সর্বশেষ সংবাদ গোমস্তাপুরে মামার বাড়ি বেড়াতে এসে নদীতে ডুবে শিশুর মৃত্যু: উদ্ধার ২ চাঁপাইনাবগঞ্জে র শিবগঞ্জ ও গোমস্তাপুরে নতুন তিন করোনা রোগী সনাক্ত করোনাভাইরাস: ঢাকা শহরে ১৪ হাজার কোভিড-১৯ রোগী, সবচেয়ে বেশি মহাখালীতে এতিম শিশুদের পাশে মানিক শিশুকালের ঈদ বিনোদপুর উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষক মরহুম ওবায়দুর রহমান রেনু মাস্টারের জানাযা সম্পন্ন চাঁপাইনবাবগঞ্জের গোমস্তাপুরে ঘূর্ণিঝড়ে লণ্ডভণ্ড দুটি গ্রাম চাপাইনবাবগঞ্জে উদযাপিত হলো পবিত্র ঈদুল ফিতর: জেনে নিন কারা কোথায় ঈদ উদযাপন করলো ঈদের নামাজ পড়ানোর সময় সেজদারত অবস্থায় ইমামের মৃত্যু ২৪ ঘণ্টায় আক্রান্ত শনাক্ত ১৯৭৫ , মৃত্যু আরও ২১ জনের।

চাঁপাইনাবগঞ্জে এক নবজাতক শিশুর লাশ উদ্ধার।


চাঁপাইনবাবগঞ্জ সদর সংবাদদাতা
চাঁপাইনবাবগঞ্জ সদর উপজেলার বালুবাগান গুলবাগ এলাকায় বৃহস্পতিবার দুপুরে এক নবজাতকের লাশ পাওয়া গেছে।

৩০ এপ্রিল দুপুর সাড়ে বারোটার দিকে বালুবাগান ল্যাবরেটরি স্কুলের সামনে রাস্তার পাশে পরিত্যক্ত অবস্থায় এক নবজাতক শিশুর লাশ পড়ে থাকতে দেখে এলাকাবাসীরা। পরে স্থানীয়রা রাস্তার পাশে এক জায়গায় খনন করে মাটি চাপা দেয় লাশটিকে।পরবর্তীতে কুকুর নবজাতকের লাশটি উঠানোর চেষ্টা বা টানা হেচরা করলে এলাকাবাসী দেখতে পেয়ে সদর মডেল থানায় বিষয়টি অবহিত করলে তাৎক্ষণিক মোঃ মিন্টু রহমান,( অপারেশন) এর নেতৃত্বে একটি টিম নিয়ে ঘটনাস্থলে উপস্থিত হন এবং ঘটনাস্থলে অজ্ঞাত নবজাতকের গলায় দড়ি প্যাঁচানো অবস্থায় একটি শপিং ব্যাগের মধ্য থেকে লাশটি উদ্ধার করে পুলিশ।এসময় আরো উপস্থিত ছিলেন, সদর থানার এস আই মোঃ ইয়াসিন আরাফাত, এস আই মোঃ নজরুল ইসলাম, এস আই মোঃ নাজমুল হক, এস আই মোঃ সোহেল রানা সহ সহ এলাকাবাসী।

পরে সদর মডেল থানার পুলিশের উপস্থিতিতে ও এলাকাবাসীর সহযোগিতায় পরিত্যক্ত নবজাতকের লাশটি মিস্ত্রীপাড়া কবরস্থানে দাফন সম্পন্ন করা হয়।

এ ব্যাপারে সদর থানার ওসি ( অপারেশন) মোঃ মিন্টু রহমান জানান,তদন্ত সাপেক্ষে ঘটনায় জড়িতদের বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

বেনাপোল দিয়ে রপ্তানীর অনুমতি মিললেও সোনামসজিদ দিয়ে মিলছেনা:আটকা পড়েছে সাড়ে ৩ হাজার ট্রাক

এ কে এস রোকন ঃ

করোনার কারণে দীর্ঘ দিন বন্ধ থাকার পর বেনাপোল স্থলবন্দর দিয়ে আমদানি-রফতানির অনুমতি মিললেও সোনামসজিদ স্থলবন্দর দিয়ে এখনও মিলেনি সে সুযোগ। এতে করে ভারতের মোহদীপুর স্থলবন্দরে সোনামসজিদ স্থলবন্দরে প্রবেশের অপেক্ষায় সাড়ে ৩ হাজার ট্রাক। তবে ৩ শতাধিক পিঁয়াজের ট্রাক নিয়ে বিপাকে সে দেশের ব্যবসায়ীরা।
ভারতের মহদীপুর সি এ্যান্ড এফ এজেন্ট সাধারন সম্পাদক ভ’পতি জানান, গত ২৭ এপ্রিল বাংলাদেশের ব্যবসায়ীদের পক্ষ থেকে বন্দর দিয়ে আমদানী রপ্তানীর শুরুর অনুরোধ জানিয়ে একটি চিঠি দেয়ার পর ভারতীয় ব্যবসায়ীরা ডিস্ট্রিক্ট ম্যাজিষ্ট্রেটের কাছে অনুমতি চাইতে গেলে করোনা ভাইরাসের কারনে লকডাউন থাকায় অনুমতি মিলেনি।এতে করে মহদীপুর বন্দরে আগের ও সম্প্রতি আসা পাথরের ৩ হাজার ট্রাক সহ সমপ্রতি আসা পিয়াজের ৩শ এবং খৈল,ভুট্টা ও মরিচের ২শ ট্রাক আটকে পড়েছে। তিনি আরও জানান,২৯ এপ্রিল বুধবার ভারতের নর্থ ২৪ পরগনার ডিস্ট্রিক্ট ম্যাজিষ্ট্রেট স্বাক্ষরিত এ শর্তসাপেক্ষে আদেশ অনুযায়ী বৃহষ্পতিবার সকাল থেকে ভারতের পেট্রোপোল বন্দর দিয়ে বাংলাদেশের বেনাপোলে পন্য আমদানী – রপ্তানীর অনুমতি মিললেও মহদীপুর দিয়ে অনুমতি এখনও মিলেনি।এতে করে ব্যবসায়ীরা আর্থিকভাবে ক্ষতিগ্রস্থ হচ্ছেন।বিশেষ করে কাঁচামালের ট্রাকগুলো নিয়ে বিপাকে পড়েছে সংশ্লিষ্ট ব্যবসায়ীরা।
এদিকে সোনামসজিদ স্থলবন্দর দিয়ে পণ্যবাহী ট্রাক প্রবেশ করতে না পারায় স্থানীয় বাজারে এর প্রভাব পড়েছে। সকল প্রকার কাঁচামালের দাম বেড়েছে। বিশেষ করে ছোলা, পেঁয়াজ, আদা ও রসুনের দাম আকশ্মিক বৃদ্ধি পেয়েছে।

এ ব্যাপারে সোনামসজিদ স্থলবন্দর পানামা পোর্ট লিমিটেড কোম্পানির অপারেশনাল ম্যানেজার কামাল উদ্দিন জানান, সোনামসজিদ বন্দর গত ৩ দিন থেকেই খোলা রয়েছে। পানামা কর্তৃপক্ষ আমদানি-রফতানি চালু হলে স্বাস্থ্য বিধি ও সামাজিক দূরত্ব মেনে সব সময় গাড়ি নিতে ও পণ্য খালাস করতে প্রস্তুত । গত ২৭ এপ্রিল সোমবার থেকে আমদানি কার্যক্রম শুরু হওয়ার কথা থাকলেও ভারতীয় কর্তপক্ষের কারণে তা বন্ধ রয়েছে।

করোনায় দেশে নতুন শনাক্ত ৫৬৪ জন, মৃত্যু ৫

ঢাকা:
গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে আরও পাঁচজনের মৃত্যু হয়েছে। এ নিয়ে দেশে মৃত্যুর সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ১৬৮ জনে। আর নতুন করে শনাক্ত হয়েছেন ৫৬৪ জন। মোট আক্রান্ত হয়েছেন ৭ হাজার ৬৬৭ জন। বৃহস্পতিবার (৩০ এপ্রিল) দুপুরে করোনা ভাইরাস সংক্রান্ত অনলাইন স্বাস্থ্য বুলেটিনে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক (প্রশাসন) অধ্যাপক ডা. নাসিমা সুলতানা এ তথ্য জানান।

এর আগে তিনি আরো বেসরকারি হাসপাতালকে শর্ত পূরণ করলে করোনা ভাইরাস পরীক্ষার অনুমতি দেওয়া হবে বলে জানান তিনি।

চাঁপাইনবাবগঞ্জে পৃথকস্থানে ২৮৪ জনকে টাকা ও চাল বিতরণ

স্টাফ রিপোর্টার : চাঁপাইনবাবগঞ্জ পৌর এলাকার ১৫ নং ওয়ার্ডের ম্যাথরপাড়া মোড়ের হরিজন পল্লীতে ১০০ টি পরিবারের মাঝে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার উপহার চাল পৌঁছে দেয়া হয়েছে। করোনা ভাইরাসের দরুন সবকিছু বন্ধ থাকায় সরকার এসব কর্মহীন পরিবারে চাল বিতরণ করছেন। ৩০ এপ্রিল বৃহস্পতিবার দুপুর সাড়ে ১২ টার দিকে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার উপহার তুলে দেন সদর উপজেলার নির্বাহী কর্মকর্তা ও এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট মো. আলমগীর হোসেন। এ সময় সদর উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান ও বিএনপি নেতা মো. নজরুল ইসলাম, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান মোসা.নাসরিন আক্তারসহ অন্য কর্মকর্তা বৃন্দ উপস্থিত ছিলেন। এর আগে ১৮৪ জনকে সমাজসেবা অধিদপ্তর চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলায় বিভিন্ন পরিমাণের টাকার চেক ভুক্তভোগীদের মাঝে তুলে দেয়া হয়। এতে সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

রাজশাহী অঞ্চলে অবস্থার অবনতি : শতক ছাড়াল করোনা আক্রান্ত

নিজস্ব প্রতিবেদক : রাজশাহী বিভাগে করোনা আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা বেড়ে ১০৩ জনে দাঁড়িয়েছে। এর মধ্যে বুধবার শনাক্ত হয়েছেন সাতজন। নতুন সাতজনের মধ্যে রাজশাহী মেডিকেল কলেজের (রামেক) করোনা ল্যাবে নমুনা পরীক্ষায় শনাক্ত হয়েছেন তিনজন। আর বগুড়ায় শনাক্ত হয়েছে চারজন।

বিভাগীয় স্বাস্থ্য পরিচালক ডা. গোপেন্দ্রনাথ আচার্য্য জানান, মঙ্গলবার পর্যন্ত রাজশাহী বিভাগে করোনা আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা ছিল ৯৬ জন। তার আগের দিন সোমবার ছিলো ৫২ জন। কিন্তু বুধবার শতক পার হয়ে সেই সংখ্যা দাঁড়ালো ১০৩ জনে।

বুধবার রামেকের ল্যাবে পাবনার দুইজন এবং নাটেরের একজন চিকিৎসকের করোনা শনাক্ত হয়। আর বগুড়ার ল্যাবে জয়পুরহাটের তিনজন এবং বগুড়ার একজনের করোনা শনাক্ত হয়। রাজশাহী বিভাগের আট জেলার মধ্যে জয়পুরহাটে ৩২ জন, বগুড়ায় ২০ জন, নওগাঁয় ১৭ জন, রাজশাহীতে ১৩ জন, পাবনায় ১০ জন, নাটোরে ৯ জন এবং সিরাজগঞ্জ ও চাঁপাইনবাবগঞ্জে ২ জন করে করোনা আক্রান্ত রোগী শনাক্ত হয়েছে। তবে এ বিভাগের মধ্যে একজনেরই মৃত্যু ও দুইজন সুস্থ্য হয়েছেন বলে জানান গেছে।

রামেকের ল্যাব সূত্রে জানা গেছে, বুধবার এই ল্যাবে ৭২ জনের নমুনার ফলাফল পাওয়া গেছে। এর মধ্যে ৬৯ জনেরই রিপোর্ট নেগেটিভ। বুধবারও ১৪৬ জনের নমুনা এসেছে এই ল্যাবে। তবে পরীক্ষার সক্ষমতা ৯৪টি। অতিরিক্ত নমুনা পরীক্ষার জন্য পাঠিয়ে দেয়া হচ্ছে ঢাকায়।

রাজশাহীর পুঠিয়া উপজেলায় গত ১২ এপ্রিল প্রথম কোভিড-১৯ রোগী শনাক্ত হয়। বিভাগের মধ্যে এটাই ছিল প্রথম করোনা আক্রান্ত রোগী শনাক্ত। এরপর বুধবার পর্যন্ত রাজশাহী জেলায় মোট ১৩ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে। মঙ্গলবার সর্বশেষ চারজনের করোনা শনাক্ত হয় এ জেলায়।

আক্রান্তদের মধ্যে ২৬ এপ্রিল সকালে রাজশাহীর সংক্রমক ব্যাধি (আইডি) হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় ৮০ বছর বয়সী এক রোগী মারা যান। এ পর্যন্ত যারা শনাক্ত হয়েছেন তাদের সবার বাড়ি বিভিন্ন উপজেলায়। রাজশাহী মহানগরীতে এখনো করোনা আক্রান্ত কেউ শনাক্ত হননি।

কাল চালু হচ্ছে বিশেষ পার্সেল ট্রেন

ডেস্ক : কৃষিপণ্য পরিবহনে বিশেষ পার্সেল ট্রেন চালুর সিদ্ধান্ত নিয়েছে সরকার। আগামীকাল শুক্রবার (১ মে) থেকে বিশেষ পার্সেল ট্রেনটি চালু হবে। বৃহস্পতিবার বাংলাদেশ রেলপথ মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র তথ্য কর্মকর্তা মো: শফিকুর রহমান বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

তিনি জানান, মহামারি করোনাভাইরাস মোকাবিলায় সারাদেশে গণপরিবহন বন্ধ রয়েছে। তাই কৃষকের উৎপাদিত পণ্যসামগ্রী, শাক-সবজি ও নিত্য প্রয়োজনীয় দ্রব্যাদি পরিবহনের জন্য বাংলাদেশ রেলওয়ে শুক্রবার (১ মে) থেকে তিন জোড়া বিশেষ পার্সেল ট্রেন পরিচালনা করবে।

‘সেই লক্ষে শুক্রবার থেকে চট্টগ্রাম-ঢাকা-চট্টগ্রাম, ঢাকা-দেওয়ানগঞ্জ-ঢাকা এবং যশোর-ঢাকা-যশোর রুটে তিন জোড়া বিশেষ পার্সেল এক্সপ্রেস ট্রেন চলবে।’

এর মধ্যে ঢাকা-চট্টগ্রাম-ঢাকা এবং ঢাকা-জামালপুর-ঢাকা রুটে সপ্তাহে ৭ দিন এই ট্রেন চলাচল করবে। য‌শোর-ঢাকা-য‌শোর রু‌টে সপ্তাহে দুই দিন চলাচল করবে।

প্রতিদিন চট্টগ্রাম থেকে সকাল ১০টায় ছেড়ে ঢাকায় পৌঁছাবে বিকেল ৪টায়। আবার ঢাকা থেকে রাত ১০টায় চট্টগ্রামের উদ্দেশ্যে ছাড়বে। পথে গুরুত্বপূর্ণ সব স্টেশন ধরবে এ পার্সেল এক্সপ্রেস ট্রেন।

পার্সেল এক্সপ্রেস ট্রেন ঢাকা থেকে সকাল ৮টায় ছেড়ে বিকেল ৪টায় দেওয়ানগঞ্জ পৌঁছাবে। দেওয়ানগঞ্জ থেকে রাত ৮টায় ঢাকার উদ্দেশ্যে ছেড়ে আসবে প্রতিদিন। পথে গুরুত্বপূর্ণ সব স্টেশন ধরবে ট্রেনটি। তবে ঢাকা-যশোর রুটের শিডিউল এখনো দেওয়া হয়নি।

রেল সূত্র বলছে, প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনা পেলেই যাত্রীবাহী ট্রেন চালাতে প্রস্তুত রেলওয়ে।

করোনায় আরও ২ পুলিশ সদস্যের মৃত্যু


ঢাকা:
করোনা ভাইরাস প্রাদুর্ভাবের মধ্যে নিজের দায়িত্ব পালন করতে গিয়ে করোনায় আক্রান্ত হয়ে প্রাণ হারিয়েছেন ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের (ডিএমপি) আরও দুই সদস্য।তারা হলেন- ডিএমপির পুলিশ অর্ডার ম্যানেজমেন্ট (পিওএম) দক্ষিণের উপ পরিদর্শক (এএসআই) আব্দুল খালেক (৩৬) এবং ট্রাফিক উত্তরের এয়ারপোর্ট এলাকার কনস্টেবল আশেক মাহমুদ (৪২)।

বুধবার (২৯ এপ্রিল) দিবাগত রাতে তারা মারা যান। এরমধ্যে এএসআই আব্দুল খালেক করোনা আক্রান্ত হয়ে আইসোলেশনে ছিলেন এবং আশেক মাহমুদ রাজারবাগ পুলিশ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ছিলেন।

ডিএমপির পুলিশ অর্ডার ম্যানেজমেন্টের (পিওএম) যুগ্ম কমিশনার আব্দুল মালেক জানান, প্রাথমিকভাবে করোনার উপসর্গ দেখা দেবার পর তাকে মতিঝিল আরামবাগে একটি হোটেলে প্রাতিষ্ঠানিক আইসোলেশন সেন্টারে নেওয়া হয়। গতকাল তার করোনার পরীক্ষার স্যাম্পল পাঠানো হয়।

গতকাল বিকেল থেকে আব্দুল খালেকের সঙ্গে যোগাযোগের চেষ্টা করেও সম্ভব হচ্ছিল না। তখন অচেতন অবস্থায় তাকে উদ্ধার করে হাসপাতালে নেবার পর রাত সোয়া ১২টার দিকে কর্তব্যরত চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন।

পরীক্ষার রিপোর্ট অনুযায়ী তার করোনা আক্রান্তের বিষয়টি নিশ্চিত হওয়া গেছে বলেও জানান তিনি।

ডিএমপির ট্রাফিক উত্তরের সহকারী কমিশনার (এসি-অ্যাডমিন) বদরুল হাসান জানান, ট্রাফিক উত্তরের এয়ারপোর্ট এলাকায় কর্মরত কনস্টেবল আশেক মাহমুদ রাজারবাগ পুলিশ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় রাত সাড়ে ৯টার দিকে মারা গেছেন।

করোনা উপসর্গ দেখা দেবার পর তাকে সিদ্ধেশ্বরী স্কুল অ্যান্ড কলেজের পুলিশ তত্ত্বাবধানের প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টিনে রাখা হয়। গত ২৬ এপ্রিল করোনার স্যাম্পল পরীক্ষা করা হয়। পরদিন অর্থাৎ ২৭ এপ্রিল তার করোনা পজিটিভ রিপোর্ট আসে। কাল তার অবস্থার অবনতি হলে রাজারবাগ পুলিশ হাসপাতালের আইসিইউতে ভর্তি করা হয়।

ঋষি কাপুর আর নেই: মোদীর শোক


বলিউডের প্রখ্যাত অভিনেতা ঋষি কাপুরের প্রয়াণে শোকার্ত পুরো ভারত। বলিউড সংশ্লিষ্টরা ছাড়াও একে একে শোক প্রকাশ করছেন দেশটির সরকার প্রধান থেকে শুরু করে নানা পেশার মানুষ।ঋষি কাপুরের প্রয়াণে গভীর শোকা প্রকাশ করেছেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী।
টুইটারে শোক প্রকাশ করে তিনি লেখেন, বহুমুখী প্রতিভার অধিকারী, দুর্দান্ত এবং প্রাণবন্ত মানুষ … এমনই ছিলেন ঋষি কাপুর জি। তিনি অত্যন্ত শক্তিশালী প্রতিভার অধিকারী ছিলেন। তার সঙ্গে কথাবার্তা-যোগাযোগের মুহূর্ত সবসময় স্মরণ করবো। এছাড়া সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে তার সঙ্গে আমার যে কথাবার্তা হয়েছে, সেগুলোও মনে রাখবো। তিনি ভারতীয় চলচ্চিত্র জগতের তীব্র অনুরাগী ছিলেন এবং ভারতের অগ্রগতি নিয়েও আগ্রহী ছিলেন। তার পরিবার ও অনুরাগীদের প্রতি সমবেদনা জানাই, তার প্রতি আমার শেষ শ্রদ্ধা।

বৃহস্পতিবার (৩০ এপ্রিল) সকালে ৮টা ৪৫ মিনিটে মুম্বাইয়ের একটি হাসপাতালে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন ঋষি কাপুর। শ্বাসকষ্ট নিয়ে একসপ্তাহ ধরে তিনি সেখানে ভর্তি ছিলেন। এর আগে যুক্তরাষ্ট্রে দীর্ঘদিন চিকিৎসা নেওয়ার পর গত বছর দেশে ফিরেছিলেন এই প্রবীণ অভিনেতা।

সুখবর আসছে ব্যাংক সুদে

ঢাকা:
শিল্প খাতের বিপর্যয় ঠেকাতে প্রণোদনা প্যাকেজ ঘোষণার পর আরেক দফা কার্যকর উদ্যোগ নিতে যাচ্ছে সরকার। করোনাভাইরাসের প্রভাবে বিপর্যস্ত হয়ে পড়া দেশের শিল্প ও ব্যবসা-বাণিজ্য খাতকে টিকিয়ে রাখতে এ খাতের ব্যাংক ঋণের সুদ মওকুফ করার বিষয়ে পর্যালোচনা করছে সরকার। অর্থ বিভাগের একটি সূত্র জানায়, শিগগিরই এ বিষয়ে সুখবরের ঘোষণা দিতে যাচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। সোমবার তিনি অর্থ বিভাগ ও বাংলাদেশ ব্যাংককে এ বিষয়ে কয়েকটি নির্দেশনাও দিয়েছেন। শিল্পোদ্যোক্তাদের সহায়তা দিতে করপোরেট কর কমিয়ে আনা যায় কি না সে বিষয়ে পর্যালোচনা করা হচ্ছে। এ ছাড়া ব্যাংকের সুদ বাবদ সরকার ভর্তুকিও দিতে যাচ্ছে।পাশাপাশি আগামী ২০২০-২০২১ বাজেটে করপোরেট কর কমিয়ে আনা হবে। এসব বিষয় পর্যালোচনা করছে অর্থ বিভাগ, বাংলাদেশ ব্যাংক ও জাতীয় রাজস্ব বোর্ড (এনবিআর)। তবে এই মহামারীকে কেন্দ্র করে শিল্পোদ্যোক্তাদের যে সুবিধাই দেওয়া হোক না কেন, সেটি ঋণখেলাপিরা পাবেন না। তবে কোনো ঋণখেলাপি সত্যিকার অর্থেই সমস্যাগ্রস্ত হলে তাকে যথাযথ নিয়ম মেনে দরখাস্ত করতে হবে। এরপর বাংলাদেশ ব্যাংকই যাচাই-বাছাই করে নির্ধারণ করবে ওই উদ্যোক্তা এ সুবিধা পেতে পারেন কি না।

জানা গেছে, চলতি বাজেটের আর মাত্র দুই মাস বাকি রয়েছে। এ সময়ের জন্য হলেও করপোরেট কর কমিয়ে দেওয়া হতে পারে। বিষয়টি এনবিআরকে পর্যালোচনা করতে বলা হয়েছে। আবার শিল্প খাতের ঋণগ্রহীতাদের হিসাব আপডেট রাখতে বলা হয়েছে ব্যাংকগুলোকে। কেউ যেন করোনাভাইরাসের প্রভাবের কারণে নতুন করে ঋণখেলাপি না হন সেদিকে নজর রাখতে বলা হয়েছে। এ ক্ষেত্রে প্রয়োজনে সরকার সুদ বাবদ ভর্তুকি দিয়ে শিল্পোদ্যোক্তাদের সহায়তা দেবে বলে জানানো হয়েছে। তবে কী পরিমাণ ভর্তুকি দেওয়া হবে বা করপোরেট কর কতটুকু কমানো হবে তা এখনো চূড়ান্ত করা হয়নি।

সংশ্লিষ্টরা বলছেন, বিপর্যস্ত শিল্প ও ব্যবসা-বাণিজ্য টিকিয়ে রাখতে সরকারের উচিত দ্রুত পুনরুদ্ধার কার্যক্রম গ্রহণ করা। যদিও একাধিক প্রণোদনা প্যাকেজ ঘোষণা করা হয়েছে কিন্তু সেটি শিল্প-বাণিজ্য টিকিয়ে রাখতে যথেষ্ট নয়। এটি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাও অনুধাবন করতে পেরেছেন। ফলে তিনি ইতিমধ্যে শিল্পোদ্যোক্তাদের ব্যাংক ঋণের সুদের বিষয়ে চিন্তা না করার পরামর্শ দিয়েছেন।

তারা মনে করেন, প্রণোদনা প্যাকেজ পলিসির পাশাপাশি শিল্প খাতকে রক্ষায় আগামী ডিসেম্বর পর্যন্ত ব্যাংক ঋণের সুদ মওকুফ করা অত্যন্ত জরুরি। শিল্পোদ্যোক্তাদের থাকা ব্যাংক ঋণের সুদ মওকুফ করা হলে বরং শিল্প খাতের বিপর্যয় ঠেকানো সহজ বলে মনে করেন সংশ্লিষ্টরা। এ ক্ষেত্রে সরকার, বাংলাদেশ ব্যাংক, ব্যবসায়ী, ব্যাংক কর্তৃপক্ষ সমন্বয় করে একটি অন্তর্বর্তীকালীন পলিসি নির্ধারণের পরামর্শ দিয়েছেন শিল্প খাত-সংশ্লিষ্টরা।

এদিকে প্রণোদনার বাস্তবায়ন ও শিল্পোদ্যোক্তাদের ব্যাংক সুদের বিষয়ে কীভাবে সহায়তা দেওয়া যেতে পারে সে বিষয়ে ব্যাংকের চেয়ারম্যানদের সঙ্গে মঙ্গলবার সন্ধ্যায় ভিডিও কনফারেন্স করেছেন অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল। আর ব্যাংকগুলোকে তারল্য সহায়তা দিতে ইতিমধ্যে ব্যাংকগুলোর দৈনন্দিন নিরাপত্তা সঞ্চিতি ও বিধিবদ্ধ জমার হার (সিআরআর, এসএলআর) কমানো হয়েছে। একই সঙ্গে করোনার প্রভাব কেটে গেলে বেসরকারি শিল্প খাতে ঋণপ্রবৃদ্ধি বাড়ানোর বিষয়েও ব্যাংকগুলোকে নির্দেশনা দিয়েছেন অর্থমন্ত্রী।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে ঢাকা চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রিজের (ডিসিসিআই) সাবেক প্রেসিডেন্ট ও এ কে খান অ্যান্ড কোম্পানির পরিচালক আবুল কাশেম খান বাংলাদেশ প্রতিদিনকে বলেন, কভিড-১৯-এর প্রভাবে পুরো শিল্প খাতই বিপর্যস্ত হয়ে পড়েছে। ব্যবসা-বাণিজ্যে নেমে এসেছে স্থবিরতা। ফলে শিল্প ও ব্যবসা-বাণিজ্য টিকিয়ে রাখতে সরকারের উচিত দ্রুত একটা কার্যকর সিদ্ধান্ত নেওয়া। ব্যাংক ঋণের সুদ মওকুফ করা খুবই জরুরি। অন্যথায় করোনা-পরবর্তী দেশের অর্থনীতি ও ব্যবসা-বাণিজ্যের অবস্থা হবে আরও নাজুক, যার নেতিবাচক প্রভাব পড়বে কর্মসংস্থান ও সামষ্টিক অর্থনীতিতে। এ নিয়ে শিল্প খাতের উদ্যোক্তারা চরম উদ্বিগ্নতায় দিন কাটাচ্ছেন। একদিকে জনজীবন বিপর্যস্ত, অন্যদিকে ব্যবসা-বাণিজ্য বন্ধ। কিন্তু ব্যাংক ঋণের সুদ তো আর থেমে নেই। কিস্তি স্থগিত করা হয়েছে। কিন্তু সেটি তো পরে দিতেই হবে। ফলে এটি সাময়িক স্বস্তিদায়ক হলেও দীর্ঘস্থায়ী কোনো সমাধান নয়। এ ক্ষেত্রে সরকার চাইলে একটি সমন্বিত পলিসি নিয়ে সুদ বাবদ ভর্তুকি দিতে পারে। তাহলে শিল্পমালিকদের ওপর চাপ কিছুটা হলেও কমে আসবে। পৃথিবীর অনেক দেশেই এ সংকট মোকাবিলায় এমন ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে বলে জানান তিনি।

নাচোলে গম ক্রয়ের উদ্বোধন


নাচোল প্রতিনিধি
চাঁপাইনবাবগঞ্জে’র নাচোলে ২ হাজার ২’শ ৪৩ মেঃ টন গম ক্রয়ের শুভ উদ্বোধন করা হয়েছে। আজ বৃহস্পতিবার বেলা সাড়ে ১১ টায় নাচোল খাদ্য গোডাউনে কৃষকদের কাছ থেকে ২৮ টাকা কেজি দরে ১ মেঃ টন করে গম ক্রয়ের উদ্বোধন করা হয়। উপজেলা নির্বাহী অফিসার সাবিহা সুলতানা গম ক্রয়ের শুভ উদ্বোধন করেন। এসময় উপজেলা খাদ্য নিয়ন্ত্রক আজহারুল ইসলাম, উপজেলা কৃষি অফিসার বুলবুল আহম্মেদ, উপজেলা নির্বাচন অফিসার আব্দুস সামাদ, ভারপ্রাপ্ত খাদ্য কর্মকর্তা মনিরুজ্জামান উপস্থিত ছিলেন। আজ উপজেলার নেজামপুর ইউনিয়নের ইসলামপুর চড়ক ডাঙ্গা গ্রামের আকিমুদ্দিনের ছেলে হাবিবুর রহমান ও চক নেজামপুর গ্রামের আজাহার আলীর ছেলে বজলুর রহমানের নিকট থেকে পৃথক পৃথক ভাবে ১ মেঃ টন করে গম ক্রয় করা হয়।