সর্বশেষ সংবাদ গোমস্তাপুরে মামার বাড়ি বেড়াতে এসে নদীতে ডুবে শিশুর মৃত্যু: উদ্ধার ২ চাঁপাইনাবগঞ্জে র শিবগঞ্জ ও গোমস্তাপুরে নতুন তিন করোনা রোগী সনাক্ত করোনাভাইরাস: ঢাকা শহরে ১৪ হাজার কোভিড-১৯ রোগী, সবচেয়ে বেশি মহাখালীতে এতিম শিশুদের পাশে মানিক শিশুকালের ঈদ বিনোদপুর উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষক মরহুম ওবায়দুর রহমান রেনু মাস্টারের জানাযা সম্পন্ন চাঁপাইনবাবগঞ্জের গোমস্তাপুরে ঘূর্ণিঝড়ে লণ্ডভণ্ড দুটি গ্রাম চাপাইনবাবগঞ্জে উদযাপিত হলো পবিত্র ঈদুল ফিতর: জেনে নিন কারা কোথায় ঈদ উদযাপন করলো ঈদের নামাজ পড়ানোর সময় সেজদারত অবস্থায় ইমামের মৃত্যু ২৪ ঘণ্টায় আক্রান্ত শনাক্ত ১৯৭৫ , মৃত্যু আরও ২১ জনের।

তামাকজাত পণ্য উৎপাদন, সরবরাহ, বিপণন ও বিক্রির ওপর সাময়িক নিষেধাজ্ঞা আরোপ

প্রাণঘাতী করোনাভাইরাস প্রতিরোধে তামাকজাত পণ্য উৎপাদন, সরবরাহ, বিপণন ও বিক্রির ওপর সাময়িক নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেছে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়। ১৮ মে, সোমবার স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের যুগ্ম সচিব খাইরুল আলম শেখ এই আদেশ জারি করেন।

ওই আদেশে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে বলা হয়, তামাক গ্রহণ কোভিড-১৯’এর সংক্রমণ বাড়িয়ে তোলে। তাই বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা তামাক গ্রহণে নিরুৎসাহিত করেছে। এছাড়া গবেষণায় দেখা গেছে করোনাভাইরাস ধূমপায়ীদের মারাত্মক ক্ষতি করে। অধূমপায়ীদের চেয়ে একজন ধূমপায়ীর করোনাভাইরাসে মৃত্যুর ঝুঁকি ১৪ ভাগ বেশি থাকে।

বিষয়ে ওই আদেশে বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের কাছেও সহায়তা চাওয়া হয়েছে।

এর আগে প্রতিবেশী ভারতসহ বেশ কয়েকটি দেশ তামাকজাত পণ্যের ওপর সাময়িক নিষেধাজ্ঞা জারি করে।

চাঁপাইনবাবগঞ্জে অর্থের বিনিময়ে খাস জমি নিয়ে রমরমা ব্যবসা!

শিবগঞ্জ ( চাঁপাইনবাবগঞ্জ) প্রতিনিধি: চাঁপাইনবাবগঞ্জের শিবগঞ্জে খাস জমি স্থানীয়দের মাঝে অর্থের বিনিময়ে বরাদ্দ দেয়ার অভিযোগ রয়েছে। সেসাথে জমি দেয়ার নামে টাকা আতœসাতেরও অভিযোগ উঠেছে। তবে সে অভিযোগ অস্বীকার করেছে অভিযুক্ত ব্যাক্তি।

সমপ্রতি কয়েকটি পরিবারকে নতুন করে আরও খাস জমি অর্থের বিনিময়ে বুঝিয়ে দেয়ার আশ্বাস দেয়ার পর না দেয়ায় বিষয়টি ফাঁস হয়ে পড়েছে। আর এ অভিযোগের তীর স্থাণীয় এক ভ’মি সার্ভেয়ার ইসমাইল হোসেন বাদশাহ নামক এক ব্যাক্তির বিরুদ্ধে।
এ নিয়ে পাঁকা ইউনিয়নের ভুক্তভোগী ৩ জন শিবগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী অফিসার বরাবর বুধবার(১৩ মে) বিকেলে অভিযোগ করেছে।

অভিযোগ সূত্রে জানা গেছে, ৭ বছর পূর্বে জেলার শিবগঞ্জ উপজেলার পাঁকা ইউনিয়নের স্থানীয় সার্ভেয়ার সংশ্লিষ্ট ইউনিয়ন তহশীল অফিস কে ম্যানেজ করে সুমন আলী, মেরিনা খাতুন ও বাদল আলীকে খাস জমি বন্দোবস্ত করে দেয়ার নাম করে প্রতিজনের কাছ থেকে ১০ হাজার টাকা করে উৎকোচ নেয়। কিন্তু ৭ বছর পার হলেও সে জমি বুঝিয়ে না দেয়ায় গত ১১ মে অভিযুক্ত বাদশা কে অভিযোগকারীরা টাকা ফেরত চেয়ে ফোন দেয়।কিন্তু সে টাকা ফেরত না দিয়ে উল্টো তাদের কিষয়টি না জানাজানি করতে হুমকি দেয়।
এদিকে অনুসন্ধানে জানা গেছে অভিযুক্ত ব্যক্তি একই এলাকার সাদিকুলের ছেলে পারভেজ কে দেড় বিঘা খাস জমি বন্দোবস্ত করে দেন ৫ হাজার টাকার বিনিময়ে। কিন্তু সে জমি পারভেজের দখলে না থাকায় বন্দোবন্ত পাবার পরপরই দখলদার সালামের কাছে ৭০ হাজার টাকায় বিক্রি করে দেন। এছাড়াও বাদশা জিল্লুর রহমান নামে আরও এক ব্যাক্তিকে জমি পাবার ব্যবস্থা করে দেন বলে তিনি নিজেই স্বীকার করেছেন।
স্থানীয়দের অভিযোগ বাদশা পাঁকা এলাকার অন্তত ১০ জন ব্যক্তিকে এভাবে অর্থের বিনিময়ে খাজ জমি পাইয়ে দিয়েছেন।আবার অনেক কে জমি দিবেন বলে টাকাও নিয়ে রেখেছেন।

এ ব্যাপারে অভিযোগকারী সুমন দাবী করেন বাদশা জমি সম্পর্কে ভাল ধারনা রাখায় এবং একজন স্থানীয় সার্ভেয়ার হওয়ায় স্থানীয় তোহশীল অফিসের মাধ্যমে অর্থের বিনিময়ে বিভিন্ন জনকে খাস জমি বন্দোবোস্ত করে দেন।এরই সূত্র ধরে তিনি ও তার অপর ২ আতœীয় ৭ বছর পূর্বে ৭ হাজার টাকা করে দিয়েও জমি বুঝিয়ে দেয়া তো দুরের কথা উল্টো টাকার বিষয়টি অস্বীকার করেছে।এ নিয়ে তিনি ও অপর ২ জন শিবগঞ্জ উপজেলা নির্বার্হী অফিস ও উপজেলা ভ’মি অফিস বরাবর অভিযোগ দিয়েছেন।
অপরদিকে অভিযুক্ত বাদশা তার বিরুদ্ধে আনা সকল অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন, তিনি অর্থের বিনিময়ে নয় এলাকায় ২/১ জনকে খাস জমি পেতে সহায়তা করেছেন মাত্র। তার বিরুদ্ধে আনীত অভিযোগ ভিত্তিহীন দাবী করে তিনি আরও বলেন, স্থানীয় এক ইউ.পি সদস্য তার প্রতিপক্ষ হওয়ায় ঐ ইউ পি সদস্যের ইন্দনে অভিযোগকারীরা তার বিরুদ্ধে মিথ্যা অভিযোগ দিয়েছে।
এ ব্যাপারে শিবগঞ্জ উপজেলা সহকারী কমিশনার(ভ’মি) আরিফা সুলতানা এ ধরনের একটি অভিযোগ পাবার বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, বিষয়টি সরেজমিন তদন্তের জন্য পাঁকা ইউনিয়ন ভুমি অফিসের তোহশীলদার কে দায়িত্ব দেয়া হয়েছে। তোহশীল অফিসের রিপোর্ট প্রাপ্তি সাপেক্ষে পরবর্তী ব্যবস্থা নেয়া হবে।

করোনা : চাঁপাইনবাবগঞ্জে পুলিশ ও স্বাস্থ্যকর্মীসহ গত ২৪ ঘন্টায় আরো ৫ জন আক্রান্ত : বাড়ি ও দোকান লকডাউন


চাঁপাইনবাবগঞ্জে নতুন করে পুলিশ ও স্বাস্থ্যকর্মীসহ গত ২৪ ঘন্টায় আরো ৫ জন করোনাা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন। জেলায় এ নিয়ে মোট আক্রান্ত ৪২ জন। আর এ পর্যন্ত্ত জেলায় সুস্থ হয়েছেন ২ জন।
চাঁপাইনবাবগঞ্জ সিভিল সার্জন কার্যালয় সূত্রটি নিশ্চিত করেছে।

এদিকে গোমস্তাপুরে প্রথম করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত ব্যক্তি কে প্রশাসনের খাদ্য সহায়তা দিয়েছে। সেই সাথে
২টি দোকান ও ৮টি বাড়ি লকডাউন করেছে।

আমাদের গোমস্তাপুর (চাঁপাইনবাবগঞ্জ) প্রতিনিধি আল মামুন বিশ্বাস জানান
গোমস্তাপুর উপজেলায় প্রথম বার করোনা রোগী শনাক্ত হওয়া বাড়ীতে খাদ্য সহায়তা দিয়েছে উপজেলা প্রশাসন। এর আগে ৮টি বাড়ি ও ২টি দোকানকে লকডাউন করা হয়।
মঙ্গলবার বিকেলে আলিনগর ইউনিয়নের নাদেরাবাদ গ্রামের ওই রোগীর পরিবার ও লকডাউন পরিবারগুলোকে ১৫ দিনের খাদ্য দেয়া হয়। এ সময় উপস্থিত ছিলেন গোমস্তাপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসার মিজানুর রহমান,আলিনগর ইউপি চেয়ারম্যান তরিকুল ইসলাম,উপজেলা ত্রান ও পুনর্বাসন কর্মকর্তা হাবিবুর রহমান, উপজেলা স্বাস্থ্য ও পঃপঃ কর্মকর্তা ডাঃ সারওয়ার জাহান, উপজেলা প্রেসক্লাবের সভাপতি আতিকুল ইসলাম আজম প্রমুখ।
গতকাল সোমবার স্বাস্থ্য বিভাগের এক রিপোর্টে গোমস্তাপুর উপজেলায় শিশুসহ ২ জনের করোনা রোগী শনাক্ত হওয়ায় খবর আসে। তাৎক্ষনিক রাতেই সেই বাড়ি দুটি লকডাউন করা হয়।
নাদেরাবাদ গ্রামের করোনা শনাক্ত ব্যক্তি সোমবার রহনপুর পুরাতন বাজারে দুটি কাপড়ের দোকানে কেনাকাটা করায় ওই দোকান দুটি মঙ্গলবার সকাল থেকে বন্ধ এবং দোকানের মালিক ও কর্মচারীদের হোম কোয়ারেন্টিনে থাকার নির্দেশ দেয়া হয়েছে। এছাড়া আক্রান্ত ওই ব্যক্তির বাড়ির আশেপাশের ৮টি বাড়ি লকডাউন করা হয়েছে।
এদিকে উপজেলা স্বাস্থ্য ও পঃ পঃ কর্মকর্তা ডা. সারওয়ার জাহান বলেন,হ্যান্ড গ্লোবসের অভাবে আক্রান্ত ২ জনের পরিবারের অন্যান্য সদস্যদের নমুনা সংগ্রহ করা সম্ভব হয়নি। তবে অচিরেই তাদের নমুনা সংগ্রহ করা হবে।
উপজেলা নির্বাহী অফিসার মিজানুর রহমান বলেন, করোনা শনাক্ত ব্যক্তিকে মনোবল শক্ত রাখতে বলা হয়েছে,চিকিৎসকের সাথে সার্বক্ষনিক যোগাযোগ রেখে চিকিৎসা নিতে বলা হয়েছে।

চাঁপাইনবাবগঞ্জে ‘এরফান গ্রæপ’র উদ্যোগে চরাঞ্চলের আরও ৩টি ইউনিয়নে ঈদ সামগ্রী বিতরণ

চাঁপাইনবাবগঞ্জ প্রতিনিধি \ জেলার শীর্ষ ব্যবসাপ্রতিষ্ঠান ‘এরফান গ্রæপ’ এর উদ্যোগে করোনা ভাইরাসেসংকটময় সময়ে আসন্ন ঈদ উপলক্ষে সদর উপজেলা ওচাঁপাইনবাবগঞ্জ পৌরসভায় মোট ৬০ লক্ষ টাকার ১২ হাজারমানুষের মাঝে ঈদ সামগ্রী বিতরণ কার্যক্রমের অংশ হিসেবেমঙ্গলবার সদর উপজেলার চরাঞ্চলের আরও ৩টি ইউনিয়নে ঈদসামগ্রী বিতরণ করা হয়েছে। ইউনিয়নগুলা হচ্ছে, ইসলামপুর,দেবীনগর ও সুন্দরপুর। বাংলাদেশ আওয়ামীলীগ সভাপতি ওবর্তমান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার আহবানে সাড়া দিয়ে‘এরফান গ্রæপ’ নিজস্ব অর্থায়নে এসব খাদ্য ওবস্ত্র সামগ্রী বিতরণ করছে। মঙ্গলবার সকালে সুন্দরপুরেরএকটি আম বাগানে কর্মহীন ও অসহায় নারী পুরুষের হাতেঈদ সামগ্রীগুলো তুলে দেন ‘এরফান গ্রæপ’র চেয়ারম্যান ওব্যবস্থাপনা পরিচালক, চাঁপাইনবাবগঞ্জ চেম্বারের সভাপতি, ‘দৈনিক চাঁপাই দর্পণ’ এর প্রধান উপদেষ্টা, পৌরআওয়ামীলীগের সহ-সভাপতি আলহাজ্ব মো. এরফান আলী।এসময় উপস্থিত ছিলেন, সদর উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতিমো. আজিজুর রহমান, জেলা যুবলীগের সাবেক সাধারণসম্পাদক শহীদুল হুদা অলক, জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি আরিফুররেজা ইমন, রাজশাহী জেলার মহিলা নেত্রী শাহনাজ মুক্তা,চাঁপাইনবাবগঞ্জ পৌরসভার ১ নম্বর ওয়ার্ড আওয়ামীলীগেরসাধারণ সম্পাদক ও ‘এরফান গ্রæপ’র ত্রান সহায়তাকার্যক্রমের সমন্বয়ক নাসরুম মিনাল্লাহ, ইউনিয়নআওয়ামীলীগ সভাপতি আশরাফ উদ্দিন, ইউপি চেয়ারম্যান ওসাধারণ সম্পাদক মো. হাবিবুর রহমান, সাংগঠনিকসম্পাদক কালাম মাস্টার, উপজেলা যুবলীগ সহ-সভাপতিআব্দুল্লাহ আল মামুন, ইউপি ছাত্রলীগ সভাপতি মো. নাদিমহোসেন, সাধারণ সম্পাদক মো. মোমিন উদ্দিন কাজলসহসংশ্লিষ্ট ইউনিয়ন আওয়ামীলীগ নেতৃবৃন্দসহ ছাত্রলীগেরকর্মীরা ও ‘এরফান গ্রæপ’র চেয়ারম্যানের পিএস মো.তান]ি আহমেদ তনয়সহ বিভিন্নস্তরের কর্মকর্তা-কর্মচারী। খাদ্য সামগ্রী বিতরণের শুরুতে করোনা ভাইরাসপ্রতিরোধে করনীয় বিষয়ে পরামর্শ দেন বক্তারা। মঙ্গলবার সকালথেকে দুপুর পর্যন্ত চাঁপাইনবাবগঞ্জ সদর উপজেলার ইসলামপুর,দেবীনগর ও সুন্দরপুর ইউনিয়নের প্রতিটি ইউনিয়নে ৩’শ ৬০
জন করে মোট ১ হাজার ৮০ পরিবারে প্রতিটি প্যাকেটে কাপড়,আটা, চিনি, সেমাই, তেল দেয়া হয়। অন্যদিকে, ইসলামপুরইউনিয়নের চাটাইডুবী উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে ‘এরফানগ্রæপ’র চেয়ারম্যান ও ব্যবস্থাপনা পরিচালক,চাঁপাইনবাবগঞ্জ চেম্বারের সভাপতি, ‘দৈনিক চাঁপাইদর্পণ’ এর প্রধান উপদেষ্টা, পৌর আওয়ামীলীগের সহ-সভাপতিআলহাজ্ব মো. এরফান আলীর সাথে অন্যান্য অতিথিগণ,ইউনিয়ন আওয়ামীলীগ সম্পাদক মো. নজরুল গাজী, ইউপিছাত্রলীগ সভাপতি মো. ইয়াসিন রাইহান পিয়াস, সম্পাদকমো. সাগর আলী, প্যানেল চেয়ারম্যান মো. তুফান আলী,বঙ্গবন্ধু ছাত্র ফেডারেশনের নেতা আল মামুন ও মো. সোহেলরানাসহ গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ। এছাড়া, দেবীনগর ইউনিয়নের দিয়াড় কলেজ মাঠে ‘এরফানগ্রæপ’র চেয়ারম্যান ও ব্যবস্থাপনা পরিচালক,চাঁপাইনবাবগঞ্জ চেম্বারের সভাপতি, ‘দৈনিক চাঁপাইদর্পণ’ এর প্রধান উপদেষ্টা, পৌর আওয়ামীলীগের সহ-সভাপতিআলহাজ্ব মো. এরফান আলীর সাথে অন্যান্য অতিথিগণ,ইউনিয়ন আওয়ামীলীগ নেতৃবৃন্দসহ গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ। পর্যায়ক্রমে ‘এরফান গ্রæপ’র নিজ অর্থায়নে ৬০ লক্ষ টাকাব্যয়ে ১২ হাজার প্যাকেট ঈদ সামগ্রী চাঁপাইনবাবগঞ্জপৌরসভার ১৫টি ওয়ার্ড ও সদর উপজেলার ১৪ ইউনিয়নেকর্মহীন ও অসহায় মানুষের মাঝে এসব সামগ্রী বিতরণকার্যক্রম চলমান রয়েছে বলে জানিয়েছে ‘এরফান গ্রæপ’কর্তৃপক্ষ। উল্লেখ্য, করোনা ভাইরাস সংকময় সময়ে এর আগে ১ এপিলথেকে টানা ১০ দিনব্যাপী চাঁপাইনবাবগঞ্জ পৌরসভার ১৫টিওয়ার্ড ও সদর উপজেলার ১৪ ইউনিয়নে কর্মহীন ও অসহায়মানুষের মাঝে ‘এরফান গ্রæপ’র নিজ অর্থায়নে ৫০ লক্ষ টাকাব্যয়ে ১১ হাজার পরিবারের মাঝে চাল, আলু, ডাল বিতরণ করে‘এরফান গ্রæপ’। এছাড়াও ‘এরফান গ্রæপ’র চেয়ারম্যান ওব্যবস্থাপনা পরিচালক আলহাজ্ব মো. এরফান আলীরআন্তরিকতায় বছর জুড়েই জেলার অসহায়, দুঃস্থ ও হতদরিদ্রমানুষ, কঠিন রোগে আক্রান্তদের চিকিৎসা সহায়তা,বিভিন্ন ধর্মীয় প্রতিষ্ঠানে আর্থিক সহায়তাসহবিভিন্ন সহায়তা কার্যক্রম চালিয়ে যাচ্ছে ‘এরফানগ্রæপ’।

শিবগঞ্জে আয়ের একমাত্র উৎস গাড়ী বিক্রি করে ঈদ সমগ্রী বিতরণ করলেন শ্রমিক নেতা আঃ করিম


শিবগঞ্জ (চাঁপাইনবাবগঞ্জ) প্রতিনিধিঃ মানুষকে সহায়তা করতে ধনী, শিল্পপতি কিংবা সম্পদশালী হওয়ার প্রয়োজন নেই। ধনী-গরিব, অসচ্ছল মানুষরা পাশে দাঁড়াতে পারে একজন বিবেকবান ব্যত্বিত প্রয়োজন। ঈদে অসহায় কিছু মানুষের মুখে হাসি ফুটলেও অনেক মধ্যবিত্ত কর্মহীন পরিবারে মুখে দেখা যায় দূংখের চিটাফোটা চিহৃ। এই মানুষদের মুখেও হাসি ফোটাতে নিজে থেকে কিছু করার তাগিদ অনুভব করলেন শ্রমিক নেতা আঃ করিম। 

কিন্তু এই মহামারী করোনা ভাইরাসে উপায় কি? হাতে নেই নগদ টাকা। তখন মাথায় আসে তার একটি আয়ের উৎস গাড়ী আছে! তা ১ লক্ষ ১০ হাজার টাকায় গাড়ী বিক্রি করে ৬শ অসহায় পরিবারকে মাঝে ঈদ সমগ্রী বিতরণ করলেন চাঁপােইনবাবগঞ্জের শিবগঞ্জ উপজেলার শাহাবাজপুর ইউনিয়নের বিশিষ্ট সমাজ সেবক ও শ্রমিক নেতা মোঃ আঃ করিম।  
১৯ মে (মঙ্গলবার) বিকালে এ সব ঈদ সমগ্রী বিতরণের উদ্বোধন করেন স্থানীয় সংসদ সদস্য ডাঃ  মোঃ সামিল উদ্দিন আহমেদ (শিমুল) ৪৩ চাঁপাইনবাবগঞ্জ-১ শিবগঞ্জ আসন।
বিশেষ অতিথিহিসাবে ছিলেন মোঃ মাহবুব হাসান (ঋতু) সাধারণ সম্পাদক জাতীয় শ্রমিকলীগ চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলা শাখা, মোঃ সেতাউর রহমান সহ-সভাপতি জাতীয় শ্রমিক লীগ সোনামসজিদ স্থলবন্দর শাখা, মোঃ সেরাজুল ইসলাম মাস্টার সভাপতি বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ ২নং শাহবাজপুর ইউনিয়ন ৩নং ওয়ার্ড শাখা শ্রমিক নেতা আসমাইল, মোঃ খাইরুল বাসার প্রধান শিক্ষক শাহাবাজপুর হাফিজিয়া মাদ্রসা, মোঃ তালেবুর রহমান প্রধান শিক্ষক, শাহরিয়ার আহমেদ সাধারন সম্পাদক ছাত্রলীগ ৩ণং ওয়ার্ড শাখা সহ অনেকে। 

প্রধান অতিথি ডাঃ শিমুল এমপি বলেন, প্রাণঘাতী করোনা ভাইরাস ও সারাদেশ লকডাউনের কারণে কর্মহীিন দিনমুজুরা অসহায় হয়ে পড়েছে। কিন্তু বিত্তবান না হওয়া সত্বেও করিম নিজের পণ্যবাহী  করিম এন্টারপ্রাইজ এর গাড়ী বিক্রয় করে তাদের পাশে দাঁড়াইছে । এমনো আছে যাদের সাহায্য করার মত সামার্থ আছে তারা নিজেকে গুটিয়ে নিয়েছে তাই করিম কে অসংখ্য কৃতঙ্গতা জ্ঞাপন করছি এসময় তাদের পাশে দাড়ানোর জন্য। 

এ বিষয়ে জানতে চাইলে শ্রমিক নেতা আঃ করিম জানান, গত দুই বছর আগে ১ লাখ ৫০ টাকায় ক্রয় করেন পণ্যবাহী  করিম এন্টারপ্রাইজ গাড়ীটি। কিন্তু এ দূর্যোগে সেই গাড়ীটি ১ লক্ষ ১০ হাজারে বিক্রি করে গৃহবন্দি কর্মহীন ৬শ পরিবারকে মাঝে খাদ্য সহায়তায় ব্যয় করি।

ইতিপূর্বে ২শ পরিবারকে চাল, ডাল, আলু, তেলসহ নিত্য-প্রয়োজনীয় খাবার প্যাকেট দিয়েছেন তিনি। এছাড়া প্রধানমত্রী ত্রাণ তোহবিল থেকে গত ১৭ মে ৩০ দুস্থ ও অসহায় পবিরারের মাঝে খাদ্যসমগ্রীি বিতারণ করেন। এছাড়া নিম্নমধ্যবৃত্তদের ও শ্রমিকদের বাড়ি বাড়ি গিয়ে খাবার পৌঁছে দিচ্ছেন তার স্বেচ্ছাসেবক কর্মীরা। 

আঃ করিম মনে করেন, জীবনে বেঁচে থাকলে আরও পণ্যবাহী গাড়ী কিনতে পারবেন। কিন্তু এ ধরনের পরিস্থিতিতে অসহায় মানুষের পাশে দাঁড়ানোর সুযোগ আর না-ও আসতে পারে। তিনি সমাজের বিত্তবার লোকদেরও অসহায় কর্মহীন মানুষের পাশে দাঁড়ানোর আহ্বান জানান। 

এদিকে একজন কর্মহীন দীনমুজুর খাইরুল বলেন এমন অবস্থায় করিম ভাই আমাদের সর্বদা খোজ খবর নিচ্ছে প্রয়োজনে খাবার দিচ্ছে তার এমন নেতা পেয়ে আমি অনেক খুশি তবে সকল নেতারা যদি এমন হতো তাহলে আমাদের দূংখ দূর্দাসা লাঘোব হতো আমি দুয়া করি যাতে করিম ভাই এমন ভাবে সারাজীবন আমাদের মাঝে বেচেঁ থাকেন।

সারাদেশে করোনায় ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে মৃত্যু হয়েছে ২১ জনেরঃ শনাক্ত হয়েছেন ১০৫১ জন।

ঢাকা: দেশে গত একদিনে অর্থাৎ শেষ ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে করোনা ভাইরাস আক্রান্ত শনাক্ত হয়েছেন ১০৫১ জন। নতুন করে মৃত্যু হয়েছে ২১ জনের। সুস্থ হয়েছেন ৪০৮ জন।

মঙ্গলবার (১৯ মে) দুপুর আড়াইটার দিকে নিয়মিত অনলাইন স্বাস্থ্য বুলেটিনে এ তথ্য জানান স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক (প্রশাসন) অধ্যাপক ডা. নাসিমা সুলতানা।

নাচোলে চাউল মিল মালিক সমিতির কার্যালয় উদ্বোধন ও চাল হস্তান্তর

নাচোল প্রতিনিধি

চাঁপাইনবাবগঞ্জের নাচোলে উপজেলা চাউল মিল মালিক সমিতির কার্যালয় উদ্বোধন করা হয়েছে। আজ মঙ্গলবার বেলা সাড়ে ১১টায় নাচোল স্টেশন বাজারে নাচোল উপজেলা চাউল মিল মালিক সমিতির কার্যালয় উদ্বোধন করেন উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আব্দুল কাদের।এসময় সমিতির সভাপতি শওকত আকবর মিলন ও সাধারণ সম্পাদক মতিউর রহমান খোকনসহ সমিতির অন্যান্য সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন। পরে উপজেলা চাউল মিল মালিক সমিতির পক্ষ থেকে নাচোল উপজেলা প্রশাসনের ত্রাণ তহবিলে ৭ মেঃ টন চাল হস্তান্তর করেন তারা। সারাবিেেশ্ব চলমান করোনা ভাইরাস মোকাবেলায় উপজেলা চাউল মিল মালিক সমিতির সদস্যরা উপজেলার অসহায় কর্মহীন মানুষের পাশে দাড়ানোর জন্যই আজ দুপুর ১২টায় নাচোল উপজেলা নির্বাহী অফিসারের নিকট এ চাল হস্তান্তর করেন।

চাঁপাইনবাবগঞ্জে এতিম শিশুদের মাঝে ত্রাণ সামগ্রী বিতরণ করল বিজিবি


নিজস্ব প্রতিবেদক, চাঁপাইনবাবগঞ্জ : চাঁপাইনবাবগঞ্জের সীমান্তবর্তী এলাকায় বসবাসকারী করোনা দুর্যোগ প্রতিরোধে ক্ষুধার্থ ৫টি এতিমখানার ২০০ এতিম শিশুদের মাঝে ত্রাণ সামগ্রী বিতরণ করেছে ৫৯ বিজিবি।
মঙ্গলবার সকাল সাড়ে ১০ টার দিকে চাঁপাইনবাবগঞ্জ ৫৯ বিজিবি রহনপুর ব্যাটালিয়নের উদ্যোগে তাদের মাঝে রাজশাহী সেক্টর কমান্ডার কর্নেল তুহিন মোহাম্মদ মাসুদ ত্রাণ সামগ্রী বিতরণ করেন।
শিবগঞ্জ উপজেলার বিভিন্ন সীমান্তের ৫টি এতিমখানার ২০০ এতিম শিশুদের মাঝে চাল, ডাল, তেল, লবণ, আটা, সুজি ও বিস্কুট বিতরণ করা হয়।
এ সময় উপস্থিত ছিলেন, ৫৯ বিজিবি রহনপুর ব্যাটালিয়নের অধিনায়ক লেঃ কর্নেল মাহমুদুল হাসান, কোম্পানী ও বিওপি কমান্ডারসহ ওই প্রতিষ্ঠানের শিক্ষকরা।
বিজিবি’র রাজশাহীর সেক্টর কমান্ডার কর্নেল তুহিন মোহাম্মদ মাসুদ জানান, করোনা দুর্যোগে দেশের বিভিন্ন স্থানের ন্যায় চাঁপাইনবাবগঞ্জের সীমান্তবর্তী এলাকায় অন্যদের মতো এতিমশিশুদের খাদ্য সংকটের মধ্যে পড়েন। আর সামাজিক দুরন্ত বজায় রেখে খাদ্য সংকটে পরা ২০০ এতিম শিশুদের মাঝে এসব বিতরণ করা হয়।
তিনি আরো জানান, বিজিবি সীমান্ত রক্ষার পাশাপাশি সকল পর্যায়ে করোনা দুযোর্গ মহুর্তে যার যার জায়গা থেকে অসহায় শিশুদের সহায়তা করেন আসছে। সর্তক থেকে সবাইকে এক সাথে নিয়ে করোনা যুদ্ধে জয় করার কথাও বলেন।

ছাত্রলীগ কর্মী ও জুয়ারুদের হাতে লাঞ্ছিত সাংবাদিক


ভাঙ্গুড়া (পাবনা) প্রতিনিধি : মাদক ও জুয়ার বিরুদ্ধে সংবাদ প্রকাশ করায় পাবনার ভাঙ্গুড়া উপজেলা “দৈনিক মানবজমিন” “স্টুন্ডেজার্ণালবিডি”র উপজেলা প্রতিনিধি ও স্থানীয় “দৈনিক স্বতঃকণ্ঠের” উপজেলা প্রতিনিধি শাহিবুল ইসলাম পিপুলকে লাঞ্ছিত করেছে জুয়ারী ও মাদক চক্রের সদস্যরা। সোমবার রাত সোয়া দশটার দিকে উপজেলার পাথরঘাটার গ্রামের বিশিপাড়ায় এ ঘটনা ঘটে। ঘটনার পরে ঐ সাংবাদিক ভাঙ্গুড়া থানায় লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন। সে উপজেলার পাথরঘাটা গ্রামের অবসরপ্রাপ্ত সেনাসমদস্য গোলজার হোসেনের ছেলে। অভিযুক্তদের মধ্যে একাধিক জন ছাত্রলীগের সাথে জড়িত। ঘটনার পর থেকেই অভিযুক্তরা পলাতক রয়েছে।
লিখিত অভিযোগ ও সংশ্লিষ্টদের সাথে কথা বলে জানা যায়, উপজেলোর পাথরঘাটা গ্রামের বাসিন্দারা গত মাসের ৭ তারিখে গ্রামের একটি নির্জন বাগানে রাতের বেলায় জুয়া খেলার সময় ধাওয়া করে সাতজন জুয়ারুকে আটক করে। পরে গ্রামবাসী আটককৃতদের পুলিশে দিতে চাইলে স্থানীয় ইউপি সদস্য জিয়াউল হক জুয়েল আটককৃতদের অভিভাবকদের সাথে কথা বলে তাদের নিজ জিম্মায় নেয় এবং আর জুয়া খেলবে না মর্মে মুচলেকা দিয়ে ছেড়ে দেয়। এ বিষয়ে সেই সময় বিভিন্ন গনমাধ্যমে সংবাদ প্রকাশ হয়। এরপরে ২০ এপ্রিল জুয়া ও মাদক চক্রের ঐ সদস্যরাই পুনরায় গ্রামের মাঠের মধ্যে থাকা ইরিগেশনের সেচপাম্পের ঘরে জুয়া খেলার সময় পাথরঘাটা ও পার-ভাঙ্গুড়া গ্রামের লোকজন চেয়ারম্যান ও গ্রাম পুলিশের সহায়তায় তাদের ঘিরে ফেলে আটক করে। পরে স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান ও ইউপি সদস্য ৪ জুয়ারুকে আট হাজার টাকা জরিমানা করে ছেড়ে দেয়। এ ঘটনায়ও দৈনিক মানজমিনে, অনলাইন পোর্টাল “স্টুন্ডেজার্ণালবিডি”তে “ভাঙ্গুড়ায় করোনাকালে জুয়ার থাবা” শিরোনাম সহ বিভিন্ন জাতীয় পত্রিকায় সংবাদ প্রকাশ হয়। এরপর থেকেই ওই জুয়ারু চক্রের সদস্যরা শাহিবুল ইসলাম পিপুলকে নানাভাবে হুমকি দিয়ে আসছিল। একপর্যায়ে সোমবার রাতে বাড়ি ফেরার সময় পিপুলকে পূর্বে জনগণের কাছে ধৃত হওয়া পাথরঘাটা গ্রামের জুয়ারু চক্রের সদস্য মাহমুদ আলীর ছেলে সৈকত (২০), আবু সাঈদের ছেলে মিলটন আহমেদ (২৫), মনসুর আলীর ছেলে মামুন (২২), শহীদ আলীর ছেলে শরীফ (২০), হামেদ আলীর ছেলে মাহফুজ (২৫), কোরবান আলীর ছেলে হাসান (২৫) পাশ্ববর্তী গ্রাম কাশীপুরের আজাদ আলীর ছেলে ডলার (২৫) সহ ১০/১২ জন পথ আটকে মারধর করে। রাতেই সাংবাদিক পিপুল থানায় লিখিত অভিযোগ করেন। অভিযুক্তদের মধ্যে সৈকত ও মিল্টন ছাত্রলীগ করে এবং ভাঙ্গুড়া উপজেলা চেয়ারম্যান বাকি বিল্লাহর ঘনিষ্ঠজন। মূলত তার ছত্রছায়াতেইে এরা এলাকায় বেপরোয়া হয়ে উঠেছে।

ভাঙ্গুড়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মাসুদ রানা অভিযোগ প্রাপ্তির বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, জুয়ারু ও মাদক সেবীদের ধরতে থানা পুলিশ খুবই তৎপর রয়েছে। এঅবস্থায় বিপথগামী যুবকগুলো জুয়া খেলে সামাজিক অবক্ষয় ঘটাচ্ছে। অপরদিকে নিউজ প্রকাশ করায় সাংবাদিককে মারধর করেছে। এটা অনেক বড় ধরনের অপরাধ। তাই অভিযুক্তদের ধরতে পুলিশ অভিযান শুরু করেছে। এছাড়া দ্রুত বিষয়টি তদন্ত করে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

রাজশাহীতে ভার্চুয়াল কোর্টে জামিন পেলেন ১৫৩ আসামি

রাজশাহীতে ভার্চুয়াল কোর্টে ১৫৩ জন আসামি জামিন পেয়েছেন। রাজশাহীতে ভার্চুয়াল কোর্টের কার্যক্রম শুরু হওয়ার দ্বিতীয় দিন সোমবার তাদের জামিন মঞ্জুর করা হয়েছে। আদালত সূত্র এ তথ্য নিশ্চিত করেছে।
সূত্র জানায়, এদিন রাজশাহীর জেলা ও দায়রা জজ আদালত ৩২ জন, মহানগর দায়রা জজ আদালত ২৫ জন, চিফ মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট আদালত ৪৮ জন এবং চিফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালত ৪৮ জন আসামির জামিন মঞ্জুর করেছেন।
উল্লেখ্য, করোনা পরিস্থিতিতে হাজতি আসামিদের জামিন শুনানির জন্য আদালতে ভার্চুয়াল কোর্ট চালু করা হয়।
তথ্য-প্রযুক্তি ব্যবহার করে ভার্চুয়াল উপস্থিতির মাধ্যমে জরুরি জামিন সংক্রান্ত বিষয়সমূহ নিষ্পত্তি করার নির্দেশনা আসে সুপ্রিমকোর্ট থেকে। কিন্তু প্রযুক্তিজ্ঞানের সীমাবদ্ধতায় প্রথমে রাজশাহীর অধিকাংশ আইনজীবী ভার্চুয়াল কোর্টে অংশ না নেয়ার সিদ্ধান্ত নেন।
ফলে রাজশাহী অ্যাডভোকেট বার সমিতিও ভার্চুয়াল কোর্টে অংশ না নেয়ার সিদ্ধান্ত নেয়। কিন্তু এরই মধ্যে রবিবার রাজশাহীতে ভার্চুয়াল কোর্টের কার্যক্রম শুরু হয়। সে দিন স্থানীয় একজন আইনজীবী এবং সুপ্রিমকোর্টের আরেকজন আইনজীবী ভার্চুয়াল কোর্টে রাজশাহীর ছয়জন আসামির জামিন করেন।
এরপর টনক নড়ে স্থানীয় আইনজীবীদের। সোমবার রাজশাহী অ্যাডভোকেট বার সমিতি বিশেষ সাধারণ সভা করে ভার্চুয়াল কোর্টে অংশ নেয়ার সিদ্ধান্ত নেয়।
সভা শেষেই আইনজীবীরা ভার্চুয়াল কোর্টে অংশ নেন। যেসব সিনিয়র আইনজীবী প্রযুক্তিজ্ঞানে পিছিয়ে তাদের সহায়তা করছেন জুনিয়র আইনজীবীরা। তাদের আবেদনের প্রেক্ষিতে দ্বিতীয় দিনেই ১৫৩ কারাবন্দী আসামি জামিন পেলেন।