সর্বশেষ সংবাদ চাঁপাইনবাবগঞ্জেে ট্রাক চাপায় নিহত এক এমপি হাজী সেলিম ও ছেলের সম্পদের খোঁজে দুদক সেনাবাহিনী দেশের মানুষের ভরসা ও বিশ্বাসের প্রতীক– প্রধানমন্ত্রী এবার অনলাইনেই খাজনা দেয়া যাবে চাঁপাইনবাবগঞ্জে ট্রাক-মোটরসাইকেল সংঘর্ষে আমনুরার বাদশা নিহত শিবগঞ্জ পৌর এলাকা কে নিরাপত্তা চাদরে ঢেকে দেয়ার প্রতিশ্রুতি সৈয়দ মনিরুলের চাঁপাইনবাবগঞ্জ ডায়াবেটিক সমিতির প্রতিষ্ঠাতা সদস্য ও প্রকৌশলী নজরুল ইসলাম আর নেই চলতি বছর পাঠ্যপুস্তকে অন্তর্ভুক্ত হচ্ছে ‘করোনা’ ও ‘ধর্ষণ’ বাংলাদেশের জন্য কোভিড-১৯ পরিকল্পনা অস্ট্রেলিয়ার দেশের সব নাগরিক পাবে বিনামূল্যে করোনা ভ্যাকসিন

গোমস্তাপুরে নদীতে ডুবে মৃত্যু এক,নিখোঁজ এক


চাঁপাইনবাবগঞ্জ প্রতিনিধি

চাঁপাইনবাবগঞ্জের গোমস্তাপুরে নদীতে গোসল করতে নেমে এক নারীর মর্মান্তিক মৃত্যু হয়েছে। এছাড়াও নিখোঁজ  অাছে অারও এক নারী।  রহনপুর ফায়ার সার্ভিস  জানায়, শুক্রবার (2 অক্দুটটোবর) দুপুরে  উপজেলার রহনপুর পৌর এলাকার হুজরাপুর মহল্লার মৃত তৈমুরের মেয়ে ফেরদৌসী(৩৫) নামে এক নারী পূর্ণভবা নদীতে গোসল করতে গিয়ে ডুবে মারা যায়।  অপরদিকে গোমস্তাপুর ইউনিয়নের নয়াদিয়ারী গ্রামের মিনাজ উদ্দিন স্ত্রী  তানিয়া বেগম(১৯) মহানন্দা নদীতে গোসল করতে নেমে নিখোঁজ হয়। প্রথমে রহনপুর ও পরেরাজশাহী ফায়ার সার্ভিসের ডুবুরী দল নিখোঁজ ওই নারীর খোঁজে অনুসন্ধান চালাচ্ছে।বিষয়টি গোমস্তাপুর থানার ওসি জসিম উদ্দীন নিশ্চিত করেন।

সিলেটবাসীর প্রতীক্ষিত স্বপ্ন পূরণের শুভ সূচনা করলেন প্রধানমন্ত্রী

আগামী তিন বছরের মধ্যেই পূর্ণাঙ্গ আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের রূপ পাবে সিলেট ওসমানী বিমানবন্দর। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সিলেটবাসীর বহু প্রতীক্ষিত এ স্বপ্ন পূরণের শুভ সূচনা করেন। ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে গতকাল সকালে এই কাজের উদ্বোধন করেন তিনি। এ সময় প্রধানমন্ত্রী বলেন, এই বিমানবন্দরের কাজ শেষ হলে  দেশের বিমানের যাত্রী পরিবহন পরিসর আরও বৃদ্ধি পাবে। আগামী কয়েক দিনের মধ্যে বিমানের সিলেট-লন্ডন সরাসরি ফ্লাইট চালুরও আশ্বাস দেন উদ্বোধনী অনুষ্ঠান উপলক্ষে সিলেটে অবস্থান করা পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আবদুল মোমেন এবং বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন প্রতিমন্ত্রী অ্যাডভোকেট মাহবুব আলী।

নতুন টার্মিনাল ভবন নির্মাণ কাজের উদ্বোধন উপলক্ষে ওসমানী বিমানবন্দরের পার্কিং জোনে আয়োজন করা হয় বর্ণাঢ্য অনুষ্ঠানের। উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ওসমানী আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের উন্নয়ন কাজ শেষ হলে এই বিমানবন্দরটি পাশর্^বর্তী দেশগুলোও ব্যবহার করতে পারবে। এর আগে ভার্চুয়াল উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের সিলেট প্রান্ত থেকে বক্তব্য রাখেন বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন প্রতিমন্ত্রী অ্যাডভোকেট মাহবুব আলী ও একই মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিব মো. মহিবুল হক। অনুষ্ঠান শেষে প্রতিমন্ত্রী অ্যাডভোকেট মাহবুব আলী সাংবাদিকদের জানান, ওসমানী বিমানবন্দরের সব ধরনের সুযোগ-সুবিধা বৃদ্ধি করে সত্যিকারের পূর্ণাঙ্গ আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে পরিণত করা হবে। আধুনিক ওসমানী বিমানবন্দর হবে সিলেটবাসীর জন্য প্রধানমন্ত্রীর বিশেষ উপহার। আগামী জানুয়ারি মাসের মধ্যে এই প্রকল্পের কাজ সম্পন্ন হবে। প্রতিমন্ত্রী জানান, আগামী দুই-চারদিনের মধ্যে সিলেট-লন্ডন সরাসরি ফ্লাইট চালু হবে। পরে পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আবদুল মোমেন সাংবাদিকদের বলেন, ওসমানী বিমানবন্দরকে পূর্ণাঙ্গ আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে উন্নীত করার দাবি সিলেটবাসীর দীর্ঘদিনের। সেই দাবির প্রেক্ষিতে প্রধানমন্ত্রী ওসমানী বিমানবন্দরের উন্নয়নে হাত দিয়েছেন। এখন যে টার্মিনাল ভবন আছে তার তিন গুণ বড় হবে নতুন টার্মিনাল ভবন। এতে অনেক লোকের কর্মসংস্থান হবে। এই বিমানবন্দর ব্যবহার করে যাত্রীরা বিশ্বের বিভিন্ন দেশে যেতে পারবেন। অপর এক প্রশ্নের জবাবে পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আবদুল মোমেন বলেন, এমসি কলেজে গণধর্ষণের ঘটনায় সরকার শক্ত অবস্থান নিয়েছে; অপরাধীরা ছাড় পাবে না। আন্তর্জাতিক মানের যাত্রী সেবাদানের জন্য সম্প্রসারিত এই টার্মিনালে থাকবে ৬টি বোর্ডিং ব্রিজ (ডাবল ডকিং ২টি, সিঙ্গেল ডকিং ২টি), কনভেয়ার বেল্টসহ ৩৬টি চেক-ইন-কাউন্টার। যার মধ্যে ২টি স্বয়ংক্রিয়, বহির্গামী ও আগমনি যাত্রীদের জন্য মোট ২৪টি পাসপোর্ট কন্ট্রোল কাউন্টার, ৬টি এসকেলেটর, ৯টি লিফট এবং আগমনি যাত্রীদের জন্য ৩টি লাগেজ কনভেয়ার বেল্ট, ভবনের ফ্লোরে বসবে ইঞ্জিনিয়ারড স্টোন। নতুন টার্মিনালের ১ম তলা আগমনি এবং ২য় তলা বহির্গামী যাত্রীদের জন্য থাকবে। শহরের যে কোনো প্রান্ত থেকে আগত যাত্রী টার্মিনালের চেক-ইন লেভেলে সরাসরি যেতে পারবেন। আবার বিদেশ হতে আগত যাত্রীরা ১ম তলা থেকে বিমানবন্দর ত্যাগ করে সারফেস রোড ব্যবহার করে শহরের যে কোনো প্রান্তে যেতে পারবেন। টার্মিনাল অভিমুখী বা বহির্মুখী সব যানবাহন চলাচল হবে একমুখী  যা বিমানবন্দর  অংশকে সম্পূর্ণ যানজটমুক্ত রাখবে। নতুন টার্মিনাল ভবনের সঙ্গে আরও যেসব অবকাঠামো নির্মাণ করা হচ্ছে তা হলো অত্যাধুনিক সুবিধা সংবলিত কার্গো টার্মিনাল, ফায়ার স্টেশন, কন্ট্রোল টাওয়ার, প্রশাসনিক ভবন, রক্ষণাবেক্ষণ ভবন, ৬টি উড়োজাহাজ পার্কিং উপযোগী এপ্রোন, টেক্সিওয়ে, বৈদ্যুতিক উপকেন্দ্রসহ ফুয়েল ডিস্ট্রিবিউশান অ্যান্ড হাইড্রেন্ট সিস্টেমসহ আরও অনেক সুবিধা থাকবে এই নতুন টার্মিনালে।

নতুন টার্মিনাল ভবনের কাজ শেষ হলে দুনিয়ার এভিয়েশন জগতে বাংলাদেশ তথা সিলেটের ভাবমূর্তি আরও উজ্জ্বল হবে এবং ভবিষ্যতে আরও অনেক দেশের বিমান সংস্থা এ বিমানবন্দর দিয়ে চলাচলের সুযোগ সৃষ্টি হবে। ফলে দেশের রাজস্ব বৃদ্ধি পাবে এবং আকাশ পথে যাত্রীদের বিশ্বমানের সুযোগ-সুবিধা ও নিরাপত্তা বাস্তবায়নের সুবিধা হবে। অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী মো. মাহবুব আলী। বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন মন্ত্রণালয়ের প্রকল্প ও কার্যক্রমের ওপর উপস্থাপনা করেন সিনিয়র সচিব মো. মহিবুল হক। অনুষ্ঠানের সার্বিক তত্ত্বাবধানে ছিলেন বাংলাদেশ বেসামরিক বিমান চলাচল কর্তৃপক্ষের চেয়ারম্যান এয়ার ভাইস মার্শাল মো. মফিদুর রহমান।আমার রাজশাহী

রূপপুর পারমাণবিক বিদ্যুৎকেন্দ্র নিবিড়ভাবে পর্যবেক্ষণ করবে আইএইএ

রূপপুর পারমাণবিক বিদ্যুৎকেন্দ্র (আরএনপিপি) চালু করার আগে তা নিবিড়ভাবে পর্যবেক্ষণ করবে আন্তর্জাতিক পরমাণু শক্তি সংস্থা (আইএইএ)। এ জন্য সংস্থার ৫টি বিশেষজ্ঞ দল পর্যায়ক্রমে বাংলাদেশে আসবে। আইএইএর গাইড লাইন অনুসরণ করে রূপপুর পারমাণবিক বিদ্যুৎকেন্দ্র বাস্তবায়ন করা হচ্ছে। নিরাপত্তা নিশ্চিত করার ওপর সর্বাধিক গুরুত্ব দেয়া হয়েছে। এই করোনার মধ্যেও স্বাস্থ্য বিধি মেনে যথাযথভাবে কাজ এগিয়ে যাচ্ছে।

রাশিয়ার রাষ্ট্রীয় পারমাণবিক সংস্থা রোসাটম এর সর্বাধুনিক প্রযুক্তি ও সার্বিক সহযোগিতায় নির্মাণাধীন বাংলাদেশের প্রথম পারমাণবিক বিদ্যুৎ প্রকল্প রূপপুর পারমাণবিক বিদ্যুৎকেন্দ্রের প্রথম ইউনিট ২০২৩ সালে উৎপাদনে যাবে। সে অনুযায়ী, প্রকল্পটি বাস্তবায়নের সার্বিক কার্যক্রম এগিয়ে চলছে বলে প্রকল্প সংশ্লিষ্টরা জানান।

এরইমধ্যে পারমাণবিক বিদ্যুৎকেন্দ্রের মূল যন্ত্র রিঅ্যাক্টর প্রেসার ভ্যাসেল রাশিয়ায় প্রস্তুতের পর সমুদ্র পথে রূপপুরে আনা হচ্ছে। আন্তর্জাতিক পরমাণু শক্তি সংস্থার (আইএইএ) পাঁচটি বিশেষজ্ঞ দলের বিভিন্ন দিক পর্যালোচনার অনুমোদনের সাপেক্ষে প্রকল্প চালু হবে। আগামী বছর ২০২১ সালের শুরু থেকে এই প্রকল্পের জ্বালানি লোডের আগ পর্যন্ত টিমগুলো পর্যালোচনা কার্যক্রম চালাবে। এই দলগুলো প্রকল্পের সক্ষমতার দিকগুলো পর্যালোচনা করে মতামত দেবে।

রুশ রাষ্ট্রীয় পারমাণবিক সংস্থা রোসাটম সূত্রে জানা যায়, আইএইএর দলগুলো পর্যায়ক্রমে খতিয়ে দেখবে নিয়ন্ত্রণ কর্তৃপক্ষের সক্ষমতা, স্থাপনা ঘিরে জন সুরক্ষা, চুল্লির নিরাপত্তা, পারমাণবিক দুর্যোগে জরুরি পরিস্থিতি মোকাবিলায় প্রস্তুত পদ্ধতি এবং স্থাপনা সমন্বিত অবকাঠামোগত গুরুত্বপূর্ণ বিষয়গুলো। তারা কোন নির্দেশনা দিলে তা বাস্তবায়ন করতে হবে। নতুন যেসব দেশ পারমাণবিক বিদ্যুৎকেন্দ্র স্থাপন করে সেসব দেশে আইএইএ এমন পর্যবেক্ষণ করে থাকে।

সম্প্রতি অনুষ্ঠিত সংস্থাটির ৬৪তম সাধারণ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়। সে সময় রূপপুর পারমাণবিক বিদ্যুৎ প্রকল্পের বিভিন্ন দিক পর্যালোচনার জন্য পর্যবেক্ষণ দল পাঠানোর সময়সীমা ঠিক করা হয়েছে।

এ বিষয়ে রূপপুর পারমাণবিক বিদ্যুৎকেন্দ্র্রের প্রকল্প পরিচালক পরমাণু বিজ্ঞানী ড. শৌকত আকবর বলেন, আইএইএর রোডম্যাপ অনুযায়ী, এই প্রকল্প নির্মাণ হচ্ছে। আগামী বছর থেকে শুরু করে ফুয়েল লোডিংয়ের আগ পর্যন্ত আইএইএ মূল্যায়ন করবে। আইএইএ ও অন্যান্য আন্তর্জাতিক সংস্থার নির্দেশনার আলোকে কতগুলো মিশন এখানে আসবে। প্রকল্পের সক্ষমতা পর্যালোচনা করে পর্যবেক্ষণ দেবে। তারা ইতিবাচক মতামত দিলে এই প্রকল্পের অবকাঠামো নিয়ে, নিরাপত্তা নিয়ে আর কোনো প্রশ্ন থাকবে না।

বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি মন্ত্রী স্থপতি ইয়াফেস ওসমান বলেন, সব কিছু ঠিকঠাক মেনে এবং অনুসরণ করেই প্রকল্পের কাজ এগিয়ে চলেছে। সারা বিশ্বে পরমাণু শক্তির শান্তিপূর্ণ ব্যবহার নিশ্চিত করতে এই আন্তর্জাতিক পরমাণু শক্তি সংস্থা কাজ করে। কোনো দেশের পারমাণবিক কোনো স্থাপনা নির্মাণে সংস্থাটির ১৯ দফা নীতিমালা মেনে চলতে হয়। সে অনুযায়ী, প্রকল্প বাস্তবায়ন করতে হয়। আইএইএ জাতিসংঘের একটি সংস্থা এবং সদস্য রাষ্ট্রগুলোকে এই সংস্থার গাইড লাইন মেনে চলতে হয়। রূপপুর পারমাণবিক বিদ্যুৎ প্রকল্প সবকিছুর জন্য তারা প্রস্তুত রয়েছেন। নিরাপদ এবং নিরাপত্তার নির্দেশনাগুলো মেনেই এই প্রকল্প বাস্তবায়ন করা হচ্ছে। এই পর্যবেক্ষণ দলগুলো যে গাইড লাইন দেবে তা কঠোরভাবে অনুসরণ করে এই প্রকল্পটি চালু এবং পরিচালনা করা হবে।

এদিকে আইএইএর সম্মেলনে সংস্থাটির একটি বিশেষজ্ঞ পর্যায়ের একটি ওয়ার্কিং কমিটিতে নিয়োগ পেয়েছেন রূপপুর পারমাণবিক বিদ্যুৎকেন্দ্রের প্রকল্প পরিচালক ড. শৌকত আকবর। করোনা ভাইরাসের কারণে সম্মেলনে পরমাণু বিশেষজ্ঞ কর্মকর্তারা ভার্চ্যুয়াল মাধ্যমে অংশগ্রহণ করেন। বাংলাদেশের কর্মকর্তারাও ভার্চ্যুয়াল মাধ্যমে এ সম্মেলনে অংশগ্রহণ করেন।

দেশীয় প্রতিষ্ঠান গ্লোব বায়োটেকের তৈরি ভ্যাকসিন করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে সক্ষম

দেশীয় প্রতিষ্ঠান গ্লোব বায়োটেকের তৈরি ভ্যাকসিন করোনা ভাইরাসকে প্রতিরোধ করতে সক্ষম বলে জানিয়েছে মার্কিন মেডিক্যাল জার্নাল বায়োআর্কাইভ। বায়োআর্কাইভ মেডিক্যাল জার্নালে এ সংক্রান্ত তথ্য প্রকাশ করা হয়।

গ্লোব বায়োটেক লিমিটেড, গ্লোব ফার্মাসিউটিক্যালস কোম্পানি লিমিটেডের সহযোগী প্রতিষ্ঠান।

গ্লোব বায়োটেক লিমিটেডের ডা. মোহাম্মদ মহিউদ্দিন বলেন, আমরা আমাদের টিকা প্রাণীর দেহে সফলভাবে পরীক্ষা করতে সক্ষম হয়েছি। আমরা এখন প্রায় মানুষের দেহে ক্লিনিকাল ট্রায়ালের দ্বারপ্রান্তে পৌঁছেছি।

তিনি জানান, তারা শিগগিরই প্রাক-ক্লিনিকাল ট্রায়ালগুলোর প্রতিবেদন সিআরও-এর কাছে জমা দেবে। এরপর বিএমআরসির কাছে হিউম্যান ট্রায়ালের জন্য আবেদন করা হবে।

টিকা নিয়ে সংস্থাটির পরিকল্পনার বিষয়ে ডা. মোহাম্মদ মহিউদ্দিন বলেন, তারা ক্লিনিকাল ট্রায়ালটি ডিসেম্বরের মধ্যে শেষ করার চিন্তা করছে। কারণ প্রতিটি পরীক্ষা শেষ করতে ২৮ দিন সময় লাগবে।

আগামী বছরের জানুয়ারি থেকে বাণিজ্যিকভাবে এই ভ্যাকসিন ছাড়ার বিষয়ে আশা ব্যক্ত করেন তিনি। সূত্র: ফিন্যান্সিয়াল এক্সপ্রেস

নাচোলে পানিতে ডুবে শিশুর মৃত্যু

নাচোল প্রতিনিধি ঃ চাঁপাইনবাবগঞ্জের নাচোলে এক শিশুর পানিতে ডুবে মৃত্যু হয়েছে। মৃত শিশুটি উপজেলার সদর ইউনিয়নের জোনাকি পাড়া গ্রামের মোঃ বাবুর আলীর কন্যা মোসাঃ আনিকা আঞ্জুমান (৫) । মৃতের পরিবার ও প্রতিবেশী সুত্রে জানা যায়, শুক্রবার ( 2 অক্টোবর)  জুম্মার নামাজের সময় শিশুর পিতা জুম্মার নামাজ যাবার সময়  বাড়ির পাশে থাকা খাদে পড়ে শিশুটি ডুবে মারা যায়। পরে পরিবারের সদস্যরা শিশুটিকে উদ্ধার করে নাচোল সাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।
এব্যাপারে নাচোল থানার ওসি সেলিম রেজা ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেন।

শিবগঞ্জে সহকারী কর অাদায়কারীর পাগলায় ডুবে মৃত্যু

শিবগঞ্জ( চাপাইনবাবগঞ্জ) প্রতিনিধি

শুক্রববার দুপুরে চাপাইনবাবগঞ্জের শিবগঞ্জ পৌরসভার সহকারী কর আদায়কারীর পানিতে ডুবে মৃত্যু হয়েছে।মৃত ব্যাক্তির নাম নূর মোহাম্মাদ। তিনি পৌর এলাকার বাগানটুলি গ্রামের বাসিন্দা।শিবগঞ্জ পৌরসভার কমর্কতা আব্দুল মান্নান জানান, প্রতিদিনের মত শুক্রবার দুপুরে পাগলা নদীতে গোসলের জন্য তিনি পৌর এলাকার চতুরপুর ঘাটে গোসল করার সময় নদীতে পিছলে পড়ে গেলে এর একপর্যায়ে তিনি তলিয়ে যান। পরে স্থানীয়রা নিহতের লাশ উদ্ধার করে নিহতের পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়।

ভোলাহাটে এখনো নির্মিত হয়নি প্রটেকশন ওয়াল ও রাস্তার সংষ্কারঃস্থানীয়দের ক্ষোভ

স্টাফ রিপোর্টার ঃ
ভোলাহাটে হাজারো তদবির করে এখনো নির্মিত হয়নি প্রটেকশন ওয়াল। বহুবছর সংস্কার হয়নি গুরুত্বপূর্ণ রাস্তাটিও। ভোলাহাট সদর ইউনিয়নাধীন ইমামনগর বাজারের দক্ষিণে অত্র গ্রামের কবরস্থানে যাওয়ার একমাত্র রাস্তা এটি।বর্ষা এলেই প্রতিবছর ভাঙে রাস্তাটি।জনগুরুত্বপূর্ণ রাস্তাটি মেরামত ও বর্ধিতকরণ এবং রাস্তার পাশে থাকা পুকুরটির পাড়ে একটি প্রটেকশন ওয়ালের জন্য দ্বারে দ্বারে ঘুরেছে গ্রামবাসী। সাবেক সাংসদ জিয়াউর রহমান এবং গোলাম মোস্তফা বিশ্বাসের নির্বাচনী প্রতিশ্রুতি থাকলেও পূরণ হয়নি গ্রামবাসীর দাবিটি। বর্তমান সাংসদ অালহাজ্ব অামিনুল ইসলামের কাছে মৌখিক অাবেদন করেছেন গ্রামবাসী। এদিকে সংশ্লিষ্ট ইউপি চেয়ারম্যান অালহাজ্ব ইয়াজদানী জর্জকেও বলা হয়েছে বারংবার। তবে তিনি প্রতিবেদককে বলেন রাস্তা সংস্কার ও বর্ধিতকরণের কাজটি অচিরেই শুরু হবে এবং প্রটেকশন ওয়ালের জন্য চাহিদা দেওয়া হয়েছে।অবহেলিত এই জনগুরুত্বপূর্ণ রাস্তাটি দ্রুত যেন বাস্তবায়ন হয়ে ইমামনগর গ্রামের সরকারি গোরস্থানে যাওয়ার একমাত্র রাস্তাটি ব্যবহারের উপযোগী হোক এটায় প্রত্যাশা সকলের।

চাঁপাইনবাবগঞ্জের রহনপুরে ৪৩ লাখ টাকা মূল্যের কষ্টি পাথরের মূর্তি উদ্ধার

নিজস্ব প্রতিবেদক, চাঁপাইনবাবগঞ্জ : চাঁপাইনবাবগঞ্জের  গোমস্তাপুর উপজেলার রহনপুরে ৪৩ লাখ টাকা মূল্যের একটি কষ্টি পাথরের মূর্তি উদ্ধার করেছে বিজিবি। গত মঙ্গলবার রাতে রহনপুর বাজারের গোলামাঠ থেকে পরিত্যক্ত অবস্থায় মূর্তিটি উদ্ধার করা হয়। 
১৬ বিজিবি প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে জানায়, গত মঙ্গলবার রাতে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে ১৬বিজিবির অধিনায়ক লেফটেন্যান্ট কর্নেল এ কে এম আরিফুল ইসলামের নেতৃত্বে রহনপুর বিওপির বিজিবি সদস্যরা অভিযান চালায়। এ সময় সে এলাকায় পরিত্যক্ত অবস্থায় একটি মূর্তি উদ্ধার করে। উদ্ধারকৃত মূর্তিটির আনুমানিক ওজন ৪৩ কেজি।
বিজিবি আরও জানায়, মূর্তিটি পার্শ্ববর্তী দেশ ভারতে পাচারের উদ্দেশ্যে বহন করা হচ্ছিল। এ ঘটনায় গোমস্তাপুর থানায় একটি এজাহার দায়ের করেছে বিজিবি।