সর্বশেষ সংবাদ পঞ্চম বিয়ে: প্রবাসীর স্ত্রীকে নিয়ে উধাও মসজিদের ইমাম দ্রুত ওমরাহ কার্যক্রম শুরু হচ্ছে: নতুন নিয়ম ও শর্ত! পরিচালকের বিরুদ্ধে মামলার পর এবার পায়েলে হুমকি সিলেট ও খাগড়াছড়িতে গণধর্ষণের প্রতিবাদে জেলা ছাত্রদলের বিক্ষোভ মিছিল প্রধানমন্ত্রীর জন্মদিনে ফুলেল শুভেচ্ছা মোদির, চীনের অভিনন্দন বার্তা আবারো বাড়ছে মুক্তিযোদ্ধাদের সম্মানী ! শেখ হাসিনার নেতৃত্ব বিশ্বে প্রশংসিত চাঁপাইনবাবগঞ্জে ছাত্রদলের বিক্ষোভ মিছিল নাচোলে আ’লীগের পৃথক পৃথক ভাবে প্রধান মন্ত্রী শেখ হাসিনার ৭৪ তম জন্ম বার্ষিকী পালিত অবিশ্বাস্য কর্মযজ্ঞ:বদলে গেছে মানুষের জীবন
Large Add

আগামী জুনেই অালোর মুখ দেখবে রাজশাহী বঙ্গবন্ধু নভোথিয়েটার

আগামী বছরের জুনে আলোর মুখ দেখতে যাচ্ছে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান নভোথিয়েটার। রাজশাহীর শহীদ এএইচএম কামারুজ্জামান কেন্দ্রীয় উদ্যান ও বোটানিক্যাল গার্ডেনে দুই দশমিক তিন শূন্য একর জায়গাজুড়ে ইতিমধ্যে মাথা তুলছে এটির নির্মাণযজ্ঞ। সংশ্লিষ্ট সূত্র জানায়, নভোথিয়েটারে আধুনিক প্রযুক্তির ডিজিটাল প্রজেক্টর সিস্টেমযুক্ত প্ল্যানেটরিয়াম, সায়েন্টিফিক অ্যান্ড ডিজিটাল এক্সিবিটস, ফাইভ-ডি সিমিউলেটর থিয়েটার, টেলিস্কোপ, কম্পিউটারাইজড টিকেটিং অ্যান্ড ডেকোরেটিং সিস্টেমসহ নানা সুবিধা থাকবে। ভবন নির্মাণ শেষ হলে দ্রুত অন্যান্য যন্ত্রাংশ সংযোজন হবে নভোথিয়েটারে। ইতিমধ্যে অবকাঠামো উন্নয়নের ৪৬ ভাগ সম্পন্ন হয়েছে। পুরো দমে এর কাজ চলছে বলে জানিয়েছে তদারকি সংস্থা রাজশাহী গণপূর্ত বিভাগের (ডিভিশন-১) নির্বাহী প্রকৌশলী মাসুদ রানা। তিনি জানান, এ প্রকল্পের মেয়াদকাল ২০১৫-২০১৮ সাল ধরা হলেও বিলম্বে কাজ শুরুর কারণে শেষ পর্যন্ত এ প্রকল্পের মেয়াদকাল বৃদ্ধি করে ২০২১ সালের জুন পর্যন্ত করা হয়েছে। নির্ধারিত মেয়াদের মধ্যেই আলোর মুখ দেখবে রাজশাহী বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান নভোথিয়েটার। সংশ্লিষ্ট সূত্র জানায়, ২২২ কোটি তিন লাখ টাকা ব্যয় ধরে ‘বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান নভোথিয়েটার, রাজশাহী স্থাপন’ প্রকল্পটি হাতে নিয়েছিল রাজশাহী সিটি করপোরেশন। এটির প্রথমে বাস্তবায়নের মেয়াদকাল ধরা হয়েছিল ২০১৫-২০১৮। সর্বশেষ প্রকল্পের মেয়াদ আগামী জুন পর্যন্ত বর্ধিত করা হয়েছে। ২০১২ সালের ৯ জানুয়ারি রাসিক মেয়র এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটন রাজশাহীতে নভোথিয়েটার স্থাপনে বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি মন্ত্রণালয়ে চিঠি লিখেন। মূলত এরপর থেকেই শুরু নভোথিয়েটারের স্বপ্নযাত্রা। এটি দেশের দ্বিতীয় নভোথিয়েটার। জানা গেছে, প্রকল্পটি ২০১৫ সালের আগস্টে পরিকল্পনা কমিশনের প্রকল্প মূল্যায়ন কমিটির (পিইসি) সভায় অনুমোদন পায়। ওই বছরের ডিসেম্বরে যায় একনেকে। এরপর ২০১৬ সালের ১৬ ফেব্রুয়ারি একনেক সভায় অনুমোদন হয় এই প্রকল্প। রাজশাহী গণপূর্ত অধিদফর সূত্র জানায়, ২২২ কোটি ৩ লাখ টাকার মধ্যে কেবল অবকাঠামো নির্মাণেই ব্যয় হচ্ছে ৬২ কোটি টাকা। ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান ন্যাশনাল ডেভেলপমেন্ট ইঞ্জিনিয়ার্স লিমিটেড এই কাজ বাস্তবায়ন করছে। ২০১৮ সালের ২২ অক্টোবর শুরু হয় অবকাঠামো নির্মাণ কাজ। নির্ধারিত স্থানটিতে বড় বড় গাছসহ চিড়িয়াখানার বেশ কিছু প্রাণির খাঁচা সরিয়ে জমি বুঝিয়ে দিতে বিলম্ব হওয়ার কারণে প্রকল্পের কাজও শুরু হয় বিলম্বে। সোমবার সরেজমিন প্রকল্প এলাকা ঘুরে দেখা গেছে, নভোথিয়েটারের চারতলা ভিত বিশিষ্ট অফিস ব্লকের নির্মাণকাজ চলছে। আরেকটি ভবনের দ্বিতীয় তলার সাটারিং কাজ করছেন শ্রমিকরা। ৩৯ হাজার ৮০০ বর্গফুট আয়তনের প্লানেটরিয়াম ব্লকের নির্মাণকাজও শুরু করেছে ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান। রাজশাহী সিটি মেয়র এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটন জানান, এটি রাজশাহীবাসীর জন্য স্বপ্নের একটি প্রকল্প। নভোথিয়েটার নির্মাণকাজ দ্রুত গতিতে এগিয়ে চলছে।

  •  
  •  
  •  
  •  
Add img sm
Add img sm

আরও পড়ুন