচ্ছে হরেক রকমের সুস্বাদু ফল। ফলের তালিকায় রয়েছে, আম, জাম, কাঁঠাল, লিচু ছাড়াও অন্যতম আরেকটি ভিন্নধর্মী রসালো ফল তালের শাঁস (তালপানি)। তালের নরম অংশটি খুবই সুস্বাদু। চাঁপাইনবাবগঞ্জের গ্রাম্য ভাষায় এটি ‘তাল পানি’ নামে বেশি পরিচিত। প্রচুর গরমে তালের এই শাঁসটি শহর ও গ্রামের মানুষের কাছে খুবই প্রিয়। বর্তমানে শহর থেকে শুরু করে গ্রামের বিভিন্ন অলিতে গলিতে এই মৌসুমি ফল তালের শাঁস বিক্রি বেড়ে গেছে। অনেক মৌসুমি ফল ব্যবসায়ীরা তাল গাছ থেকে অপরিপক্ক তাল পাইকারি কিনে এনে কেটে কেটে বিভিন্ন দামে বিক্রয় করেন। তবে নরম অবস্থায় তাল শাঁসের দাম অনেক বেশি। কিন্ত দিন যতই যেতে থাকে এই তাল শাঁস ততই শক্ত হতে থাকে। তখন শাঁসের দাম কমতে থাকে এবং এক সময় তাল পরিপক্ক হয়ে গেলে তখন আর এই শাঁস খাওয়া সম্ভব হয় না। উপজেলার কৃষকদের গাছের তালের শাঁস কারণে যাচ্ছে না রাজধানী ঢাকাসহ দেশের প্রত্যন্ত অঞ্চলে। শিশুসহ সব বয়সী লোকের মধ্যে এই তালের শাঁসের কদর দিন দিন বেড়েই চলেছে। উপজেলার প্রতিটি গ্রামেই কম বেশি তাল গাছ রয়েছে। সরেজমিনে উপজেলার বিভিন্ন হাট-বাজার ঘুরে দেখা যায়, বর্তমানে এর চাহিদা অনেক বেড়েছে। বিক্রেতা শাঁস কেটে সারতে পারছে না, ক্রেতারা দাঁড়িয়ে রয়েছে শাঁস নিতে। তালের শাঁস বিক্রি করে অনেক হতদরিদ্র মানুষ জীবিকা নির্বাহ করছেন। মধুমাসের অন্যান্য ফলের তুলনায় এই শাঁস পরিবারের সব সদস্যদের কাছে খুবই জনপ্রিয়। এটি নরম ও সুস্বাদু। সব বয়সের মানুষ এটি সহজে খেতে পারে। তুলনামূলকভাবে এর দামও হাতের নাগালে ছিল তবে এই বছর দাম অনেক বেশি।

৫৯ বিজিবি’র সোনামসজিদ সীমান্তে ফেন্সিডিল উদ্ধার

চাঁপাইনবাবগঞ্জ প্রতিনিধি ॥ মাদক পাচারের গোপন সংবাদে বুধবার সকালে জেলার শিবগঞ্জ উপজেলার শিয়ালমারা এলাকা থেকে ভারতীয় ফেন্সিডিল উদ্ধার করেছে চাঁপাইনবাবগঞ্জস্থ রহনপুর ৫৯ বিজিবি সদস্যরা।
রহনপুর ৫৯ বিজিবি ব্যাটালিয়ন এর অধিনায়ক লেঃ কর্ণেল মোঃ আমীর হোসেন মোল্লা পিএসসি বিষয়টির সত্যতা নিশ্চিত করে এক প্রেসনোটে বুধবার বিকেলে জানান, ২ জুন বুধবার বেলা ১১টার দিকে সোনামসজিদ বিওপির হাবিলদার মোঃ রেজাউল ইসলাম এর নেতৃত্বে টহল দল দায়িত্বপূর্ণ এলাকার সীমান্ত পিলার ১৮৭/১৭-এস হতে আনুমানিক ১ কিঃমিঃ বাংলাদেশের অভ্যন্তরে শিয়ালমারা নতুন করবস্থানের দক্ষিণ পার্শ্ব হতে মালিকবিহীন ৬০০ বোতল ভারতীয় ফেন্সিডিল আটক করতে সক্ষম হয়। আটককৃত ফেন্সিডিল এর আনুমানিক সিজার মূল্য-২ লক্ষ ৪০ হাজার টাকা। আটককৃত ফেন্সিডিল এর ব্যাপারে প্রয়োজনীয় কার্যক্রম গ্রহণ করা হয়েছে।

শিবগঞ্জে ঘরবন্দি পরিবারের মাঝে খাদ্যসামগ্রী বিতরণ

শিবগঞ্জ (চাঁপাইনবাবগঞ্জ) প্রতিনিধি :
চাঁপাইনবাবগঞ্জের শিবগঞ্জে করোনাকালে লকডাউন অবস্থায় ঘরবন্দি অসহায় দুস্থ পরিবারের মাঝে খাদ্যসামগ্রী বিতরণ করা হয়েছে। বুধবার সকালে উপজেলার ছত্রাজিতপুর, নয়ালাভাঙা, দূর্লভপুরর ও ঘোড়াপাখিয়া ইউনিয়নের আড়াই’শ পরিবারের মাঝে খাদ্যসামগ্রী বিতরণ করা হয়। উপজেলা প্রশাসন এবং দূর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয়ের উদ্যোগে প্রত্যেক পরিবারকে ১০ কেজি চাল, দুই কেজি আলু, এক লিটার তেল, এক কেজি লবণ ও এক কেজি ডাল বিতরণ করা হয়। এতে উপস্থিত ছিলেন সংসদ সদস্য ডা. সামিল উদ্দিন আহমেদ শিমুল, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সাকিব আল-রাব্বি, উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা প্রকৌশলী আরিফুল ইসলাম, ইউপি সচিব আবদুল আহাদসহ সংশ্লিষ্ট ইউপি সদদস্যরা।

চাঁপাইনবাবগঞ্জের বর্ধিত বিশেষ লকডাউনের ২য় দিনে সোনামসজিদ বন্দর এলাকা লক

শিবগঞ্জ( চাপাইনবাবগঞ্জ) প্রতিনিধি ঃ
করোনা সংক্রমন বৃদ্ধি প্রতিরোধে চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলায় ২ দফায় ১৪ দিনের কঠোর লকডাউনের ৯ম দিন ছিল বুধবার। এদিন প্রশাসনের উপজেলা পর্যায়ে লকডাউন মানাতে বেশ কঠোর ছিল।সোনামসজিদ বন্দর এলাকায় লকডাউনের শিথীল অবস্থা এবং ভারতীয় ট্রাক চালকদের ঘোরাঘুরির বিষয়টি সংবাদ মাধ্যমে প্রচারের পর মঙ্গলবার সন্ধ্যা থেকে প্রশাসন ছিল কঠোর অবস্থানে । সোনামসজিদের মধ্যবাজার ও আশেপাশের এলাকায় নিত্যপন্য ছাড়া সব ধরনের দোকানপাট ছিল সম্পূর্নভাবে বন্ধ।কোন ভারতীয় ট্রাক চালককে ঘুরতে দেখা যায়নি।
এদিকে জেলা শহরের বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ মোড়ে এবং জেলার বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ স্থানে প্রশাসনের তৎপরতা দেখা গেছে। জেলায় ১২ চি ভ্র্যাম্যমান টিম লকডাউন ভাঙ্গার অভিযোগে মঙ্গলবার ৫১ জন কে জরিমানা করেছে।
এদিকে জেলা স্বাস্থ্য বিভাগ জানায়, চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলায় বর্তমানে করোনা রোগী চিকিৎসাথীন রয়েছে ৫৯৩ জন। জেলায় এ পর্যন্ত মোট ২০৩৩ জনের দেহে ভাইরাস শনাক্ত হয়েছে। মারা গেছেন ৩৭ জন। গত ২৪ ঘন্টায় ৩৬৩ টি নমুনায় ১৯৬ জনের করোনা সনাক্ত হয়েছে।যার সনাক্তের হার শতকরা ৫৪ ভাগ।

সঙ্কট মেটাতে সঙ্কটের আগেই চাঁপাইনবাবগঞ্জ সদর হাসপাতালে অক্সিজেন সিস্টেম চালু

নিজেস্ব প্রতিবেদক
সঙ্কট মেটাতে চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলার ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলা হাসপাতালে নিরবিচ্ছিন্ন অক্সিজেন সিস্টেম চালু করা হয়েছে। বুধবার (২ জুন) দুপুরে এর আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেন জেলা প্রশাসক মো. মঞ্জুরুল হাফিজ। হাসপাতালটিতে রোগীর চাপ বাড়ায় এবং অক্সিজেনের চাহিদা বাড়তে থাকায় সঙ্কটময় অবস্থা থেকে মুক্তি পেতে আগে ভাগেই অক্সিজেন সিস্টেম চালু করা হলো।আগে সেন্ট্রাল অক্সিজেন সিষ্টেমে ১০-১২ টি সিলিন্ডার দিয়ে কেন্দ্রীয়ভাবে অক্সিজেন সাপ্লাই চালু ছিল। এতে করে রোগীর চাপ বাড়লে তা কুলান দেয়া সম্ভব ছিলনা। ফলে জেলা হাসপাতালে অক্সিজেন
সমস্যার সমাধান হলো।বর্তমানে প্রতিদিন ৫০ জন রোগীকে নিরবিচ্ছিন্নভাবে অক্সিজেন দেয়া
সম্ভব হবে।
উদ্ধাধনী অনুষ্ঠানে জানানো হয়, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার প্রদান করা এই লিকুইড মেডিকেল অক্সিজেন ট্যাংকে
৫ হাজার ৬৪৪ লিটার অক্সিজেন রয়েছে। যা প্রায় ৬০০ ৬.৮ কিউবিক মিটার) সিলিন্ডার
এর সমান। আর এই অক্সিজেন শেষ হওয়ার আগেই
আবারও অক্সিজেন সরবরাহ কর্তৃপক্ষ বিষয়টি জানতে পারবেন এবং লিকুইড মেডিকেল
অক্সিজেন ট্যাংকে অক্সিজেন সরবরাহ করবেন। ফলে চাঁপাইনবাবগঞ্জের মানুষকে আর
অক্সিজেন সমস্যায় পড়তে হবে না। এসময় উপস্থিত ছিলেন হাসপাতালের তত্ত্বাবধায়ক ডা.
মুমিনুল হক, আবাসিক মেডিকেল অফিসার (আরএমও) ডা. মো. নাদিম সরকারসহ অন্যরা।

৬ লাখ কোটি টাকার বাজেট অধিবেশন বসছে বিকেলে

নিজস্ব প্রতিবেদক
২০২১-২২ অর্থবছরের জন্য ৬ লাখ ৩ হাজার ৬৮১ কোটি টাকার বাজেট ঘোষণা করতে যাচ্ছেন অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল। বুধবার বিকেলে অধিবেশন শুরু হবে। করোনা পরিস্থিতির কারণে অধিবেশন হবে সংক্ষিপ্ত।

জানা যায়, স্বাস্থ্য সুরক্ষায় যাবতীয় প্রস্তুতিসহ সার্বিক পরিকল্পনা ইতোমধ্যে সম্পন্ন হয়েছে। গতবারের মতো এবারও রোস্টার করে সংসদ সদস্যরা অধিবেশনে অংশ নেবেন। প্রতি কার্যদিবসে উপস্থিতি সংখ্যা ১০০ থেকে ১২০ জনের মধ্যে সীমাবদ্ধ রাখা হবে। এক্ষেত্রে একজন সংসদ সদস্য তিন থেকে চার কার্যদিবস অধিবেশনে যোগ দেবেন। যোগদানের জন্য তাদের করোনা নেগেটিভ সনদ থাকা বাধ্যতামূলক। একদিন করোনার টেস্টের নেগেটিভ ফলাফলের ভিত্তিতে পরপর দুদিন অধিবেশনে যোগ দেওয়া যাবে। ফলে সংসদে যোগদানের জন্য সংসদ সদস্যদের একাধিকবার নমুনা পরীক্ষার প্রয়োজন পড়বে।

বাজেট প্রণয়নের সঙ্গে সম্পৃক্ত কর্মকর্তারা জানান, বিশাল আকারের এই বাজেটে সর্বাধিক গুরুত্ব পাবে মানুষের জীবন ও জীবিকা। জোর দেওয়া হবে স্বাস্থ্য খাতে। করোনা মহামারীতে ক্ষতিগ্রস্ত সবার জন্য কিছু না কিছু দেওয়ার চেষ্টা করবেন অর্থমন্ত্রী। নতুন করের বোঝা চাপাতে চান না তিনি।

কর্মকর্তারা আরো জানান, আসছে বাজেটের মোট আকার হতে পারে ৬ লাখ ৩ হাজার ৬৮১ কোটি টাকার। বাজেটে মোট আয় ৩ লাখ ৯২ হাজার ৪৯০ কোটি টাকা। সামগ্রিক ঘাটতি দাঁড়াবে প্রায় ২ লাখ ১২ হাজার কোটি টাকা। মানুষের হাতে টাকার সরবরাহ বাড়াতে সরকারি বিনিয়োগ বাড়ানোর পাশাপাশি বেসরকারি খাতেও বিনিয়োগ টানার চেষ্টা থাকবে বছর জুড়েই। এ জন্য বাজেটে মোট উন্নয়ন ব্যয় ২ লাখ ৩৭ হাজার ৭৮ কোটি টাকা। এরমধ্যে বার্ষিক উন্নয়ন কর্মসূচির (এডিপি) আকার ২ লাখ ২৫ হাজার ৩২৪ কোটি টাকা ধরা হচ্ছে। আর মোট অনুন্নয়ন ব্যয় ৩ লাখ ৬১ হাজার ৫০০ কোটি টাকা। ঘাটতি অর্থায়নে বৈদেশিক ঋণ নেওয়া হবে প্রায় ৯৮ হাজার কোটি টাকা। ব্যাংক ঋণ নেওয়া হবে ৭৬ হাজার ৪৫২ কোটি টাকা।

সূত্র জানায়, করোনাভাইরাস মহামারীতে বিপর্যস্ত হয়ে পড়েছে জনজীবন। জীবিকার তাগিদে মৃত্যুঝুঁকি জেনেও প্রাত্যহিক কাজে যাচ্ছে মানুষ। কিন্তু টানা এক বছরেরও বেশি সময় ধরে চলা করোনার তাণ্ডবে চরম মন্দা পরিস্থিতি বিরাজ করছে ব্যবসা-বাণিজ্যে। লাখ লাখ মানুষ হয়ে পড়েছে কর্মহীন। আড়াই কোটি মানুষের নতুন করে দরিদ্রের খাতায় নাম উঠেছে। এ অবস্থায় আসছে ২০২১-২২ অর্থবছরের বাজেটে সর্বাধিক গুরুত্ব পাবে জীবন ও জীবিকা। অগ্রাধিকারের তালিকায় থাকছে স্বাস্থ্য সুরক্ষা, কর্মসংস্থান, ব্যবসা-বাণিজ্য, বিনিয়োগ ও কৃষি খাতে থাকছে বিশেষ ছাড়ের ঘোষণা। থাকবে দেশীয় শিল্পের সুরক্ষার ঘোষণা। দরিদ্র মানুষকে সুবিধা দিতে বাড়বে সামাজিক নিরাপত্তা কর্মসূচির আওতা। করোনা মহামারীতে মানুষ ও সরকারের আয় কমে যাওয়ায় সাধ ও সাধ্যের সমন্বয় ঘটানোর চেষ্টা থাকবে বাজেটে।

সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা জানান, বাজেট প্রস্তাব উত্থাপনের পর দুই দিন বিরতি দিয়ে ৬ জুন থেকে বাজেট আলোচনা শুরু হবে। ওইদিন থেকে বেলা ১১টায় অধিবেশন শুরু হবে। সোমবার (৭ জুন) সম্পূরক বাজেট পাসের পর অধিবেশন আবারও মুলতবি করা হবে। এরপর টানা ছয় দিন বিরতি দিয়ে আগামী অর্থবছরের জন্য প্রস্তাবিত বাজেটের ওপর সাধারণ আলোচনা ১৪ জুন শুরু হবে। এ আলোচনা চলবে ১৫, ১৬, ১৭ ও ২৮ জুন। সাধারণ আলোচনা শেষে ২৯ জুন অর্থবিল এবং ৩০ জুন মূল বাজেট ও নির্দিষ্টকরণ বিল পাস হবে। পরদিন পহেলা জুলাই বাজেট অধিবেশন শেষ হবে।

নতুন বছরের জন্য প্রস্তাবিত বাজেটের ওপর মাত্র পাঁচ দিন আলোচনা হবে। আলোচনায় নির্ধারিত সংখ্যক সরকার ও বিরোধী দলের সদস্য অংশ নেবেন। পুরো বাজেট পাসের প্রক্রিয়া ব্যয় হবে ১০ দিন। সেক্ষেত্রে ২০ থেকে ২৫ ঘণ্টা বাজেট আলোচনা হতে পারে। প্রতিদিন বেলা সাড়ে ১১টা থেকে দুপুর দেড়টা পর্যন্ত এ আলোচনা চলবে। অধিবেশনে বাজেট ছাড়াও কয়েকটি গুরুত্বপূর্ণ বিল পাসের সম্ভাবনা রয়েছে।

করোনা পরিস্থিতি গত বছর বাজেট অধিবেশনের সংক্ষিপ্ত সময়ের জন্য হয়েছিল। গত বছর মাত্র ৯ কার্যদিবস চলে বাজেট অধিবেশন। যা বাংলাদেশের বাজেট অধিবেশনের ইতিহাসে এখনও পর্যন্ত সংক্ষিপ্ত।

ভারতে ৫৯৪ চিকিৎসকের মৃত্যু

মহামারি করোনা ভাইরাসে বর্তমানে সবচেয়ে বেশি ধুঁকতে থাকা দেশ ভারতে দ্বিতীয় ঢেউয়ে ৫৯৪ চিকিৎসকের মৃত্যু হয়েছে।

বুধবার (২ জুন) ইন্ডিয়ান মেডিক্যাল অ্যাসোসিয়েশনের (আইএমএ) বরাত দিয়ে টাইমস অব ইন্ডিয়ার এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়েছে।আইএমএ প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ভারতে করোনার দ্বিতীয় ঢেউয়ে সবচেয়ে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে রাজধানী দিল্লি। এখানে ১০৭ জন চিকিৎসক মারা গেছেন। এছাড়া বিহারে ৯৬ জন, উত্তরপ্রদেশ ৬৭, রাজস্থানে ৪৩ ও ঝাড়খণ্ডে ৩৯ মারা গেছেন। বাকি চিকিৎসকরা দেশটির অন্যান্য প্রবেশগুলোর। দেশটিতে ১২ লাখের বেশি চিকিৎসক থাকলে সংস্থাটির কাছে থাকা সাড়ে ৩ লাখ চিকিৎসকের রেকর্ড যাচাই করে এ তথ্য প্রকাশ করা হয়েছে। সংস্থাটি বলছে, চিকিৎসক মৃত্যুর সংখ্যা আরও বেশি হতে পারে।

এদিকে, ভারতে গত ২৪ ঘণ্টায় ১ লাখ ২৭ হাজার ৫১০ জন শনাক্ত হয়েছে। যা গত ৮ এপ্রিল করোনার দ্বিতীয় ঢেউ শুরু পর থেকে সর্বনিম্ন রেকর্ড। আর এসময় মারা গেছেন ২৭৯৫ জন। যা করোনা শনাক্তের তুলনায় কিছুটা বেশি।

এর আগে ১১ মে দেশটিতে একদিনে সর্বোচ্চ ৪২০০ জনের মৃত্যু হয়। ৭ এপ্রিল ৪১৯৪ জনের মৃত্যু হয়। সবমিলিয়ে দেশটিতে মৃত্যুর সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ২ লাখ ৬২ হাজার ৩৫০ জনে।

এছাড়া ৬ মে দেশটিতে একদিনে সর্বোচ্চ ৪ লাখ ১৪ হাজার ৪৩৩ জন শনাক্ত হয়। এটি এখন পর‌্যন্ত দেশটি সর্বোচ্চ শনাক্ত। ৫ মে ৪ লাখ ১২ হাজার ৬১৮ জন শনাক্ত হয়। সবমিলিয়ে দেশটিতে শনাক্তের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ২ কোটি ৪০ লাখ ৪৬ হাজার ১২০ জনে।

ভারতে করোনা ভাইরাসের দ্বিতীয় ঢেউ শুরুর পর প্রায় প্রতিদিনই ২ হাজার জনেরও বেশি মানুষের মৃত্যু হচ্ছে।

বিশ্বব্যাপী করোনায় আক্রান্ত-মৃত্যুর সংখ্যা বাড়লো

চলমান মহামারি করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে প্রতিদিন বেড়েই চলছে মৃতের সংখ্যা, আক্রান্তও হচ্ছে লাখ লাখ মানুষ। এরই মধ্যে বিশ্বে করোনায় মৃতের সংখ্যা ছাড়িয়েছে ৩৫ লাখ ৭৫ হাজার এবং আক্রান্ত হয়েছেন ১৭ কোটি ১৯ লাখেরও বেশি মানুষ।এদিকে এ ভাইরাসের নতুন ভারতীয় ধরন মানুষের মনে আতঙ্ক আরও বাড়িয়ে দিয়েছে।

বুধবার (২ জুন) আন্তর্জাতিক পরিসংখ্যানভিত্তিক ওয়েবসাইট ওয়ার্ল্ডোমিটার এ তথ্য জানায়।

তথ্যানুয়ায়ী, বুধবার সকাল ৮টা পর্যন্ত পূর্ববর্তী ২৪ ঘণ্টায় বিশ্বে মারা গেছে আরও সাড়ে ১০ হাজার ৩৪৪ মানুষ এবং আক্রান্ত হয়েছে ৪ লাখ ৪৭ হাজার ২০১ জন। এছাড়া মঙ্গলবার (১ জুন) বিশ্বজুড়ে মারা যায় ৭ হাজার ৯৬৯ জন। এ ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছিল ৩ লাখ ৬৬ হাজার ৪০০ জন। ফলে মঙ্গলবারের তুলনায় নতুন মৃত্যু ২ হাজারেরও বেশি বেড়েছে এবং নতুন শনাক্ত রোগীর সংখ্যাও বেড়েছে।

এ নিয়ে বিশ্বে এখন পর্যন্ত মোট করোনায় মৃত্যু হয়েছে ৩৫ লাখ ৭৫ হাজার ৫০৫ জনের এবং আক্রান্ত হয়েছে ১৭ কোটি ১৯ লাখ ১৬ হাজার ৬৭৩ জন। করোনায় এখন পর্যন্ত সবচেয়ে বেশি সংক্রমণ ও মৃত্যু হয়েছে বিশ্বের ক্ষমতাধর দেশ যুক্তরাষ্ট্রে। তালিকায় শীর্ষে থাকা দেশটিতে এখন পর্যন্ত করোনা সংক্রমিত হয়েছে ৩ কোটি ৪১ লাখ ৩৬ হাজার ৭৩৮ জন। মৃত্যু হয়েছে ৬ লাখ ১০ হাজার ৪৩৬ জনের।

আক্রান্তে দ্বিতীয় ও মৃত্যুতে তৃতীয় অবস্থানে থাকা ভারতে এখন পর্যন্ত মোট সংক্রমিত হয়েছেন ২ কোটি ৮৩ লাখ ৬ হাজার ৮৮৩ জন এবং এখন পর্যন্ত মোট মৃত্যু হয়েছে ৩ লাখ ৩৫ হাজার ১১৪ জনের। আক্রান্তে তৃতীয় এবং মৃত্যুতে দ্বিতীয় অবস্থানে থাকা ব্রাজিলে এখন পর্যন্ত করোনায় এক কোটি ৬৬ লাখ ২৫ হাজার ৫৭২ জন সংক্রমিত হয়েছেন। মৃত্যু হয়েছে ৪ লাখ ৬৫ হাজার ৩১২ জনের।

আক্রান্তের দিক থেকে চতুর্থ স্থানে রয়েছে ফ্রান্স। দেশটিতে এখন পর্যন্ত করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন ৫৬ লাখ ৭৭ হাজার ১৭২ জন। ভাইরাসটিতে মারা গেছে এক লাখ ৯ হাজার ৬৬২ জন। এ তালিকায় পঞ্চম স্থানে রয়েছে তুরস্ক। এখন পর্যন্ত দেশটিতে করোনায় সংক্রমিত হয়েছে ৫২ লাখ ৫৬ হাজার ৬১৫ জন। এর মধ্যে মারা গেছে ৪৭ হাজার ৬৫৬ জন।

এদিকে আক্রান্তের তালিকায় রাশিয়া ষষ্ঠ, যুক্তরাজ্য সপ্তম, ইতালি অষ্টম, আর্জেন্টিনা নবম এবং জার্মানি দশম স্থানে রয়েছে। বাংলাদেশের অবস্থান ৩৩তম, যেখানে মোট মৃত্যু হয়েছে ১২ হাজার ৬৬০ জনের এবং আক্রান্ত হয়েছে ৮ লাখ ২ হাজার ৩০৫ জন।

২০১৯ সালের ডিসেম্বরের শেষ দিকে চীনের হুবেই প্রদেশের উহান থেকে করোনার সংক্রমণ শুরু হয়। এখন পর্যন্ত বাংলাদেশসহ বিশ্বের ২শ ১৮টি দেশ ও অঞ্চলে ছড়িয়ে পড়েছে এ ভাইরাস।