সর্বশেষ সংবাদ PM Hasina mourns death of Diego Maradona মেঘ কাটলেই বাড়বে শীত, তেঁতুলিয়ায় সর্বনিম্ন তাপমাত্রা করোনায় ঝরে গেল আরও এক বাংলাদেশি তারকার প্রাণ চাঁপাইনবাবগঞ্জে র‍্যাবের অভিযানে ৮ জুয়াড়ি গ্রেফতার গোমস্তাপুরে ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ আইন বিষয়ক সেমিনার তথ্য-প্রযুক্তির ব্যবহারে বাংলাদেশ বিশ্বে অনুকরণীয় ভ্যাকসিন পেতে সরকারের ৭৩৫ কোটি টাকা ছাড় নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্যের বাজার সহনীয় রাখতে অারও যে সব পণ্য কেনা হবে সোনা মসজিদ স্থলবন্দরে মতবিনিময় সভা ও সহায়তা প্রদান ম্যারাডোনার মরদেহের ময়নাতদন্ত হবে

সশস্ত্র বাহিনী জাতির আস্থার প্রতীক …..প্রধানমন্ত্রী

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সশস্ত্র বাহিনীর প্রতিটি সদস্য মহান মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় উজ্জীবিত হয়ে দেশপ্রেম, পেশাদারিত্ব এবং নৈতিকতার আদর্শে স্ব স্ব দায়িত্ব নিষ্ঠার সঙ্গে পালন করে যাবেন বলে আশা প্রকাশ করেছেন।

সশস্ত্র বাহিনী জাতির আস্থার প্রতীক হিসেবে গড়ে উঠেছে উল্লেখ করে শেখ হাসিনা বলেন, ‘পেশাগত দায়িত্ব পালনের পাশাপাশি সশস্ত্র বাহিনী দুর্যোগ মোকাবেলা, অবকাঠামো নির্মাণ, আর্তমানবতার সেবা, বেসামরিক প্রশাসনকে সহায়তা এবং জাতি গঠনমূলক বিভিন্ন কর্মকাণ্ডে অংশগ্রহণ করছে। জাতিসংঘের শান্তিরক্ষা কার্যক্রমে নিষ্ঠার সঙ্গে দায়িত্ব পালন করে সশস্ত্র বাহিনীর সদস্যরা আন্তর্জাতিক পরিমণ্ডলে দেশের ভাবমূর্তি উজ্জ্বল করছেন। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ‘সশস্ত্র বাহিনী দিবস-২০২০’ উপলক্ষে এক বাণীতে এসব কথা বলেন। এ উপলক্ষে সেনা, নৌ ও বিমান বাহিনীর সব সদস্যকে তিনি আন্তরিক শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন জানান।

এছাড়াও ঐতিহাসিক এ দিনে প্রধানমন্ত্রী বাংলাদেশের স্বাধীনতা সংগ্রাম ও মুক্তিযুদ্ধের সব বীর শহীদ এবং মাতৃভূমির জন্য জীবন উৎসর্গকারী সশস্ত্র বাহিনীর শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন এবং দিবসটির সার্বিক সাফল্য কামনা করেন। শেখ হাসিনা বলেন, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের উদাত্ত আহ্বানে সাড়া দিয়ে বাঙালি জাতি ১৯৭১ সালে মহান মুক্তিযুদ্ধে ঝাঁপিয়ে পড়ে। তার দূরদর্শী, সাহসী এবং ঐন্দ্রজালিক নেতৃত্বে বাঙালি জাতি পরাধীনতার শৃঙ্খল ভেঙে ছিনিয়ে আনে স্বাধীনতার রক্তিম সূর্য আর লাল-সবুজের পতাকা।

তিনি বলেন, ‘আমাদের মহান স্বাধীনতা যুদ্ধের ইতিহাসে ২১ নভেম্বর একটি বিশেষ গৌরবময় দিন। আওয়ামী লীগের নেতৃত্বে পরিচালিত মুক্তিযুদ্ধ চলাকালীন ১৯৭১ সালের এ দিনে সেনা, নৌ ও বিমান বাহিনীর অকুতোভয় সদস্যরা সম্মিলিতভাবে দখলদার বাহিনীর বিরুদ্ধে পাল্টা আক্রমণের সূচনা করেন। মুক্তিবাহিনী, বিভিন্ন আধাসামরিক বাহিনীর সদস্যগণ ও দেশপ্রেমিক জনতা এই সমন্বিত আক্রমণে একতাবদ্ধ হন। দখলদার বাহিনী আত্মসমর্পণে বাধ্য হয়।’

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘হানাদার পাকিস্তানি বাহিনীকে পরাজিত করে ১৬ ডিসেম্বর আমরা চূড়ান্ত বিজয় অর্জন করি। মহান মুক্তিযুদ্ধে বাঙালি জাতির অগ্রযাত্রা ও বিজয়ের স্মারক হিসেবে প্রতি বছর ২১ নভেম্বর ‘সশস্ত্র বাহিনী দিবস’ পালন করা হয়।’ স্বাধীনতার পর জাতির পিতা একটি আধুনিক ও চৌকস সশস্ত্র বাহিনী গড়ে তোলার কাজ শুরু করেন উল্লেখ করে শেখ হাসিনা বলেন, সেনাবাহিনীর জন্য তিনি মিলিটারি একাডেমি, কম্বাইন্ড আর্মড স্কুল ও প্রতিটি কোরের জন্য ট্রেনিং স্কুলসহ আরও অনেক সামরিক প্রতিষ্ঠান এবং ইউনিট গঠন করেন। তিনি চট্টগ্রামে বাংলাদেশ নৌবাহিনী ঘাঁটি ঈসা খাঁ উদ্বোধন করেন। বঙ্গবন্ধুর ব্যক্তিগত উদ্যোগে তৎকালীন যুগোশ্লাভিয়া থেকে নৌবাহিনীর জন্য দুটি জাহাজ সংগ্রহ করা হয়। বিমান বাহিনীর জন্য তিনি তৎকালীন সোভিয়েত ইউনিয়ন থেকে সুপারসনিক মিগ-২১ জঙ্গি বিমানসহ হেলিকপ্টার, পরিবহন বিমান ও রাডার সংগ্রহ করেন।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ২০০৯ সালে সরকার পরিচালনার দায়িত্ব গ্রহণের পর থেকে সশস্ত্র বাহিনীর আধুনিকায়নে তার সরকার নিরলস কাজ করে যাচ্ছে। সেনা, নৌ এবং বিমান বাহিনীকে দেশে ও বিদেশে উন্নততর প্রশিক্ষণ প্রদানসহ আধুনিক প্রযুক্তিসম্পন্ন সরঞ্জাম দিয়ে সজ্জিত করেছেন। জাতির পিতার নির্দেশে একটি স্বাধীন ও সার্বভৌমত্ব রাষ্ট্রের উপযোগী ১৯৭৪ সালে প্রণীত প্রতিরক্ষা নীতিমালার আলোকে ফোর্সেস গোল-২০৩০ প্রণয়ন করা হয়েছে এবং এর আওতায় তিন বাহিনীর পুনর্গঠন ও আধুনিকায়নের কার্যক্রমসমূহ পর্যায়ক্রমে বাস্তবায়ন করা হচ্ছে বলে জানান তিনি।

করোনার মধ্যেও দেশের উন্নয়ন থেমে নেই।

নৌপরিবহন প্রতিমন্ত্রী খালিদ মাহমুদ চৌধুরী বলেছেন, জননেত্রী প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার যোগ্য নেতৃত্বের কারণেই করোনার মধ্যেও দেশের অর্থনীতির চাকা সচল রয়েছে। করোনার মধ্যেও দেশের উন্নয়ন থেমে নেই। দেশ আজ

উন্নয়নের শিখরে অবস্থান করছে। দেশের প্রতিটি এলাকার জরাজীর্ণ রাস্তাঘাট সংস্কার করাই হচ্ছে বর্তমান সরকারের প্রধান লক্ষ্য। তিনি বলেন, গ্রাম আর গ্রাম নেই, প্রতিটি গ্রাম শহরে পরিণত হয়েছে। রাস্তাঘাট, স্কুল-কলেজ, ব্রিজ-কালভার্টসহ বিভিন্ন উন্নয়নমূলক কাজ হওয়ায় গ্রামের চিত্র পাল্টে গেছে। প্রাথমিক বিদ্যালয়গুলোতে মানসম্মত শিক্ষাব্যবস্থা নিশ্চিতকরণে পর্যাপ্ত শ্রেণিকক্ষ নির্মাণ করা হচ্ছে। করোনাকালে স্কুল-কলেজ বন্ধ থাকলেও বিকল্প হিসেবে অনলাইনে ক্লাসের ব্যবস্থা চালু করা হয়েছে। করোনা পরিস্থিতি মোকাবিলায় ডিসি, এসপি ও অন্যান্য পুলিশ কর্মকর্তাসহ সরকারি ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা কাঁধে করে ত্রাণসামগ্রী ঘরে ঘরে পৌঁছে দিচ্ছেন। জননেত্রী শেখ হাসিনা করোনার এ সময়ে ডাক্তার, নার্স ও ধর্মীয় নেতাসহ সবার সঙ্গে কথা বলেছেন। করোনা মোকাবিলায় প্রধানমন্ত্রী ফান্ড তৈরির ঘোষণা দিয়েছেন। তিনি আরও বলেন, মুজিব শতবর্ষ উপলক্ষে ভ‚মিহীন ও গৃহহীনরা প্রধানমন্ত্রীর উপহারস্বরূপ ঘর পাচ্ছে। কেউ আর গৃহহীন থাকবে না।
শুক্রবার সকালে বোচাগঞ্জ উপজেলায় এলজিইডি কর্তৃক ১০ কোটি ১৩ লাখ টাকা ব্যয়ে ৯টি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের অতিরিক্ত শ্রেণিকক্ষের নির্মাণ, দুটি পাকা রাস্তার নির্মাণকাজের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন এবং মুজিব বর্ষে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার উপহার সমতলে বসবাসরত ক্ষুদ্র নৃগোষ্ঠীভুক্ত মানুষের জীবনমান উন্নয়নে গৃহীত কার্যক্রমের আওতায় ১০টি বাড়ি নির্মাণকাজের উদ্বোধন করা হয়। এতে প্রধান অতিথির বক্তব্যে নৌ প্রতিমন্ত্রী এ কথা বলেন।
বোচাগঞ্জ ইউএনও ছন্দা পালের সভাপতিত্বে অন্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন সেতাবগঞ্জ পৌরসভার মেয়র আব্দুস সবুর, বোচাগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মো. আফছার আলী, উপজেলা প্রকৌশলী মো. আনোয়ার হোসেন ও উপজেলা শিক্ষা অফিসার আবু সায়েম মো. তৌহিদুল্লাহ।

করোনাকালে ঋণ শোধে অনন্য কৃষক

যখন বড় বড় ব্যবসায়ীর কাছ থেকে ঋণ আদায়ে গলদঘর্ম অবস্থা ব্যাংকগুলোর, তখন ঋণ পরিশোধের অনন্য দৃষ্টান্ত তৈরি করে চলেছেন দেশের কৃষকরা।

করোনায় পুরো অর্থনীতি যেখানে বিপর্যস্ত, সেখানে চলতি অর্থবছরের প্রথম চার মাসে (জুলাই-অক্টোবর) ৮ হাজার ৪৫৭ কোটি টাকা ঋণ শোধ করেছেন তারা। গত বছরের একই সময়ের তুলনায় আদায় বেড়েছে প্রায় ১ হাজার ৭০০ কোটি টাকা।

গত ২০১৯-২০ অর্থবছরের জুলাই-অক্টোবর সময়ে কৃষিঋণ আদায় হয়েছিল ৬ হাজার ৭৫৮ কোটি টাকা।

বাংলাদেশ ব্যাংকের হালনাগাদ করা পরিসংখ্যান থেকে এসব তথ্য পাওয়া গেছে।

বাংলাদেশ ব্যাংকের কৃষিঋণ বিভাগের মহাব্যবস্থাপক মো. আবদুল হাকিম নিউজবাংলাকে বলেন, ‘কৃষিঋণ আদায় বাড়ানোর বিষয়ে ব্যাংকগুলোর প্রতি চাপ নেই। বরং আমরা বিতরণ বাড়াতে চাপ দিচ্ছি।‘

তার মতে, কৃষকদের মধ্যে সচেতনতা বাড়ায়, আদায় বাড়ছে।

বাংলাদেশ ব্যাংকের সাবেক ডেপুটি গভর্নর ও বাংলাদেশ কৃষি ব্যাংকের সাবেক চেয়ারম্যান খোন্দকার ইব্রাহিম খালেদ বলেন, ’কৃষকদেরকে ঋণ দিতে অনেক ব্যাংক অনীহা থাকে। কিন্তু এরা ঋণ ফেরতের দিক দিয়ে এগিয়ে। কারণ তারা ক্ষমতাহীন।

‘টাকা ফেরত না দিলে ঠিকেই বিপদে পড়বে। এই ভয়ে তারা টাকা দিয়ে দেয়। কিন্তু শিল্প খাতে বড় বড় ঋণ খেলাপি হয়ে যাচ্ছে। এগুলোর বেশির ভাগই জালজালিয়াতি করে টাকাগুলো বের করে নেয়া হয়েছে। এর অনেক শক্তিশালী। তফাতটা এখানেই।’

বন্যা কবলিত এলাকায় কৃষি ঋণ আদায় বন্ধ রাখার পরও, আদায়ের এ চিত্র নিঃসন্দেহে প্রসংশার দাবি রাখে।

চলতি বছরের ২৩ জুলাই বন্যা কবলিত এলাকায়, পরিস্থিতি উন্নতি না হওয়া পর্যন্ত কৃষিঋণ আদায় স্থগিত রাখার নির্দেশ দেয় বাংলাদেশ ব্যাংক। চালু রাখতে বলা হয়, নতুন ঋণ বিতরণ কর্মসূচিও।

এ সময়ে নতুন করে ছয় হাজার ৬২৯ কোটি টাকা ঋণ পান কৃষকরা, যা বছরের লক্ষ্যমাত্রার ২৫ দশমিক ২২ শতাংশ। গত বছরের একই সময়ের চেয়ে টাকার অঙ্কে যা ৩১৮ কোটি টাকা বেশি।

চলতি অর্থবছরে ৫৯টি ব্যাংকের ২৬ হাজার ২৯২ কোটি টাকা কৃষিঋণ বিতরণের লক্ষ্যমাত্রা রয়েছে।

পরিসংখ্যান বলছে, চলতি বছরের জুলাই থেকে অক্টোবর পর্যন্ত শস্য উৎপাদনে তিন হাজার ৫৪৩ কোটি টাকা ঋণ বিতরণ করেছে ব্যাংকগুলো। পাশাপাশি সেচ যন্ত্র কিনতে ৫৬ কোটি টাকা, কৃষি যন্ত্রপাতি কিনতে ৪২ কোটি টাকা, পশুপাখি ও হাঁস মুরগি পালনে ১ হাজার ৬৫ কোটি টাকা, মাছ চাষে ৭২৪ কোটি টাকা, শস্য সংরক্ষণ ও বিপণনে ৪০ কোটি টাকা ঋণ দিয়েছে ব্যাংকগুলো।

সৈয়দ মনিরুল ইসলামের বিশাল শোডাউন

চাঁপাইনবাবগঞ্জের শিবগঞ্জ পৌর নির্বাচনকে সামনে রেখে প্রায় তিন হাজার মোটরসাইকেল নিয়ে নির্বাচনী শোডাউন করেছেন মেয়র পদে দলীয় মনোনয়ন প্রত্যাশী সৈয়দ মনিরুল ইসলাম।

জাবি ছাত্রলীগের সালাম-বরকত হলের সাবেক সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ মনিরুল ইসলাম শনিবার (২১ অক্টোবর) বিকেলে আওয়ামী লীগের নেতাকর্মী ও তার সমর্থকদের নিয়ে তিনি এই শোডাউন দেন।

তবে শোডাউনের সময় নেতা-কর্মী ও সমর্থকরা মোটরসাইকেলে থাকলেও তিনি একটি হুড খোলা অটোরিকশায় হাত নেড়ে নেড়ে ভোটারদের সাথে শুভেচ্ছা বিনিময় করেন।

মোটরসাইকেলের পাশাপাশি অটোরিকশায় প্রার্থীর এমন ব্যতিক্রমী শোডাউন স্থানীয়দের মাঝে ব্যপক সাড়া ফেলেছে।

শোডাউনটি উপজেলার জালমাছমারি থেকে শুরু হয়ে রসলপুর মোড়, সেকটোলা, স্টেডিয়াম, শিবগঞ্জ বাজার, বেঁকির মোড়, ইসরাইল বাজার, মর্দনা সহ পৌর এলাকার গুরুত্বপূর্ণ সড়ক, হাটবাজার ও মোড়সহ বিভিন্ন এলাকা প্রদক্ষিণ করে পৌর চত্ত্বরে এসে শেষ হয়।

শেষে শিবগঞ্জ বাজারে এক পথসভা অনুষ্ঠিত হয়।

এসময় সৈয়দ মনিরুল ইসলাম বলেন, মানুষের সাথে মিলেমিশে সুখে-দুঃখে তাদের পাশে দাঁড়িয়েছি। এলাকায় মাদক, সন্ত্রাস ও অবৈধ কর্মকাণ্ড নির্মূল করে সরকারের উন্নয়নের ধারা অব্যাহত রাখতে আসন্ন শিবগঞ্জ পৌরসভা নির্বাচনে নৌকা প্রতীকের প্রার্থী হতে চাই।

তিনি বলেন, আমি দৃঢ়ভাবে বিশ্বাস করি যদি তৃণমূলের জনপ্রিয়তার ভিত্তিতে মনোনয়ন দেওয়া হয় তাহলে আমাকে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন থেকে বঞ্চিত হতে হবে না।

তিনি আরো বলেন, তিনি ছাড়া যদি প্রধানমন্ত্রী অন্য কাউকে নৌকা প্রতীক দেন তার পক্ষেও কাজ করবেন।

প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বর্তমান সরকার ধারাবাহিকভাবে জনগণের জীবনমান উন্নয়নের শিখরে পৌঁছে দিয়েছেন এবং বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট, পদ্মা সেতু ও পারমাণবিক বিদ্যুৎকেন্দ্রসহ বিভিন্ন উন্নয়ন করেছেন। সাধারণ মানুষ শান্তিতে আছে। এর ধারাবাহিকতা বজায় রাখতে সাধারণের মানুষের কাছে নৌকায় ভোট দেয়ার আহ্বান জানান তিনি।

সোনামসজিদ স্থলবন্দর সিএন্ডএফ এজেন্ট এ্যাসোসিয়েশনের নব-নির্বাচিত কমিটির শপথ গ্রহণ



চাঁপাইনবাবগঞ্জ প্রতিনিধি

শনিবার সোনামসজিদ স্থলবন্দর সিএন্ডএফ এজেন্ট এ্যাসোসিয়েশনের নব-নির্বাচিত কমিটির শপথ ও দায়িত্ব গ্রহণ অনুষ্ঠিত হয় । অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি শিবগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী অফিসার সাকিব আল রাব্বি সকলকে নিরপেক্ষ এবং নিষ্ঠার সাথে স্থলবন্দরের কার্যক্রম পরিচালনার অনুরোধ জানান এবং কোন রকমের অনিয়ম বা দূর্ণীতির প্রমান পেলে প্রয়োজনীয় এবং সঠিক পথেই চলবে প্রশাসন বলেও জানান তিনি।
দেশের দ্বিতীয় বৃহত্তম স্থলবন্দর চাঁপাইনবাবগঞ্জের সোনামসজিদ শুল্ক স্থলবন্দর সিএন্ডএফ এজেন্ট এ্যাসোসিয়েশনের নব-নির্বাচিত কমিটিকে শনিবার দুপুরে সোনামসজিদ পর্যটন মোটেলের হলরুমে শপথ বাক্য পাঠ করান এ্যাসোসিয়েশনের সাবেক সভাপতি মবিনুর রহমান মিঞা। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন শিবগঞ্জ উপজেলার নির্বাহী কর্মকর্তা সাকিব আল রাব্বি। এসময় স্থলবন্দরের পূর্বের অবস্থানের কথা তুলে ধরে বক্তব্য রাখেন, এ্যাসোসিয়েশনের সাবেক সভাপতি সি এন্ড এফ এজেন্ট ফয়সাল এন্টারপ্রাইজের প্রোপাইটর আশরাফুল আলম রশিদ, আবুল হাসনাত দুরুল। স্থলবন্দরের বর্তমান বেহাল দশা থেকে মুক্তিসহ বিভিন্ন বিবরণ তুলে ধরে বক্তব্য রাখেন নির্বাচন পরিচালনা কমিটি আহবায়ক শওকত জাহিদুল ইসলাম প্রিন্স, স্থলবন্দর সিএন্ডএফ এজেন্ট এ্যাসোসিয়েশনের নির্বাচনের প্রধান নির্বাচন কমিশনার মো. আব্দুল গফুর, জয়নাল আহমেদ, বিশিষ্ট ব্যবসায়ী আতাউর রহমান রাজুসহ অন্যরা। এসময় সোনামসজিদ শুল্ক স্থলবন্দর সিএন্ডএফ এজেন্ট এ্যাসোসিয়েশনের নব-নির্বাচিত কমিটির নির্বাচিত সদস্য সিনিয়র সহ-সভাপতি মো. সৈবুর রহমান, সহ-সভাপতি মো. খাইরুল ইসলাম, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মো. মেসবাহুল ইসলাম, সহ-সাধারণ সম্পাদক মো. জাহাঙ্গীর আলম, অর্থ ও দপ্তর সম্পাদক এস.এম ফিরোজ খান, কাস্টমস্ ও বন্দর সম্পাদক মো. নাসিরুদ্দিন, কার্যনির্বাহী সদস্য মো. জহিরুল ইসলাম বাদল, মো. সেলিমুজ্জামান, মো. তৈয়নুর রহমান, মো. মতিউর রহমান। তবে অসুস্থতা জনিত কারণে শপথ গ্রহণ অনুষ্ঠানে উপস্থিত হতে পারেন নি কার্যনির্বাহী সদস্য মোসা. পলি বেগম। শেষে নির্বাচিত সদস্যদের ফুলেল শুভেচ্ছা জানান নির্বাচিত কমিটির সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক। এছাড়াও নির্বাচনের সাথে সংশ্লিষ্ট সকলকে ফুলেল শুভেচ্ছা জানান সভাপতি মবিনুর রহমান মিঞা ও আশরাফুল আলম রশিদ। পরে নির্বাচিত কমিটির সফলতা ও স্থলবন্দরের সকল সম্যসা সমাধান কামনা ও অসুস্থ সদস্যের সুস্থতা কামনা করে বিশেষ দোয়া করা হয়। শপথ গ্রহণ অনুষ্ঠানে পানামা পোর্ট লিংক লিমিটেডের ম্যানেজার মো. মাইনুল ইসলাম, সোনামসজিদ স্থলবন্দরের সিএন্ডএফ ব্যবসায়ীরা, জেলার স্থানীয় দৈনিক পত্রিকার সম্পাদকগণ ও বিভিন্ন প্রিন্ট ও ইলেক্ট্রনিক মিডিয়াকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন। উল্লেখ্য, দীর্ঘ ১১ বছর পর সোনামসজিদ স্থলবন্দরের নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয় ৭ নভেম্বর।

গোমস্তাপুরে করোনা সচেতনতা বৃদ্ধির লক্ষ্যে অভিযান

গোমস্তাপুর (চাঁপাইনবাবগঞ্জ) প্রতিনিধিঃ
আসন্ন শীত মৌসুমে করোনা ভাইরাসের প্রাদুর্ভাব দ্বিতীয় ধাপে বেড়ে যাওয়ায়, করোনা সচেতনতায় জনসাধারণের মাঝে বৃদ্ধির লক্ষে মোবাইল কোর্ট অভিযান পরিচালনা করা হয়েছে।শনিবার দুপুরে গোমস্তাপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মিজানুর রহনান এ  মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করেন । রহনপুর পুরাতন বাজার,খোয়াড়মোর ও কলেজ মোড়ের বিভিন্ন ব্যবসা প্রতিষ্ঠান হোটেল, ফলের দোকান,কাপড়ের দোকান,ভ্যারাইটিজ স্টোর ও সাধারণ মানুষের মাঝে স্বাস্থ্যবীধি মেনে না চলায় মোট  ১০হাজার ৩’শ’ টাকা জরিমানা করা হয়। এ সময় তিনি সাধারণ মানুষের মাঝে  করোনা সচেতনতা বৃদ্ধির জন্য সকলকে মাস্ক পরিধান করার নির্দেশ প্রদান করেন।

ভোলাহাটে প্রতিবন্ধীদের আর্থিক সহায়তা প্রদান


ভোলাহাট(চাঁপাইনবাবগঞ্জ)প্রতিনিধিঃ ভোলাহাট উপজেলায় ২৩ জন প্রতিবন্ধীকে সাফল্য ব্যবসায়ী সমবায় সমিতির আর্থিক সহায়তা প্রদান করেছে। ২১ নভেম্বর শনিবার সকাল ১১ টার দিকে উপজেলা কলেজমোড় একতা মার্কেট (২য় তলায়) নিস্বজ অফিসে প্রতিবন্ধীদের মাঝে সহায়তা প্রদান করেন।
অনুষ্ঠানে সাফল্য ব্যবসায়ী সমবায় সমিতির নির্বাহী সম্পাদক তাইজুল ইসলামের সভাপত্বিতে প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন ভোলাহাট প্রেসক্লাবের সভাপতি ও সাপ্তাহিক ভোলাহাট সংবাদের প্রকাশক-সম্পাদক গোলাম কবির, বিশেষ অতিথি ছিলেন, সমিতির উপদেষ্টা বুলবুল আহমেদ। অন্যানের মধ্যে উপস্থিত থেকে বক্তব্য রাখেন, আব্দুর রহমান, সুশাসনের জন্য নাগরিক সুজন ভোলাহাট উপজেলা শাখার সাধারণ সম্পাদক বিএম রুবেল আহমেদসহ অন্যরা। উপজেলার বিভিন্ন গ্রামের বিভিন্ন প্রকার ২৩ জন প্রতিবন্ধীকে অর্থিক সহায়তা প্রদান করা হয়। এসময় শারীরিক প্রতিবন্ধী রমানা ও বাক প্রতিবন্ধী রজিনা তাদের প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করেন। এসময় একতা মার্কেটের অফিসের কার্যক্রম উদ্বোধন করা হয়। অনুষ্ঠানে নির্বাহী সম্পাদক তাইজুল ইসলাম বলেন, প্রতিবন্ধীদের নিয়ে আগামীতে আরো ভালো কাজ করার চিন্তা ভাবনা রয়েছে। তিনি তার প্রত্যেকটি অফিসে বিনা শর্তে একজন করে শিক্ষিত প্রতিবন্ধীকে কর্মসংস্থানের সুযোগ করে দেওয়ার প্রত্যয় ব্যক্ত করেন। অনুষ্ঠান সঞ্চলনা করেন, সমিতির ভোলাহাট অফিসের ম্যানেজার জাহিদ গোলাপ।

শিবগঞ্জে রাত্রিকালিন ক্রিকেট টুর্নামেন্টের উদ্বোধন

শিবগঞ্জ (চাঁপাইনবাবগঞ্জ) প্রতিনিধি:
চাঁপাইনবাবগঞ্জের শিবগঞ্জ উপজেলার চককীর্তি ইউনিয়নের সূর্যের হাসি পাড়োটোলা ক্লাবের উদ্যেঅগে নাইট মিনি ক্রিকেট টুর্নামেন্টের উদ্বোধন করা হয়েছে। শুক্রবার রাতে রাণীবাড়ি পাড়োটোলা এলাকায় টুর্নামেন্টের উদ্বোধন করেন উপজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক কৃষি বিষয়ক সম্পাদক ও সম্ভাব্য ইউপি চেয়ারম্যান প্রার্থী আনোয়ার হাসান আনু মিঞা। কিশোর-যুবকদের অবক্ষয় রোধে খেলাধুলার বিকল্প নেই উল্লেখ করে তিনি বলেন, ছেলেরা এখন আর মাঠে খেলে না। ছোটবেলায় আমরা মাঠে খেলার জন্য এবং সন্ধ্যার আগে বাসায় না ফেরার জন্য প্রতি সপ্তাহে বাবা-মা’র বকা শুনতাম। আর এখনকার ছেলেদের জোর করে মাঠে পাঠাতে হয়। বিষয়টা উল্টো হয়ে গেছে। আসলে খেলাধুলার কোনো বিকল্প নেই। সেই জন্য খেলাধুলার আয়োজনও করতে হবে। আয়োজন না থাকলে তো ছেলে-মেয়েরা খেলাধুলা করবে না। তিনি আরও বলেন, আজকাল ধর্ষণসহ কিশোর গ্যাং নানা অপরাধ করছে, নানা ধরণের অপরাধের সঙ্গে বিভিন্ন কিশোর গ্যাং যুক্ত হচ্ছে। এটি থেকে রক্ষা করার একটি বড় উপায় হচ্ছে পাড়ায় পাড়ায় খেলাধুলার ব্যাপকতা ছড়িয়ে দেয়া। এটি অত্যন্ত প্রয়োজন। উদ্বোধনী খেলায় চরকতলা শান্তি সংঘ বনাম জয় বাংলা জয় বঙ্গবন্ধু রানিবাড়ী চাঁদপুর দল অংশ নেয়। টুর্নামেন্টে মোট ১২টি দল অংশ গ্রহণ করেছে। এতে উপস্থিত ছিলেন চককীর্তি ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আবু হাসনাত নিপু, ৯নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি মুনসুর আলীসহ ওয়ার্ড সভাপতি-সাধারণ সম্পাদরা।

শিবগঞ্জে সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত-আহত পরিবারে সহায়তা প্রদান


শিবগঞ্জ (চাঁপাইনবাবগঞ্জ) প্রতিনিধি:
চাঁপাইনবাবগঞ্জের শিবগঞ্জ উপজেলায় সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত ও আহত পরিবারের মাঝে সংসদ সদস্যের ব্যক্তিগত উদ্যোগে চাল, ডাল, আটা, আলু, তেল ও নগদ অর্থ প্রদান করা হয়েছে। শনিবার দুপুরে সোনামসজিদ বালিয়াদিঘি নূরানী মাদ্রাসা প্রাঙ্গনে আয়োজিত অনুষ্ঠানে ওই পরিবারের মাঝে এসব ত্রাণ ও নগদ অর্থ তুলে দেন সংসদ সদস্য ডা. সামিল উদ্দিন আহমেদ শিমুল। এ সময় আহতদের সার্বিক চিকিৎসার দায়িত্ব নেন তিনি। পাশাপাশি নিহত পরিবারের সদস্যদের সামাজিক নিরাপত্তা বেষ্টনীর আওতায় আনা হবে জানান সংসদ সদস্য। বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের বিজ্ঞান প্রযুক্তি বিষয়ক উপকমিটির সদস্য ইঞ্জিনিয়ার মাহতাব উদ্দিন, শাহাবাজপুর ইউপি চেয়ারম্যান তোজাম্মেল হক, দাইপুখুরিয়া ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি এ কে এম আজমল হক বদাশা, আওয়ামী লীগ নেতা আলমগীর হোসেন, সিএন্ডএফ ব্যবসায়ী সোহেল আহমেদ পলাশ, শ্রমিক নেতা সাদেকুল ইসলাম মাস্টার, মুখলেসুর রহমান সরদারসহ স্থানীয় আওয়ামী লীগ, সোনামসজিদ স্থলবন্দর শ্রমিকলীগর নেতৃবৃন্দরা এ সময় উপস্থিত ছিলেন। নিহত ও আহত পরিবারের প্রত্যেককে নগদ ১০ হাজার টাকা করে দেয়া হয়। শেষে নিহতের আত্মার মাগফিরাত কামনা ও আহতের সুস্থতার জন্য দোয়া মোনাজাত করা হয়। উল্লেখ্য, গত বৃহস্পতিবার উপজেলার বারিকবাজার-সোনাপুর এলাকায় ধানবোঝাই ভটভটি খাদে উল্টে ধানের বস্তায় চাপা পড়ে ৯ জন নিহত ও ৭ জন আহত হন।  

৩০ কারখানা পাবে ‘গ্রিন ফ্যাক্টরি অ্যাওয়ার্ড’

পরিবেশবান্ধব বিবেচনায় প্রতিবছর ৩০টি কারখানাকে দেওয়া হবে ‘গ্রিন ফ্যাক্টরি অ্যাওয়ার্ড’। মুজিব বর্ষ থেকে এই পুরস্কার দেওয়া শুরু হবে। এ জন্য ‘গ্রিন ফ্যাক্টরি অ্যাওয়ার্ড নীতিমালা-২০২০’ প্রণয়ন করেছে শ্রম ও কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়।
নীতিমালায় বলা হয়েছে, গ্রিন ফ্যাক্টরি অ্যাওয়ার্ডের জন্য শ্রম ও কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয় গঠিত বিভিন্ন খাতকে বিবেচনায় নেওয়া হবে। কোন কোন খাতকে অ্যাওয়ার্ডের জন্য নির্বাচন করা হবে তা সুনির্দিষ্টভাবে প্রচার করা হবে। বিভিন্ন খাতে মোট ৩০টি অ্যাওয়ার্ড দেওয়া হবে। কোন খাতে কয়টি অ্যাওয়ার্ড দেওয়া হবে, তা প্রাথমিকভাবে মূল্যায়ন কমিটি পরীক্ষা-নিরীক্ষার পর প্রস্তাব বা সুপারিশ মন্ত্রণালয়ের কোর কমিটির কাছে পেশ করবে। কোর কমিটি চ‚ড়ান্ত অনুমোদন দেবে। একই খাতে পাঁচটির বেশি অ্যাওয়ার্ড দেওয়া যাবে না।
অ্যাওয়ার্ডপ্রাপ্ত শিল্প প্রতিষ্ঠান বা কারখানাগুলোকে অনুমোদিত মনোগ্রামখচিত একটি মেডেল, একটি ক্রেস্ট এবং একটি সনদপত্র ও ১ লাখ করে টাকা দেওয়া হবে। প্রতিবছর ২৮ এপ্রিল জাতীয় পেশাগত স্বাস্থ্য ও সেপটি দিবসে এ পুরস্কার দেওয়া হবে বলে নীতিমালায় উল্লেখ করা হয়েছে। 
এ খাতে সংশ্লিষ্ট পরিদর্শন অধিদফতরের সব নিবন্ধিত এবং হালনাগাদ নবায়ন করা কারখানা ও প্রতিষ্ঠানগুলোই কেবল অ্যাওয়ার্ডের জন্য বিবেচিত হবে।
নীতিমালায় আরও বলা হয়েছে জমির ভৌগোলিক অবস্থান, পানি সাশ্রয়, প্রাকৃতিক শক্তির ব্যবহার, পরিবেশবান্ধব নির্মাণসামগ্রী, অভ্যন্তরীণ পরিবেশগত অবস্থা, আধুনিক উদ্ভাবিত যন্ত্রের ব্যবহার, এলাকাভিত্তিক প্রাধান্য ইত্যাদি পর্যালোচনা করে কারখানাটি পরিবেশবান্ধব ফ্যাক্টরি কি না তা নির্ধারণ করা হবে। কারখানা ও প্রতিষ্ঠানগুলোকে উৎসাহিত করার লক্ষ্যে বিভিন্ন শিল্প খাতকে গ্রিন ফ্যাক্টরি অ্যাওয়ার্ড দেওয়ার উদ্যোগ নেওয়া হবে।
নীতিমালায় অ্যাওয়ার্ড প্রক্রিয়ার নির্ণয়কগুলোও উল্লেখ করা হয়েছে। মূল্যায়ন কমিটি এসব নির্ণয়ক বিবেচনা করে প্রতিবছর সেক্টরভিত্তিক ১০০ নম্বরের চেকলিস্ট প্রণয়ন করবে বলে নীতিমালায় উল্লেখ করা হয়েছে। পুরস্কার দিতে শ্রম ও কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয় অতিরিক্ত সচিবকে (শ্রম) আহŸায়ক করে এ সংক্রান্ত একটি মূল্যায়ন কমিটি গঠন করা হবে জানিয়ে নীতিমালায় বলা হয়েছে, অন্যদিকে সচিবের নেতৃত্বে থাকবে একটি কোর কমিটি। চেকলিস্ট অনুযায়ী তথ্য-উপাত্ত ও পরিদর্শন রিপোর্ট বিশ্লেষণ করে মূল্যায়ন কমিটি কোর কমিটির কাছে পুরস্কারের জন্য মনোনীত প্রতিষ্ঠানের নাম সুপারিশ করবে। কোর কমিটি মূল্যায়ন কমিটির পাঠানো অগ্রাধিকার তালিকা থেকে নির্ধারিত সংখ্যক খাতের উপযুক্ত কারখানাগুলোর নাম অন্তর্ভুক্ত করে অ্যাওয়ার্ডের জন্য চ‚ড়ান্ত তালিকা প্রস্তুত করবে বলে নীতিমালায় উল্লেখ করা হয়েছে।