সর্বশেষ সংবাদ আলজাজিরার বিরুদ্ধে আদালতে মামলা হল খুলতে বিশ্ববিদ্যালয়গুলো পাবে ৫০ কোটি টাকা ১ কোটি ৯ লাখ ৮ হাজার ডোজ টিকা পাচ্ছে বাংলাদেশ ঐশ্বরিয়া পাকিস্তানে! তীব্র বাতাসে ও গরমে কক্সবাজারে আর্চারিরা 18 anti-tank rockets recovered from Satchhari 6 killed as Myanmar security forces fire at protesters Bangladesh reports 5 deaths পাপুলের আসনে ভোট ১১ এপ্রিল ভোলাহাটের সব স্কুল এখন স্ক্যানার থার্মোমিটার দৃশ্যমান
Large Add

প্রাথমিকে পেনশন নিয়ে সুখবর

সারা জীবন চাকরি করে জীবনের শেষ পর্যায়ে পেনশনের টাকা তুলতে গিয়ে পদে পদে ভোগান্তিতে পড়তে হয়। তাই অবসরে যাওয়া প্রাথমিকের শিক্ষক ও কর্মকর্তা-কর্মচারীদের পেনশন ভোগান্তি কমাতে উদ্যোগ নিয়েছে সরকার।

জানা যায়, অবসরে যাওয়া প্রাথমিকের শিক্ষক ও কর্মকর্তা- কর্মচারীর পেনশন সঠিক সময়ে যদি নিষ্পত্তি না হয়, তাহলে সংশ্লিষ্ট দায়িত্বশীলদের জবাবদিহি করতে হবে।

সংশ্লিষ্ট সূত্র জানায়, অবসরের পর পেনশন দিতে দেরি করার কারণে দায়ীদের জবাবদিহির আওতায় আনার বিষয়ে সম্প্রতি প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তরের মাসিক সমন্বয় সভায় এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়।

সিদ্ধান্ত অনুযায়ী, নির্ধারিত সময়ে সকল পর্যায়ের শিক্ষক, কর্মকর্তা-কর্মচারীর পেনশন নিষ্পত্তি করতে হবে। অন্যথায় সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষকে জবাবদিহি করতে হবে। পেনশন নিষ্পত্তির ক্ষেত্রে জটিলতা তৈরি হলে প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তরের মতামত চাইতে হবে। তবুও দেরি করা যাবে না।

অভিযোগ রয়েছে, সব কাগজপত্র ঠিক থাকলেও মাসের পর মাস পেনশনের ফাইল পড়ে থাকে প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তরে। যার তদবির করার সুযোগ রয়েছে, অথবা যিনি কর্মকর্তাদের ম্যানেজ করতে পারেন, তারা দ্রুত পেনশনের ফাইল নিষ্পত্তি করতে পারেন। তবে বেশিরভাগ শিক্ষক ও কর্মকর্তা-কর্মচারীকে দিনের পর দিন ঘুরতে হয়। সারাজীবন চাকরির পর প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তরে পেনশনের ফাইল নিষ্পত্তি করতে শিক্ষাগত যোগ্যতার মূল সনদ জমা দিতে বলা হয়। আর যদি কোনও ধরনের জটিলতা থাকে, তাহলে পেনশন ফাইল নিষ্পত্তি করতে ঢাকায় যাতায়াত করতে করতে অনেকেই অসুস্থ হয়ে পড়েন।

আরও অভিযোগ আছে, পেনশনের ফাইল নিষ্পত্তি করতে অবসরে যাওয়া ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদেরকে প্রায়ই অধস্তন কর্মকর্তাদের সামনে দীর্ঘ সময় ধরে দাঁড়িয়ে থাকতে হয়। অনুরোধ করলেও গুরুত্ব দেওয়া হয় না। তবে এসব কোনও অভিযোগই আর থাকবে না বলে জানায় প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তর।

প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তরের মহাপরিচালক আলমগীর মুহম্মদ মনসুরুল আলম বলেন, ‘অবসরে যাওয়ার পর যাতে কোনও শিক্ষক বা কর্মকর্তাকে ঘুরতে না হয়, সে ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে। যে বা যার কারণে পেনশন পেতে দেরি হবে, তাকে জবাদিহির আওতায় আনা হবে।’

  •  
  •  
  •  
  •  
Add img sm
Add img sm

আরও পড়ুন

%d bloggers like this: