সর্বশেষ সংবাদ জেলার একমাত্র উপজেলা ভোলাহাট করোনা মুক্ত হবার পথে! চাঁপাইনবাবগঞ্জে ‘এরফান গ্রুপ’র টানা ১০ দিন ঈদ সামগ্রী বিতরনের পর সম্পন্ন চাঁপাইনবাবগঞ্জে আবুল কালাম এন্ড সন্স’র উদ্যোগে ১ হাজার খাদ্যসামগ্রী বিতরণ তামিমের লাইভ আড্ডার শেষ পর্ব আজ বেতন না পেয়ে পরিবারসহ কুয়োয় ঝাঁপ, ৯ লাশ উদ্ধার ভোলাহাটে কোটিপতির ঘরে রিলিফ গেলেও বাদ পড়েছে নি¤œ আয়ের মানুষ ভোলাহাটে টিভি দেখার প্রলোভন দেখিয়ে শিশুর শ্লীলতাহানির চেষ্টা: বৃদ্ধ গ্রেফতার চাঁপাইনবাবগঞ্জে ঈদের জামাতের জন্য প্রস্তুত ২৪৯১ টি মসজিদ ঈদেও চিকিৎসা সেবা অব্যাহত থাকবে সাদিয়া ক্লিনিক চাঁপাইনবাবগঞ্জে এবার আম্পানে ক্ষতিগ্রস্থদের বাড়ি মেরামত করল সেনাবাহিনী
Large Add

৩০ জুন পর্যন্ত সকল এনজিও’র ঋণের কিস্তি স্থগিত

প্রাণঘাতী করোনাভাইরাসের কারণে স্থবির হয়ে আসে পুরো বিশ্ব। বন্ধ রয়েছে ব্যবসা-বাণিজ্য তথা অর্থনৈতিক কর্মকাণ্ড। যার প্রভাব পড়েছে বাংলাদেশের অর্থনীতিতেও। এ অবস্থায় দেশের এনজিওগুলোকে আগামী জুন পর্যন্ত ঋণের কিস্তি না নিতে নির্দেশ দিয়েছে মাইক্রোক্রেডিট রেগুলেটরি অথরিটি (এমআরএ)। সেইসঙ্গে জুনের পর ওই কিস্তির ওপর নতুন কোনো জরিমানা নেওয়া যাবে না বলেও নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

জানা গেছে, রোববার মাইক্রোক্রেডিট রেগুলেটরি অথরিটির পরিচালক মোহাম্মাদ ইয়াকুব হোসেন স্বাক্ষরিত এ সংক্রান্ত নির্দেশনা এনজিওগুলোর কাছে পাঠানো হয়েছে।

এ বিষয়ে একাধিক এনজিও’র সঙ্গে যোগাযোগ করে নির্দেশনা পাওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত হওয়া যায়।

এমআরএ’র ওই নির্দেশনায় বলা হয়, করোনাভাইরাসের কারণে বিশ্ব বাণিজ‌্যের পাশাপাশি দেশের ব্যবসা-বাণিজ্যে নেতিবাচক প্রভাব পড়েছে। এ অবস্থায় ক্ষুদ্রঋণ প্রতিষ্ঠানের ঋণ গ্রহীতাদের ব্যবসা-বাণিজ্য তথা স্বাভাবিক অর্থনৈতিক কর্মকাণ্ডও বাধাগ্রস্ত হওয়ার আশঙ্কা দেখা দিয়েছে। উদ্ভূত পরিস্থিতিতে মাইক্রোক্রেডিট রেগুলেটরি অথরিটি সিদ্ধান্ত নিয়েছে যে, মাইক্রোক্রেডিট রেগুলেটরি অথরটি বিধিমালা ২০১০ এর বিধি ৪৪ অনুসরণে ১ জানুয়ারি ২০২০ তারিখে ঋণের শ্রেণিমান যা ছিল, আগামী ৩০ জুন পর্যন্ত উক্ত ঋণ তদাপেক্ষা বিরূপমানে শ্রেণিকরণ করা যাবে না। তবে কোনো ঋণের শ্রেণিমানের উন্নতি হলে তা বিদ্যমান নিয়মানুযায়ী শ্রেণিকরণ করা যাবে।

নির্দেশনার চিঠি পাওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করে বেসরকারি সংস্থা আর্স বাংলাদেশের নির্বাহী পরিচালক শামসুল আলম বলেন, এর ফলে আগামী জুন পর্যন্ত কোনো ঋণ গ্রহীতা কিস্তি না দিলে তাকে চাপ দেওয়া যাবে না। সেইসঙ্গে নির্ধারিত সময় শেষে কোনো প্রকার জরিমানা ছাড়াই বকেয়া কিস্তি গ্রহণ করে ঋণ শ্রেণিকরণ করতে হবে।

  •  
  •  
  •  
  •  
Add img sm
Add img sm

আরও পড়ুন