সর্বশেষ সংবাদ স্থগিত হওয়া আইপিএলেও ফিক্সিংয়ের অভিযোগ! বাংলাদেশসহ ৪ দেশের নাগরিকদের মালয়েশিয়ায় প্রবেশে নিষেধাজ্ঞা নেদারল্যান্ডসের প্রেমিকাকে বিয়ে করলেন দিতির ছেলে খালেদা জিয়ার করোনা নেগেটিভ: খোকন Bangladesh sees fresh 1,822 Covid cases, 41 more deaths ‘ঈদে ছোটাছুটি নয়, বেঁচে থাকলে তো স্বজনদের সঙ্গে দেখা’ জনসংখ্যা বাড়লেও খাদ্য নিরাপত্তায় চ্যালেঞ্জ মোকাবেলা করা সম্ভব হচ্ছে- কৃষিমন্ত্রী ড. মোঃ আব্দুর রাজ্জাক চাঁপাইনবাবগঞ্জে ট্রাকের ধাক্কায় মোটরসাইকেল আরোহী নিহত অমুক্তিযোদ্ধাকে রাষ্ট্রীয় মর্যাদায় দাফনের অভিযোগ  স্থানীয় বীর মুক্তিযোদ্ধাদের তরমুজের পর এবার চাঁপাইনবাবগঞ্জে ১২০ টাকা কেজি দরে বিকাচ্ছে আনারস

৫৯ বিজিবি’র তেলকূপি সীমান্তে ফেন্সিডিল উদ্ধার

চাঁপাইনবাবগঞ্জ প্রতিনিধি ॥ চাঁপাইনবাবগঞ্জের শিবগঞ্জ উপজেলার তেলকুপি সীমান্ত এলাকা হতে ফেন্সিডিল উদ্ধার করেছে চাঁপাইনবাবগঞ্জস্থ রহনপুর ৫৯বিজিবি ব্যাটালিয়নের সদস্যরা। শনিবার সকালে তেলকুপি গ্রাম হতে ৪১৯ বোতল ফেন্সিডিল উদ্ধার করা হয়। এসময় ২ জন মাদক ব্যবসায়ী পালিয়ে যায়। পলাতক মাদক ব্যবসায়ীরা হল-শিবগঞ্জ উপজেলার তেলকুপি লম্বাপাড়া গ্রামের মৃত সেকেন্দার আলীর ছেলে মোঃ ফলন মিয়া (৩৪) ও একই গ্রামের এজাবুলের ছেলে মোঃ সারোয়ার মিয়া (৩২)। শনিবার দুপুরে রহনপুর ৫৯ বিজিবি’র অধিনায়ক লেঃ কর্ণেল মোঃ আমির হোসেন মোল্লা পিএসসি এক প্রেসনোটে বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, ৫৯ বিজিবি’র নায়েক মোঃ মনিরুজ্জামনের নেতৃত্বে একটি টহল দল শিবগঞ্জ উপজেলার তেলকুপি সীমান্ত পিলার ১৮০/৭-এস হতে আনুমানিক ৭’শ গজ বাংলাদেশের অভ্যন্তরে তেলকুপি লম্বাপাড়ার ফলন মিয়ার বাড়িতে তল্লাসী চালিয়ে ৪১৯ বোতল ফেন্সিডিল উদ্ধার করা হয়। এসময় বিজিবি’র উপস্থিতি টের পেয়ে ফলন ও সারোয়ার পালিয়ে যায়। উদ্ধারকৃত ফেন্সিডিলের মুল্য আনুমানিক ১ লক্ষ ৬৭ হাজার ৬০০ টাকা। এবিষয়ে শিবগঞ্জ থানায় একটি মামলা দায়ের করা হয়েছে।

রাজধানীতে আজ চালু হলো ১০ ইউটার্ন

রাজধানীর তেজগাঁও সাতরাস্তা মোড় থেকে উত্তরা হাউজ বিল্ডিং পর্যন্ত সড়কে আজ শনিবার আনুষ্ঠানিকভাবে চালু হলো ১০টি ইউটার্ন। সড়কটিতে ১০টি ইউটার্ন চালুর সাথে সাথে ডানে মোড় নেয়ার (রাইটটার্ন) পয়েন্টগুলো বন্ধ করে দেয়া হবে। শুক্রবার বিকেলে এক বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানিয়েছে ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশন (ডিএনসিসি)। বাংলা নিউজ।
সংস্থাটি জানায়, বাস্তবায়নাধীন ঢাকার তেজগাঁও সাতরাস্তা মোড় থেকে উত্তরা হাউজ বিল্ডিং পর্যন্ত ১১টি ইউটার্ন নির্মাণ প্রকল্পের আওতায় উত্তরা রাজলক্ষ্মীর সামনে, উত্তরা র্যাব-১ অফিস, ফ্লাইং ক্লাব কাওলা, বনানী ওভারপাস, বনানী আর্মি স্টেডিয়ামের সামনে, বনানী চেয়ারম্যান বাড়ি, মহাখালী আমতলী, মহাখালী বাস টার্মিনালের সামনে, তেজগাঁও নাবিস্কো মোড় এবং সাতরাস্তার বিজি প্রেস এলাকায় নির্মিত ১০টি ইউটার্ন যানবাহনের ব্যবহারের জন্য শনিবার উন্মুক্ত করা হবে।
একই সাথে সড়কের উভয় দিকে ডানে মোড় নেয়ার সব পয়েন্ট বন্ধ করে দেয়া হবে। এ জন্য ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের (ডিএমপি) ট্রাফিক বিভাগের সহযোগিতা নেবে ডিএনসিসি।
বন্ধ হতে যাওয়া ডানে মোড় নেয়ার পয়েন্টগুলো হলো নেভি হেড কোয়ার্টারের শাখা রাস্তা, বনানী রোড নম্বর ২৭, বনানী কাকলী, বনানী রোড নম্বর ১১, মহাখালী আমতলী মোড়, তেজগাঁও কোহিনুর মোড় ও লাভ রোড মোড়। রাজধানীর যানজট হ্রাস করতে এসব এলাকায় চলাচলকারী যানবাহনকে ইউটার্নগুলো ব্যবহার করতে অনুরোধ করেছে ডিএনসিসি।
এ বিষয়ে ডিএনসিসির নির্বাহী প্রকৌশলী মোহাম্মদ ফরহাদ বলেন, ইউটার্নগুলো আগেও চালু ছিল। তবে এবার আমরা আনুষ্ঠানিকভাবে এগুলো চালু করতে যাচ্ছি। একই সাথে সড়কটির রাইটটার্ন বন্ধ করে দেবো। এটা এই প্রকল্পের অন্যতম দিক। এর ফলে যানজট কমে আসবে।
তেজগাঁও সাতরাস্তা মোড় থেকে উত্তরা হাউজ বিল্ডিং পর্যন্ত সড়কে ১১টি ইউটার্ন নির্মাণের প্রকল্প হাতে নেয়া হলেও পরে ১০টি ইউটার্ন নির্মাণের সিদ্ধান্ত হয়।

দ্বিগুণ আমদানি ॥ রমজানে সঙ্কট হবে না কোন ভোগ্যপণ্যের

রমজান সামনে রেখে গত কয়েক মাসে চাহিদার তুলনায় প্রায় দ্বিগুণ পরিমাণ ভোগ্যপণ্য আমদানি হয়েছে। পবিত্র রমজান মাসে দ্রব্যমূল্য নিয়ন্ত্রণে ব্যাপক প্রস্তুতি নেয়া হয়েছে। সরকারী বাজার নিয়ন্ত্রণকারী সংস্থা-টিসিবি প্রথমবারের মতো দ্বিগুণ পরিমাণ নিত্যপণ্য বিক্রি কার্যক্রম শুরু করেছে সারাদেশে। সংস্থাটির মূল লক্ষ্য, রোজায় স্বল্প আয়ের মানুষের কাছে সস্তায় ভোজ্যতেল, চিনি, ডাল, ছোলা, পেঁয়াজ এবং খেজুরের মতো ভোগ্যপণ্য পৌঁছে দেয়া। সরবরাহ পরিস্থিতি স্বাভাবিক রাখা ও ন্যায্যমূল্যে পণ্য বিক্রি করতে সরকারের সর্বোচ্চ নজর এখন বাজারের দিকে। সরাসরি প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় থেকেও নিত্যপণ্যের বাজার তদারকি করা হচ্ছে। এ কারণে ভোগ্যপণ্য নিয়ে ক্রেতাদের আতঙ্কিত না হওয়ার পরামর্শ দিয়েছেন বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশি ও বাণিজ্য সচিব ড. মোঃ জাফর উদ্দীন। তারা বলছেন, দেশে ভোগ্যপণ্যের কোন সঙ্কট নেই। করোনা পরিস্থিতির মধ্যেও বাজার পরিস্থিতি স্বাভাবিক থাকবে। স্বাস্থ্যবিধি মেনে ক্রেতা-বিক্রেতারা স্বাচ্ছন্দ্যে কেনাকাটা করতে পারবেন। এজন্য সব ধরনের প্রস্তুতি রয়েছে সরকারী-বেসরকারী খাতে। রবিবার দ্রব্যমূল্য সংক্রান্ত টাস্কফোর্সের জরুরী বৈঠক ডাকা হয়েছে।

জানা গেছে, রমজান সামনে রেখে এবার তিন মাস আগে থেকে আমদানির প্রস্তুতি নিয়েছিলেন ব্যবসায়ীরা। বাণিজ্য মন্ত্রণালয় থেকে গত বছরের ডিসেম্বর মাসের শুরুতে ভোগ্যপণ্যের আমদানি বাড়ানোর পরামর্শ দেয়া হয়। সরকারী সেই পরামর্শ গ্রহণ করে দেশে ভোগ্যপণ্যের আমদানি ও বাজারজাতকারী জায়ান্ট প্রতিষ্ঠানগুলো বিপুল পরিমাণ চাল, ডাল, ছোলা, ভোজ্যতেল, চিনি, গম, পেঁয়াজ, মসলাপাতি এবং খেজুর আমদানি করে। ইতোমধ্যে আমদানিকৃত পণ্যের বড় অংশ চট্টগ্রাম বন্দর থেকে খালাস হয়ে পৌঁছে গেছে দেশের বড় বড় পাইকারি বাজারগুলোতে। আমদানিকৃত পণ্যে ঠাসা এখন চট্টগ্রামের খাতুনগঞ্জ এবং ঢাকার মৌলভীবাজার, বেগম বাজার, বাদামতলী, মোহাম্মদপুর এবং শ্যামপুর কৃষিপণ্যের মার্কেট। ভোগ্যপণ্যের জায়ান্ট গ্রুপ হিসেবে খ্যাত এস আলম গ্রুপ, নূরজাহান গ্রুপ, মোস্তফা গ্রুপ, বিএসএম গ্রুপ, এমইবি গ্রুপ, পিএইচপি ফ্যামিলি ও আবুল খায়ের গ্রুপ, সিটি গ্রুপ ও মেঘনা গ্রুপ রোজা সামনে রেখে বিপুল পরিমাণ ভোগ্যপণ্য আমদানি করেছে।

একটি দায়িত্বশীল সূত্র জানিয়েছে, শুধু রোজা সামনে রেখে ২৫টি দেশ থেকে প্রায় ১০-১২ হাজার কোটি টাকার ভোগ্যপণ্য আমদানি হয়েছে। আমদানিকৃত এসব পণ্যের মধ্যে রয়েছে ছোলা, তেল, দুধ, চিনি, খেজুর মটর, মসুরসহ বিভিন্ন ধরনের ডাল। সম্প্রতি বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ে আমদানিকারকদের সঙ্গে জরুরী বৈঠক করেন বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশি। বৈঠক শেষে তিনি জানান, চাহিদার তুলনায় বেশি পণ্য আমদানি করা হয়েছে। এছাড়া ওই বৈঠকে পণ্যমূল্য বাড়বে না বলেও আমদানিকারকদের পক্ষ থেকে প্রতিশ্রুতি দেয়া হয়। যদিও এরই মধ্যে ভোজ্যতেল, চিনি, ছোলা, ডাল এবং খেজুরের মতো কয়েকটি পণ্যের দাম বেড়ে গেছে। তবে কমেছে পেঁয়াজসহ কয়েকটি মসলাপাতির দাম। মুরগি ও মাছ-মাংস চড়া দামে বিক্রি হচ্ছে রাজধানীর বাজারে। সরবরাহ কমায় বেড়ে গেছে সব ধরনের শাক-সবজির দাম।

এ অবস্থায় রোজা শুরু হলে বাজার পরিস্থিতি কোথায় দাঁড়ায় তা নিয়ে চিন্তিত মধ্যবিত্ত ও স্বল্প আয়ের খেটে খাওয়া সাধারণ মানুষ। এ প্রসঙ্গে বাণিজ্য সচিব ড. মোঃ জাফর উদ্দীন জনকণ্ঠকে বলেন, রোজার সময় এবার কোন জিনিসপত্রের দাম আর বাড়বে না। যা বাড়ার ইতোমধ্যে বেড়ে গেছে। তিনি বলেন, বিপুল পরিমাণ ভোগ্যপণ্য আমদানি হয়েছে। এবার তা বিক্রি করার সময়। বেশি মুনাফার আশায় কোন পণ্য মজুদ করা হলে লোকসান গুনতে হবে। গত কয়েক বছর ধরে সেটাই দেখছি। এ কারণে মুনাফা তুলতে হলে বাজারে পণ্য ছেড়ে দিতে হবে। তিনি বলেন, পণ্য মজুদেরও কোন সুযোগ নেই। রোজার আগে সরকারী বিভিন্ন সংস্থার পক্ষ থেকে বিশেষ বাজার মনিটরিং শুরু হবে যা চলবে পুরো মাসজুড়ে। এ ব্যাপারে বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের অনুরোধে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় প্রয়োজনীয় উদ্যোগ গ্রহণ করেছে। তিনি বলেন, এসব উদ্যোগের পাশাপাশি ট্রেডিং কর্পোরেশন অব বাংলাদেশ- টিসিবিও দ্বিগুণ পণ্য নিয়ে মাঠে রয়েছে। রমজানে বেশি ব্যবহার হয় এমন ছয়টি ভোগ্যপণ্য ভর্তুকি মূল্যে টিসিবি বিক্রি করছে।

অটিজমে আক্রান্ত শিশুরা হতে পারে রাষ্ট্রের দক্ষ জনসম্পদ

অটিজমে আক্রান্ত শিশুরা সমাজ ও রাষ্ট্রের দক্ষ জনসম্পদে পরিণত হতে পারে বলে দৃঢ়তা ব্যক্ত করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তিনি বলেছেন, আমার দৃঢ় বিশ্বাস তাদের সম্ভাবনাগুলোকে চিহ্নিত করে সঠিক পরিচর্যা, শিক্ষা-প্রশিক্ষণ ও মমতা দিয়ে গড়ে তোলা হলে তারা সমাজ ও রাষ্ট্রের দক্ষ জনসম্পদে পরিণত হবে।

শুক্রবার (২ এপ্রিল) ‘বিশ্ব অটিজম সচেতনতা দিবস-২০২১’ উপলক্ষে দেয়া এক বাণীতে এ কথা বলেন তিনি। প্রধানমন্ত্রী অটিজম বৈশিষ্ট্যসম্পন্ন শিশুর প্রতি আরো দায়িত্বশীল হওয়ার আহ্বানও জানান।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘১৪তম বিশ্ব অটিজম সচেতনতা দিবস উপলক্ষ্যে আমি বাংলাদেশসহ বিশ্বের সকল অটিজম বৈশিষ্ট্যসম্পন্ন ব্যক্তি এবং তাদের পরিবার ও পরিচর্যাকারীদের শুভেচ্ছা জানাই।’

তিনি আরো বলেন, ‘এবারের প্রতিপাদ্য ‘মহামারিত্তোর বিশ্বে ঝুঁকি প্রশমন, কর্মক্ষেত্রে সুযোগ হবে প্রসারণ’ অত্যন্ত সময়োপযোগী হয়েছে বলে আমি মনে করি।’

শেখ হাসিনা বলেন, ‘বর্তমান আওয়ামী লীগ সরকার অটিজম বৈশিষ্ট্যসম্পন্ন ব্যক্তিসহ সকল প্রতিবন্ধী ব্যক্তির কল্যাণে নিউরো ডেভেলপমেন্টাল প্রতিবন্ধী সুরক্ষা ট্রাস্ট আইন ২০১৩, নিউরো ডেভেলপমেন্টাল প্রতিবন্ধী সুরক্ষা ট্রাস্ট বিধিমালা ২০১৫, প্রতিবন্ধী ব্যক্তির অধিকার ও সুরক্ষা আইন ২০১৩, প্রতিবন্ধী ব্যক্তির অধিকার ও সুরক্ষা বিধিমালা ২০১৫, বাংলাদেশ রিহ্যাবিলিটেশন কাউন্সিল আইন ২০১৮ এবং প্রতিবন্ধিতা সম্পর্কিত সমন্বিত বিশেষ শিক্ষা নীতিমালা ২০১৯ প্রণয়ন করেছে।’

‘এসব আইনের সফল বাস্তবায়নে যথাযথ কর্মপরিকল্পনা গৃহীত হয়েছে। বাংলাদেশ অটিজম বিষয়ক জাতীয় উপদেষ্টা কমিটির চেয়ারপারসন সায়মা ওয়াজেদ হোসেন এর নিরলস প্রচেষ্টায় জাতীয় ও আন্তর্জাতিক পর্যায়ে অটিজম বিষয়ে ব্যাপক সচেতনতা সৃষ্টিসহ দেশের অটিজম বৈশিষ্ট্যসম্পন্ন ব্যক্তি ও প্রতিবন্ধী ব্যক্তিদের কল্যাণে আমরা বিভিন্ন কার্যক্রম বাস্তবায়ন করছি।’

তিনি বলেন, ‘আমাদের সরকার অটিজম বৈশিষ্ট্যসম্পন্ন ব্যক্তিসহ সকল প্রতিবন্ধী ব্যক্তির সার্বিক উন্নয়ন ত্বরান্বিত করতে এবং সমাজ ও রাষ্ট্রের সকল স্তরে তাদের অন্তর্ভূক্তি তথা ক্ষমতায়নকে বিশেষ প্রাধান্য দিতে তাদের জন্য বিশেষ বিদ্যালয় প্রতিষ্ঠা করেছে এবং মূলধারার বিদ্যালয়সমূহে যেন অন্তর্ভূক্তিমূলক পড়াশোনার পরিবেশ নিশ্চিত হয় সে লক্ষ্যে কাজ করে যাচ্ছে। আমরা তাদের চিকিৎসাসেবা প্রদানে শিশু বিকাশ কেন্দ্র এবং প্রতিবন্ধী সেবা ও সাহায্য কেন্দ্র স্থাপন করেছি।’

‘পাশাপাশি, অটিজম বৈশিষ্ট্যসম্পন্ন ব্যক্তিসহ সকল প্রতিবন্ধী মানুষকে শতভাগ ভাতার আওতায় আনা হয়েছে এবং প্রতিবন্ধী শিক্ষার্থীদের জন্য শিক্ষা উপবৃত্তিসহ প্রশিক্ষণের ব্যবস্থা করা হয়েছে। অটিজম বৈশিষ্ট্যসম্পন্ন ব্যক্তিসহ সকল প্রতিবন্ধী মানুষের যোগাযোগ, শিক্ষা, সামাজিক দক্ষতা, স্পিচ বা ল্যাঙ্গুয়েজ দক্ষতা উন্নয়নে প্রযুক্তির ব্যবহারের পাশাপাশি তাদের জীবনমান উন্নয়নে এ সকল কার্যক্রম অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখছে।’

সরকারপ্রধান আরো বলেন, ‘করোনা মহামারিতে অটিজম বৈশিষ্ট্যসম্পন্ন ব্যক্তির অনলাইন প্রশিক্ষণ ও ক্লাস এবং সুযোগ-সুবিধা প্রদান অব্যাহত রাখা হয়েছে। আমি প্রত্যাশা করি, বর্তমান বিশ্ব বাস্তবতায় আমাদের সরকার গৃহীত নানামুখী উদ্যোগের ফলে তাদের জীবন আরো উন্নত ও আনন্দময় হবে। আমি বিশ্ব অটিজম সচেতনতা দিবস ২০২১ উপলক্ষে গৃহীত সকল কর্মসূচির সার্বিক সাফল্য কামনা করছি।’

চাঁপাইনবাবগঞ্জে চোলাই মদসহ আটক ১

 নিজস্ব প্রতিবেদক, চাঁপাইনবাবগঞ্জ : চাঁপাইনবাবগঞ্জ সদর উপজেলার ঝিলিম ইউনিয়নের বুলনপুর আতাহার এলাকায় মসজিদের পেছনের আম বাগানের ভেতর অভিযান চালিয়ে ১০০ বোতল চোলাই মদসহ ১ যুবককে আটক করেছে পুলিশ। আটককৃত আসামি চাঁপাইনবাবগঞ্জ সদর উপজেলার ঝিলিম ইউনিয়নের বুলনপুর আতাহার এলাকার সাদিকুল ইসলামের ছেলে মো. ইসমাইল হোসেন (১৯)। জানাগেছে, পুলিশ সুপার এএইচএম আবদুর রকিব বিপিএম পিপিএম (বার) নির্দেশনায় ও সদর মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ ওসি মো. মোজাফফর হোসেনের তত্বাবধানে এসআই মো. ওসমান গণি সঙ্গীয় ফোর্সসহ অভিযান টি চালায়। গোপন সংবাদের ভিত্তিতে ২ এপ্রিল দুপুর ২ টার দিকে অভিযান টি চালায় পুলিশ। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে আটককৃত আসামি মাদক ব্যবসার সাথে জড়িত থাকার কথা স্বীকার করেছে। এ ঘটনায় থানায় একটি মামলা রুজু করা হয়।

গোমস্তাপুরে মহানন্দা নদীতে ডুবে ছাত্রের মৃত্যু

গোমস্তাপুর (চাঁপাইনবাবগঞ্জ) প্রতিনিধি ঃ চাঁপাইনবাবগঞ্জের গোমস্তাপুরে মহানন্দা নদীতে ডুবে মাহফুজুর রহমান (বাপ্পি) (১৬) নামে এক ছাত্রের মৃত্যু হয়েছে। শনিবার দুপুরে উপজেলার গোমস্তাপুর ইউনিয়নের মহানন্দা নদীর শ্বশানঘাট এলাকায় গোসল করতে নেমে এ ঘটনা ঘটে। বাপ্পি রাজশাহী গোদাগাড়ীী উপজেলার মহনপুর ইউনিয়নের মির্জাপুর গ্রামের মউনউদ্দিনের ছেলে। সে গোমস্তাপুর পাইলট উচ্চ বিদ্যালয়ের ১০ শ্রেনীর ছাত্র ছিল।
মৃত বাপ্পির মামা ফরহাদ আলী জানান, শনিবার দুপুর প্রায় ২টার দিকে আত্মীয়দের সাথে মহানন্দা নদীর শ্বশানঘাটে গোসল করতে নেমে পানিতে ডুবে যায়। পরে স্থানীয় লোকজন নদীতে অনেক খোঁজাখুজি করে তার ভাসমান মরদেহ উদ্ধার করে। গত বছর মামার বাড়ি গোমস্তাপুরের বাজারপাড়া গ্রামে পড়ালেখার করার জন্য থাকত বলে তিনি জানান।
গোমস্তাপুর থানার উপপরিদর্শক জাহিদ হোসেন জানান, পিতা-মাতা ও মামার কোন প্রকার অভিযোগ না থাকায় প্রাথমিক সুরতহাল শেষে পরিবারের নিকট লাশ হস্তান্তর করা হয়েছে।

Seven UK blood clot deaths after AstraZeneca vaccine

The UK medical regulator received 30 reports of thrombosis.PHOTO: AFP

The UK medical regulator said Saturday (April 3) that out of 30 people who suffered blood clots after receiving the Oxford-AstraZeneca vaccine, seven have died.

The British acknowledgement of deaths comes as several European countries have paused the use of the AstraZeneca jab over a potential link to blood clots.

The UK’s Medicines and Healthcare products Regulatory Agency said in a statement that “out of the 30 reports up to and including 24 March, sadly seven have died”.

The Netherlands on Friday halted vaccinations with the AstraZeneca jab for people under the age of 60 after five new cases among women, one of whom died.

Germany took a similar decision earlier this week.

The European Medicines Agency (EMA), which like the World Health Organisation previously declared the AstraZeneca vaccine safe, is expected to announce updated advice on the issue on April 7.

The EMA said again on Wednesday it believes the vaccine is safe and that experts have found no specific risk factors such as age, gender or medical history.

The UK regulator said that the 30 reports of thrombosis, submitted by medics or members of the public via a government website, came after 18.1 million doses of the vaccine had been administered in the country.

Most of the cases (22) were cerebral venous sinus thrombosis, a rare condition when a blood clot forms in the brain.

Eight other cases saw people suffer thrombosis and low levels of blood platelets, which help blood clot.

There were no reports of blood clots from the Pfize-/BioNTech vaccine it said, adding that “our thorough review into these reports is ongoing.”

The regulator’s website says that on the basis of current data, the benefits of the vaccines against Covid-19 “continue to outweigh any risks”.

AstraZeneca said last month, following US efficiency trials, that its vaccine is 79 per cent effective at preventing the disease and does not increase the risk of blood clots.

The UK has administered more than 31 million first vaccine doses, using both the Oxford-AstraZeneca and the Pfizer-BioNTech jabs. People cannot choose which one they get.

The UK in June 2020 ordered 100 million doses of the Oxford-AstraZeneca vaccine and supported its development. It also ordered 30 million doses of the Pfizer-BioNTech vaccine the same year.

AFP/ALM

COVID: 58 deaths, 5,683 cases reported in a day

Bangladesh on Saturday reported 58 deaths and 5,683 cases from novel coronavirus in the last 24 hours until 8:00 am.

With the new figure, the total death toll reached 9,213 and cases to 6,30,277 in the country.

The Directorate General of Health Services (DGHS) confirmed the matter through a press release signed by Prof Dr Nasima Sultana, Additional Director General of DGHS, on today afternoon.

করোনায় শিক্ষক নিবন্ধনের মৌখিক পরীক্ষা , এমবিবিএস সহ আরও যেসব স্থগিত

দেশে করোনা ভাইরাস পরিস্থিতির ক্রমাগত অবনতি হওয়ায় আগামী সোমবার (৫ এপ্রিল) থেকে এক সপ্তাহের জন্য সারাদেশে লকডাউন ঘোষণা করেছে সরকার। লকডাউনের কারণে চলমান ১৬তম শিক্ষক নিবন্ধনের মৌখিক পরীক্ষা আগামীকাল রোববার (৪ এপ্রিল) থেকে স্থগিত করা হয়েছে।

 

দেশে লকডাউন যতদিন থাকবেন ততদিন এ পরীক্ষা বন্ধ থাকবে। তবে শনিবার (৩ এপ্রিল) পূর্বঘোষিত মৌখিক পরীক্ষা চলছে। এ নিয়ে শনিবার দুপুরে বৈঠক ডাকা হয়েছে বলে জানা গেছে। বেসরকারি শিক্ষক নিবন্ধন কর্তৃপক্ষ (এনটিআরসিএ) সূত্রে এমন তথ্য জানা গেছে।

এ বিষয়ে বেসরকারি শিক্ষক নিবন্ধন কর্তৃপক্ষের (এনটিআরসিএ) সচিব (উপসচিব) ড. এ. টি. এম. মাহবুব-উল করিম গণমাধ্যমকে বলেন, শনিবারের মৌখিক পরীক্ষাগুলো চলছে। স্থগিত করা হয়েছে রোববারের মৌখিক পরীক্ষা। যতদিন লডডাউন চলবে ততদিন এসব পরীক্ষা স্থগিত থাকবে।

তিনি আরো বলেন, লকডাউনের কারণে শিক্ষক নিবন্ধনের অন্যান্য বিষয়ে সিদ্ধান্ত নিতে শনিবার একটি বৈঠক ডাকা হয়েছে।

প্রসঙ্গত, গত বছর নভেম্বরে ১৬তম শিক্ষক নিবন্ধনের লিখিত পরীক্ষার ফলাফল প্রকাশ করা হয়। এতে মোট ২২ হাজার ৩৯৮ জন প্রার্থী উত্তীর্ণ হয়। লিখিত পরীক্ষায় উত্তীর্ণ প্রার্থীদের মৌখিক পরীক্ষা শুরু হয় ২ ডিসেম্বর থেকে। চলতি মাসের মধ্যে এ মৌখিক পরীক্ষা শেষ করে মে মাসের মধ্যে ১৬তম শিক্ষক নিবন্ধন পরীক্ষার ফল প্রকাশ করার কথা রয়েছে। তবে লকডাউনে দীর্ঘায়িত হলে এ পরীক্ষা চূড়ান্ত ফল পিছিয়ে যেতে পারে।

গত বছরের ৮ মার্চ দেশে প্রথম তিনজনের দেহে করোনাভাইরাস শনাক্ত হয়। এর ১০ দিন পর ১৮ মার্চ দেশে এ ভাইরাসে আক্রান্ত প্রথম একজনের মৃত্যু হয়। সবশেষ চলতি বছরের ২ এপ্রিল পর্যন্ত প্রাণঘাতী করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে দেশে নয় হাজার ১৫৫ জনের মৃত্যু হয়েছে। এখন পর্যন্ত মোট শনাক্তের সংখ্যা ছয় লাখ ২৪ হাজার ৫৯৪ জন।

এছাড়াও এ কারনে  এমবিবিএস পরীক্ষা স্থগিত করা হয়েছে। স্থগিত  করা হয়েছে রাজশাহী বইমেলা ।পাশাপাশি করোনার কারনে স্থগিত করা হয়েছে জাতীয় লিগ। তবে ঢাকার বই মেলার বিষয়টি এখনও জানা যায়নি।

এদিকে
আগামীকাল (রোববার) থেকে শুরু হওয়ার কথা থাকলেও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় অধিভুক্ত মেডিকেল কলেজের এমবিবিএস পরীক্ষা স্থগিত করা হয়েছে।

শনিবার এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানিয়েছে ঢাবি জনসংযোগ বিভাগ।

বিজ্ঞপ্তিতে পরীক্ষা স্থগিতের কারণ সম্পর্কে বলা হয়, রোববার (৪ এপ্রিল) থেকে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় অধিভুক্ত সকল মেডিকেল কলজের পেশাগত ফাইনাল পরীক্ষা স্থগিত করা হয়েছে। স্থগিত পরীক্ষার সময়সূচী পরবর্তীতে জানিয়ে দেয়া হবে।

তবে প্রথম ও দ্বিতীয় পেশাগত এমবিবিএস ম-২০২০ এবং নভেম্বর-২০২০ মৌখিক ও ব্যবহারিক পরীক্ষা স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলবে

করোনায় মারা গেলেন সাদ্দামের বিচারক: আক্রান্ত শচীন

 

করোনায় আক্রান্ত হয়ে মারা গেলেন ইরাকের সাবেক শাসক সাদ্দাম হোসেনের বিচার কার্য পরিচালনাকারী বিচারক মোহাম্মদ ওরেবী আল খলিফা (৫২)।

ইরাকের শীর্ষ বিচারিক সংস্থার পক্ষ থেকে তার মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিক করা হয়েছে।

ইরাকের সুপ্রিম জুডিশিয়াল কাউন্সিলের পক্ষ থেকে জানানো হয়, ওরেবী আল খলিফা করোনা আক্রান্ত হয়ে, শারিরীক নানা জটিলতা নিয়ে বাগদাদের একটি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মৃত্যুবরণ করেন।

প্রসঙ্গত, ওরেবী আল খলিফা ১৯৯২ সালে বাগদাদ বিশ্ববিদ্যালয় থেকে আইন বিষয়ে ডিগ্রী অর্জনের পর ২০০০ সালে সাদ্দাম সরকারই তাকে বিচারক হিসেবে নিয়োগ দান করে। কিন্তু তিনি পাদপ্রদীপের তলায় আসেন যখন ২০০৪ সালে তাকে সাদ্দাম সরকারের বিরুদ্ধে গঠিত ট্রাইব্রুনালের একজন তদন্তকারী বিচারক হিসেবে নিয়োগ দেয়া হয়। পরে অবশ্য তিনি সাদ্দাম সরকার কর্তৃক সংগঠিত গণহত্যার প্রধান বিচারক হিসেবে নিযুক্ত হন। যেখানে সাদ্দামের খালাতো ভাই হাসান আল মাজিদ ওরফে ক্যামিকেল আলীও অভিযুক্ত ছিলেন।

তৎকালীন সময়ে ওরেবী বিচার কার্য চলার সময়ে সাদ্দামের উগ্র আচরণ ও উত্তপ্ত বাক্য বিনিময়ের কারনে তাকে বেশ কয়েকবার কোর্ট রুম থেকে বের করে দিয়ে আলোচিত হন। এছাড়া তিনি সাদ্দামকে একই কারনে বেশ কয়েক দফায় নির্জন কারাবাসের আদেশও শুনিয়েছিলেন ওই সময়।

এদিকে করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন শচিন টেনডুলকার।